৪ দিন পর সংশোধন

indexশেয়ারবাজার রিপোর্ট: সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবসে উভয় শেয়ারবাজারে সূচকের পতনে শেষ হয় লেনদেন। এর ফলে টানা চার দিন পর নিম্নমুখী প্রবণতায় ফিরলো বাজার। মঙ্গলবার শুরুতে ক্রয় চাপে বাড়তে থাকে সূচক এবং কিছুক্ষণ পর বিক্রয় চাপে ধীরে ধীরে পড়তে থাকে। এদিন সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশীরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। আর টাকার অংকেও উভয় বাজারে লেনদেন কিছুটা কমেছে।

কিছুদিন যাবৎ টানা উত্থানে ছিলো পুঁজিবাজার। আর এ সময়ে লেনদেনের পাশাপাশি ধারাবাহিক ভাবে বেড়েছে বাজার মূলধন। এতে বাজারকে ঘিরে বিনিয়োগকারীরা আশাবাদী হওয়ার পাশাপাশি স্বস্তি ফিরে পেয়েছেন। তবে কয়েক দিন পর আজকের বাজারে সামান্য পতনকে সংশোধন হিসেবে দেখছেন  বাজার সংশ্লিষ্টরা।

দিনশেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪৭৮৪ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১১৭৫ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১৮২৭ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩২০টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১০৮টির, কমেছে ১৭২টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪০টি কোম্পানির শেয়ার দর। যা টাকায় লেনদেন হয়েছে ৪৪৪ কোটি ৮০ লাখ ৮ হাজার টাকা।

এর আগে সোমবার ডিএসই ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ১৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৪৭৯১ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১১৭৭ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১৮২৯ পয়েন্টে। ওইদিন লেনদেন হয় ৪৭৩ কোটি ৭৯ লাখ ১ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ২৮ কোটি ৯৮ লাখ ৯৩ হাজার টাকা বা ৬.১২ শতাংশ।

এদিকে দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ মূল্যসূচক ৩৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৮৯০৪ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৫৮টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৭৭টির, কমেছে ১৬১টির ও দর অপরিবর্তিত রয়েছে ২০টির। যা টাকায় লেনদেন হয়েছে ৩২ কোটি ৪৪ লাখ ৯২ হাজার টাকা।

এর আগে সোমবার সিএসইর সাধারণ মূল্যসূচক ৬১ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৮৯৪৬ পয়েন্টে। ওইদিন লেনদেন হয় ৩৭ কোটি ৮২ লাখ ৩৭ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ সিএসইতে লেনদেন কমেছে ৫ কোটি ৩৭ লাখ ৪৫ হাজার টাকা বা ১৪.২১ শতাংশ।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/অ

 

আপনার মন্তব্য

Top