কিভাবে বুঝবেন আপনার হার্ট অ্যাটাকের সম্ভবনা আছে

HARTশেয়ারবাজার ডেস্ক: পেট খারাপ বা জ্বরের সঙ্গে হৃদরোগের মতো অসুখের পার্থক্য হল, এতে বড়সড় কোনও লক্ষণ দেখা যায় না। ফলে আমাদের অজান্তেই শরীরে বাসা বাঁধে এই রোগ। এবং ক্রমে ক্রমে হার্টকেই অকেজো করে মৃত্যুমুখে ঠেলে দেয়। হার্টের অসুখে খুব ছোট ছোট কিছু লক্ষণ দেখা যায় যাকে আমরা বেশিরভাগ সময়ই এড়িয়ে যাই। যেমন বুকের ব্যথাকে যদি আমরা গ্যাসের সমস্যা বলে এড়িয়ে যাই, তাহলে সমস্যা বাড়বে বই কমবে না। একরমই বেশ কয়েকটি ছোটখাটো লক্ষণ রয়েছে যেগুলিকে আমরা এড়িয়ে যাই। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ছেলে ও মেয়েদের ক্ষেত্রে হার্টের অসুখের লক্ষণ আলাদা আলাদা হয়। বুকে ব্যথাঃ বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই হার্টের অসুখের লক্ষণগুলিকে আমরা এড়িয়ে যাই। হার্টের অসুখে ঠিক কেমন ব্যথা হয় সেসম্পর্কে আমরা অজ্ঞাত থাকি। ফলে অনেকেই নিজে থেকে ওষুধ কিনে খেয়ে ফেলেন। যা কখনওই উচিত নয়। তাই কখনও বুকে ব্যথা হলে সেটাকে এড়িয়ে যাবেন না। বেশি করে নাক ডাকাঃ আপনার বাড়িতে কি কারও অত্যধিক জোরে নাক ডাকার অভ্যাস আছে? যদি থাকে, তাহলে একদম এড়িয়ে যাবেন না। শ্বাস নিতে সমস্যা হলে এমন হলে থাকে। এটি হার্টের অসুখের অন্যতম লক্ষণ। দুশ্চিন্তাঃ যদি আপনি ভেবে থাকেন যে এটি মানসিক সমস্যা তাহলে ভুল করছেন। সবসময় ছোটখাটো বিষয়ে দুশ্চিন্তা করতে থাকলে হার্টের উপরে মারাত্মক চাপ পড়ে। দমে কম পড়াঃ যদি দেখেন অল্পতেই দম ফুরিয়ে আসছে এবং মুখ দিয়ে শ্বাস নিতে হচ্ছে, তাহলে বুঝবেন হার্টের সমস্যা আগামিদিনে হতে পারে। কাশিঃ যদি সবসময়ে কাশির সমস্যা থাকে এবং তার সঙ্গে রক্ত উঠে আসে তাহলে অবশ্যই হৃদরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। ক্লান্তিঃ কখনও কখনও অলসভাবে সময় কাটাতে ভালোই লাগে। তবে যদি সেটা অভ্যাসে পরিণত হয়ে যায় তাহলে সাবধান। বিশেষ করে মহিলাদের মধ্যে ক্লান্তির সমস্যা হৃদরোগের লক্ষণ বহন করে। অজ্ঞান হয়ে যাওয়াঃ যদি কাজের মধ্যেই আপনি হঠাৎ করে অজ্ঞান হয়ে যান, তাহলে বুঝবেন হার্টের সমস্যা রয়েছে। কোনওরকম ঝুঁকি না নিয়ে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। চোখে সমস্যাঃ হার্টের সমস্যা হলে নানা লক্ষণের মধ্যে এটিও অন্যতম। যদি দেখেন নতুন চশমা নেওয়ার পরও আপনার দেখতে সমস্যা হচ্ছে, তাহলে হার্টে কোনও গোলযোগ হয়ে থাকতে পারে। মাথা ব্যথাঃ যখনই প্রচণ্ড মাথা ব্যথা হয়, আমরা ওষুধ খেলে তা সেরে যায়। তবে জানেন কি, হার্ট অ্যাটাকের অন্যতম লক্ষণ এই রোজকার মাথা ব্যথা? বমি বমি ভাবঃ প্রায়শই বমি বমি ভাব স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাকের অন্যতম লক্ষণ। শরীরের অন্যান্য অঙ্গে ব্যথাঃ বুকে বা মাথায় ব্যথা খুব স্বাভাবিক। তবে হার্টের অসুখে শরীরে নানা জায়গার গাঁটে ব্যথাও অন্যতম লক্ষণ হিসাবে কাজ করে। বেশি পরিমাণে ঘামাঃ আপনার হার্টের সমস্যা রয়েছে, এটা তার অন্যতম লক্ষণ। মাত্রাতিরিক্ত ঘাম হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। অনিয়মিত পালস রেটঃ হার্টের সমস্যা হলে পালস রেট বাড়তে বা কমতে পারে। অনিয়মিত পালস রেট হলে তাতে স্ট্রোক বা হার্ট অ্যাটাকের সমস্যা হতে পারে। ফুলে যাওয়াঃ হার্টের সমস্যা হলে শরীরের নানা জায়গায় ফ্লুইড জমতে থাকে। বিশেষ করে হাত ও পায়ের নানা সংযোগস্থলে। এমন হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। হঠাৎ করে ওজন বেড়ে যাওয়াঃ হার্টের সমস্যায় এই বিষয়টিকে আমরা অনেকেই এড়িয়ে যাই। তবে হঠাৎ করে অনেক বেশি ওজন বেড়ে গেলে সাবধান। প্রয়োজনে অবশ্যই হৃদরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.মা

আপনার মন্তব্য

Top