৬ ব্যাংকে আস্থা হারাচ্ছেন বিনিয়োগকারীরা

Bank_শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ফেসভ্যালুর নিচে নেমে এসেছে ব্যাংক খাতের ছয় কোম্পানি। মঙ্গলবার দিনের লেনদেন শেষে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) উঠে আসে এ চিত্র।

ফেসভ্যালু বা ভিত্তিমূল্যের নিচে নেমে আসা কোম্পানিগুলো হচ্ছে- এক্সিম ব্যাংক, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামি ব্যাংক, আইসিবি ইসলামি ব্যাংক, এনসিসি ব্যাংক, প্রিমিয়ার ব্যাংক ও স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেড।

দিনশেষে, এক্সিম ব্যাংকের সর্বশেষ শেয়ারদর ৯ টাকায় লেনদেন হয়েছে, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের ৮.৮০ টাকায়, আইসিবি ইসলামী ব্যাংকের ০.১০ টাকায় কমে ৪ টাকায়, এনসিসি ব্যাংকের ০.১০ টাকা কমে ৯.৫০ টাকায়, প্রিমিয়ার ব্যাংকের ০.১০ টাকা বেড়ে ৮.৮০ টাকায় এবং স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের ০.১০ টাকা বেড়ে ৯.৭০ টাকায় লেনদেন হয়।

সম্প্রতি, চূড়ান্ত হওয়া ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটে ব্যাংক কোম্পানিগুলোর জন্য কর্পোরেট কর ও উৎসে কর কমানোর মত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সে সময় বাজার সংশ্লিষ্টরা মনে করেছিলেন এসব সিদ্ধান্তের প্রভাবে বাজারে ব্যাংকের শেয়ার ভালো করতে পারবে। কিন্তু আদতে তা আর আলোর মুখ দেখেনি। একের পর এক ঋণ কেলেঙ্কারী ও পরিচালকদের অনিয়মের খবর ফাঁস হয়ে যাওয়ার পর থেকে ব্যাংকের শেয়ারে নিয়মিত কোনো উর্ধ্বমুখি প্রবনতা দেখা যায়নি।

এর মধ্যে যুক্ত হয়েছে পুঁজিবাজারে ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগকৃত অর্থ ঋণাত্মক ইক্যুইটিতে পরিনত হওয়া। বাজারে তালিকাভুক্ত বেশ কয়েকটি ব্যাংকের বিশাল অঙ্কের বিনিয়োগ নেগেটিভ ইক্যুইটিতে পরিনত হয়। আর বাংলাদেশ ব্যাংকের সংশোধিত ব্যাংক কোম্পানি নীতিমালা অনুযায়ি, আগামি বছরের জুনের মধ্যে ব্যাংকের বিনিয়োগ পরিশোধিত মূলধন ২৫ শতাংশের নিচে নামিয়ে আনতে হবে। অর্থ মন্ত্রনালয় ও সরকারের নীতি নির্ধারনী মহলে যোগাযোগ করে সময়সীমা বাড়ানোর উদ্যেগ নেয়া কোম্পানিগুলো ইতিমধ্যে এ ব্যাপারে হতাশ হয়ে পড়েছে। আর বিনিয়োগকারীরাও এ আশঙ্কায় ব্যাংকের শেয়ারের ব্যাপারে তেমনভাবে আগ্রহ দেখাচ্ছেন না।

বাজার সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলোর অনিয়ম, অদক্ষতা আর দূর্নীতির কারণেই বিনিয়োগকারীরা ব্যাংকের ব্যাপারে আগ্রহ দেখাতে সাহস পাচ্ছেন না। আর সে কারনেই মৌলভিত্তি সম্পন্ন হওয়া সত্ত্বেও ব্যাংকের শেয়ারের দর আশানরুপ না। এমনকি ফেসভ্যালুর নিচেও চলে এসেছে কয়েকটি ব্যাংকের শেয়ার।

শেয়ারবাজারনিউজ/ও/রু/সা

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top