অধিকাংশ ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা বেড়েছে

বিদায়ী বছর ২০১৪ সাল শেষে দেশের ব্যাংকিং খাতের অধিকাংশ ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা বেড়েছে। রাজনৈতিক অস্থিরতা এবং বিনিয়োগযোগ্য পরিবেশের অভাব থাকা সত্ত্বেও ২০১৩ সালের তুলনায় ২০১৪ সমাপ্ত বছরে অধিকাংশ ব্যাংক ভাল মুনাফা করেছে। বছরের শেষ দিন বুধবার রাত পর্যন্ত বেসরকারি খাতের ৩৯ ব্যাংকের মধ্যে ২৬ ব্যাংকের পরিচলন মুনাফার তথ্য পাওয়া গেছে। এ ব্যাংকগুলোর মধ্যে ২৩ ব্যাংকের মুনাফা বেড়েছে। কমেছে মাত্র ৩টি ব্যাংকের।
তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, পরিচালন মুনাফার ওপর ভিত্তি করে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের কোনো সিদ্ধান্ত না নেওয়াই ভালো। কারণ পরিচালন মুনাফা থেকে নিট মুনাফা বা প্রকৃত মুনাফার ধারণা পাওয়া কঠিন। পরিচালন মুনাফা থেকে খেলাপি ও মন্দ ঋণের বিপরীতে সঞ্চিতি রাখা এবং আয় কর পরিশোধের পর প্রকৃত মুনাফা বা নিট মুনাফার পরিমাণ জানা সম্ভব। দুটি ব্যাংক সমপরিমাণ পরিচালন মুনাফা করলেও সঞ্চিতির কম-বেশির কারণে নিট মুনাফা ভিন্ন হতে পারে।
জানা গেছে, গত কয়েক বছরের মতো এবারও সবচেয়ে বেশি মুনাফা করেছে ইসলামী ব্যাংক ১ হাজার ৭২৫ কোটি টাকা। ২০১৩ সালে তাদের মুনাফা হয় ১ হাজার ৪৫৬ কোটি টাকা, যা আগের বছরের চেয়ে ২৬৯ কোটি টাকা বেশি।
২০১৪ সালে এবি ব্যাংক মুনাফা করেছে ৮৯০ কোটি টাকা, যা আগের বছরের চেয়ে ৩৬২ কোটি টাকা বেশি। ২০১৩ সালে ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা হয় ৫২৮ কোটি টাকা। ইউসিবিএল ব্যাংক এবার মুনাফা করেছে ৮৫০ কোটি টাকা। আগের বছর ব্যাংকটির মুনাফার পরিমাণ ৭১২ কোটি টাকা।
সাউথইস্ট ব্যাংকের মুনাফা ১১৮ কোটি টাকা বেড়ে হয়েছে ৮৩০ কোটি টাকা। আগের বছরে মুনাফা হয় ৭১২ কোটি টাকা। পূবালী ব্যাংকের মুনাফা ৭৯৬ কোটি টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে ৮৩২ কোটি টাকা। ন্যাশনাল ব্যাংকের মুনাফা আগের বছরের তুলনায় ৪৫৮ কোটি টাকা বেড়ে হয়েছে ৮১১ কোটি টাকা। ২০১৩ সাল শেষে ব্যাংকটি ৩৫৩ কোটি টাকা মুনাফা করে। যমুনা ব্যাংকের মুনাফাও আগের বছরের তুলনায় ৩২২ কোটি টাকা বেড়েছে। ২০১৪ সালে ৫২৮ কোটি টাকা মুনাফা হয়েছে ব্যাংকটির; যা আগের বছর ছিল ২৯৬ কোটি টাকা।
বছর শেষে প্রাইম ব্যাংকের মুনাফা আগের বছরের তুলনায় ৫৩ কোটি টাকা কমে হয়েছে ৭১০ কোটি টাকা; আগের বছরে ছিল ৭৬৩ কোটি টাকা।
এছাড়া ২০১৪ সাল শেষে এক্সিম ব্যাংক ৬২৫ কোটি, মার্কেন্টাইল ব্যাংক ৫৩০ কোটি, এনসিসি ব্যাংক ৩৮৬ কোটি, ওয়ান ব্যাংক ৩৮৮ কোটি ও মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক ২৮০ কোটি টাকা মুনাফা করেছে।
ইসলামী ব্যাংকগুলোর মধ্যে আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের মুনাফা ৪১৯ কোটি থেকে বেড়ে ৬২৫ কোটি, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের ২৯২ কোটি থেকে বেড়ে ৪৬৫ কোটি, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের ২০২ কোটি টাকা থেকে বেড়ে ২২১ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা হয়েছে। তবে কমেছে শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের মুনাফা। আগের বছরের ২৬৯ কোটি টাকা থেকে কমে হয়েছে ২৫০ কোটি টাকা।
ব্যবসা সম্প্রসারণে কাক্সিক্ষত অগ্রগতি না হলেও নতুন কার্যক্রমে আসা একটি ছাড়া বাকি ব্যাংকগুলোরই মুনাফা বেড়েছে। যদিও তা খুবই কম। নতুন ব্যাংকের মধ্যে সর্বোচ্চ ৫১ কোটি টাকা মুনাফা করেছে মধুমতি ব্যাংক। আগের বছরে ব্যাংকটি ১১ কোটি টাকা মুনাফা করে। এছাড়া ফার্মার্স ব্যাংকের মুনাফা আগের বছরের সাড়ে ৫ কোটি টাকা থেকে বেড়ে ১৪ কোটি, মিডল্যান্ড ব্যাংকের মুনাফা ৩ কোটি থেকে বেড়ে ১৭ কোটি, ইউনিয়ন ব্যাংকের ২৪ কোটি টাকা থেকে বেড়ে ৪২ কোটি, মেঘনা ব্যাংকের ৯ কোটি থেকে বেড়ে ১৬ কোটি, এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের ৯ কোটি থেকে বেড়ে ৩১ কোটি ও সাউথবাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা আগের বছরের ১৩ কোটি টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে ৩১ কোটি টাকা।
এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের মুনাফা আগের বছরের থেকে বেড়ে ২০১৪ সালে ৩ কোটি টাকা মুনাফা করেছে। তবে শুধু এনআরবি ব্যাংকের মুনাফা আগের বছরের চেয়ে ১ কোটি টাকা কমে হয়েছে ২ কোটি টাকা।

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top