৯৮ কোম্পানির ডিভিডেন্ড পাবেন বিনিয়োগকারীরা

Divedent_sb newsশেয়ারবাজার রিপোর্ট: শিগগিরই পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৯৮ কোম্পানির ডিভিডেন্ড পাবেন বিনিয়োগকারীরা। জুন মাসে অর্থবছর শেষ হওয়া কোম্পানিগুলোর পর্ষদ সভা অনুষ্ঠান করার সময় এসে গেছে। আর তাই খুব শিগগিরই এ সকল কোম্পানির বিনিয়োগকারীদের জন্য ডিভিডেন্ড ঘোষণা আসবে বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

জানা যায়, ইতিমধ্যে জুন ক্লোজিংয়ের ৩ কোম্পানি বিনিয়োগকারীদের জন্য ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেছে। কোম্পানিগুলো হলো: এপেক্স ট্যানারি, এপেক্স ফুডস এবং বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমস লিমিটেড।

হিসাব বছর শেষ হওয়া বাকি ৯৮টি কোম্পানির মধ্যে রয়েছে:

বস্ত্র খাতের আল-হাজ্ব টেক্সটাইল, অলটেক্স, আনলিমা ইয়ার্ণ, ফারইস্ট নিটিং, সি অ্যান্ড এ টেক্সটাইল, দেশ গার্মেন্টস, দুলামিয়া কটন, মেট্রো স্পিনিং, মোজাফফর হোসেন স্পিনিং, হামিদ ফেব্রিক্স, হা-ওয়েল টেক্সটাইল, প্রাইম টেক্সটাইল, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, সায়হাম টেক্সটাইল, জাহিন টেক্সটাইল, মালেক স্পিনিং, মতিন স্পিনিং, মিথুন নিটিং, মডার্ণ ডাইং, তাল্লু স্পিনিং, ডেল্টা স্পিনিং, রহিম টেক্সটাইল এবং ঢাকা ডাইং।

প্রকৌশল খাতের আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, এপোলো ইস্পাত, এটলাস বাংলাদেশ, আরএসআরএম স্টিল, সাইফ পাওয়ার, শাহজিবাজার পাওয়ার, বিডি অটোকার্স, বেঙ্গল উইন্ডসোর, ইস্ট্রার্ণ ক্যাবল, ন্যাশনাল পলিমার, ন্যাশনাল টিউবস, সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ, ইফাদ অটোস, অলিম্পিক এক্সেসরিজ, কাশেম ডাইসেল, দেশবন্ধু পলিমার, রেনউইক যজ্ঞেশ্বর এবং ওয়েস্টার্ণ মেরিন শিপইয়ার্ড।

খাদ্য ও আনুষাঙ্গিক খাতের এএমসিএল (প্রাণ) , বিচ হ্যাচারী, ফু-ওয়াং ফুডস, এমারেল্ড অয়েল, বংঙ্গজ, রহিমা ফুডস, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ, শ্যামপুর সুগার, ঝিলবাংলা সুগার মিলস লিমিটেড, গোল্ডেন হার্ভেস্ট, মেঘনা কনডেন্সড মিল্ক এবং মেঘনা পেট।

জ্বালানী খাতের বারাকা পাওয়ার, সিভিও পেট্রোকেমিক্যাল, পাওয়ার গ্রিড, পদ্মা অয়েল, ডেসকো, মেঘনা প্রেট্রোলিয়াম, তিতাস গ্যাস, ইস্ট্রার্ণ লুব্রিকেন্টস এবং যমুনা অয়েল।

ঔষধ ও রসায়ন খাতের সেন্ট্রাল ফার্মা, ইমাম বাটন, লিবরা ইনফিউশন, বিকন ফার্মা, ওরিয়ন ইনফিউশন,  ফার্মা এইডস, ফার কেমিক্যাল এবং কোহিনূর কেমিক্যাল।

বিবিধ খাতের খান ব্রাদার্স, মিরাকেল ইন্ডাস্ট্রিজ, বিএসসি, সাভার রিফেক্টোরিজ এবং উসমানিয়া গ্লাস।

আইটি খাতের আমরাটেক, অগ্নি সিস্টেমস, বিডিকম এবং ড্যাফোডিল কম্পিউটারস।

সিরামিক খাতের ফু-ওয়াং সিরামিকস, মুন্নু সিরামিকস এবং স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক।

সেবা খাতের ইস্টার্ন হাউজিং, সমরিতা হাসপাতাল এবং দি পেনিনসুলা চিটাগাং।

আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতের মাইডাস ফাইন্যান্স এবং ডিবিএইচ।

সিমেন্ট খাতের এম আই সিমেন্ট এবং প্রিমিয়ার সিমেন্ট।

পাট খাতের জুট স্পিনার্স, নর্দার্ণ জুট এবং সোনালী আঁশ।

কাগজ ও মুদ্রণ খাতের হাক্কানী পাল্প এবং খুলনা পেপার।

টেলিকম খাতের বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবলস।

ভ্রমন ও আনুষাঙ্গিক খাতের ইউনাইটেড এয়ার।

এবং চামড়া খাতের সমতা লেদার।

এ সকল কোম্পানির মধ্যে কিছু সংখক কোম্পানি লোকসানে থাকায় বিনিয়োগকারীদের কোন প্রকার ডিভিডেন্ড দিতে পারবে না বলে ধারণা করছেন সাধারন বিনিয়োগকারী এবং বাজার সংশ্লিষ্টরা।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/মু/ আহাতু

 

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top