আজ: সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১ইং, ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২০ নভেম্বর ২০২১, শনিবার |



kidarkar

দেশে ক্রমেই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে ইসলামী ব্যাংকগুলো

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও প্রবৃদ্ধিতে ইসলামী ব্যাংকিং খাত উল্লেখযোগ্য অবদান রাখছে। খাতটি প্রচলিত ব্যাংকগুলোর থেকে ক্রমান্বয়ে আকর্ষণীয় হয়ে উঠছে। ইসলামি ব্যাংকগুলোর আমানত এবং বিনিয়োগ সময়ের সঙ্গে বেড়েই চলছে। বাড়ছে তারল্য অনুপাত এবং উচ্চতর ঋণ-আমানত অনুপাত।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, চলতি বছরের সেপ্টেম্বর শেষে ইসলামী ব্যাংকিং খাতে মোট আমানত তিন হাজার ৭৬৫ কোটি ৭৮ লাখ টাকায় পৌঁছেছে, ২০২০ সালের একই সময় যা ছিলো তিনি হাজার ১৯৬ কোটি ২৫ লাখ টাকা। এক বছরের ব্যবধানে ব্যাংকগুলোর আমানত বেড়েছে ১৭.৮২ শতাংশ।

ব্যাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য বলছে, দেশে বর্তমানে পুর্ণাঙ্গ ইসলামী শরিয়ত মোতাবেক চলা ব্যাংকের সংখ্যা মোট ১০টি। এই দশটি ব্যাংকে সেপ্টেম্বর শেষে আমানতের পরিমাণ তিন হাজার ৫৫১ কোটি টাকা, যার পরিমাণ গত জুনে ছিলো তিন হাজার ৪৭০ কোটি ১৪ লাখ টাকা। সে হিসেবে তিন মাসে আমানতের বেড়েছে ২.৩৩ শতাংশ। আর গত বছর একই সময় আমানতের পরিমাণ ছিলো ২৯০৫ কোটি ৭ লাখ টাকা। এক বছরে পুর্ণাঙ্গ ইসলামী ব্যাংকিং খাতে আমানত বেড়েছে ২২.১৯ শতাংশ।

অন্যদিকে, প্রচলিত ব্যাংকগুলোর ৯টিতে ইসলামী ব্যাংকিং শাখা রয়েছে। এই নয়টি ব্যাংকের ইসলামি শাখাগুলোতে সেপ্টেম্বর শেষে মোট আমানতের পরিমাণ ১০১ কোটি ২৬ লাখ টাকা, গত গত জুন থেকে ৩ কোটি ৪৪ লাখ টাকা কম। জুন পর্যন্ত এই ব্যাংকগুলোর ইসলামী শাখায় আমানতের পরিমাণ ছিলো ১০৪ কোটি ৭০ লাখ টাকা। আর গতবছরের সেপ্টেম্বরে ব্যাংকগুলোর ইসলামী ব্যাংকিং শাখার আমানত ছিলো ১০৪ কোটি ৬৬ লাখ টাকা। সে হিসেবে একবছরে আমানত কমেছে ৩ কোটি ৪০ লাখ টাকা, যা বর্তমান সময় থেকে ৩.২৫ শতাংশ কম।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হালনাগাত তথ্য বলছে, ইসলামী ব্যাংকিং খাতে মোট বিনিয়োগ (প্রচলিত ব্যাংকিং ব্যবস্থায় ঋণ ও অগ্রগতি) ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর শেষে দাঁড়িয়েছে ৩৩৬৮ কোটি ২০ লাখ টাকা, যা গত জুন থেকে ৮৮ কোটি ৭৭ লাখ টাকা বা ২.৭১ শতাংশ বেশি। জুনে এর পরিমাণ ছিলো ৩২৭৯ কোটি ৪৩ লাখ টাকা। এছাড়া আর গত বছরের সেপ্টেম্বর শেষে বিনিয়োগের পরিমাণ ছিলো ২৮৪০ কোটি ১০ লাখ টাকা। সে হিসেবে এক বছরে বিনিয়োগ বেড়েছে ৫২৮ কোটি ১০ লাখ টাকা বা ১৫.৪৭ শতাংশ।

এছাড়া ২০২১ সালের সেপ্টেম্বরের শেষে ইসলামী ব্যাংকিং খাতের অতিরিক্ত তারল্য ৩৫১ কোটি ৮৬ লাখ টাকা দাঁড়িয়েছে, যা গত জুন থেকে ১১ কোটি ৭৮ লাখ বা ৩.২৪ শতাংশ কম। আর একবছরে তারল্য বেড়েছে ১৬৯ কোটি ৩২ লাখ টাকা বা ৯২.৭৬ শতাংশ।

২০২১ সালের সেপ্টেম্বর শেষে মাসে ইসলামিক ব্যাংকিং সেক্টর দ্বারা মোট রেমিট্যান্স সংগ্রহের পরিমাণ ছিল ১৯৭ কোটি ৯২ লাখ টাকা। সে হিসেবে গত জুন মাসের তুলনায় ২ কোটি ৪৮ লাখ টাকা বা ১.২৪ শতাংশ কম। তবে গত বছরের তুলনায় এ বছর ইসলামী ব্যাংকিং খাতে রেমিট্যান্স বেশি এসেছে ১৮ কোটি ৩৬ লাখ টাকা বা ১০.২৩ শতাংশ।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.