প্রবৃদ্ধি বাড়লেও আলিবাবার লেনদেনে পতন

Alibabaশেয়ারবাজার ডেস্ক: বৃহস্পতিবার প্রকাশিত ত্রৈমাসিক রিপোর্ট অনুযায়ি প্রবৃদ্ধি প্রায় ৪০ শতাংশ বাড়লেও লেনদেনে উল্টোফল দেখা গেছে আলিবাবার শেয়ারের। এদিন বাজারে কোম্পানির শেয়ারের তেজিভাব থাকার কথা থাকলেও তাতে ব্যর্থ হয়েছে ই-কমার্স জায়ান্ট আলিবাবা। এক্ষেত্রে চীনের সাম্প্রতিক মন্দাকে প্রত্যাশিত লক্ষমাত্রা অর্জন না হবার কারন হিসেবে মনে করছেন বাজার বিশ্লেষকরা।

সর্বশেষ বছরের নভেম্বরে চীনের ইতিহাসে এক কার্যদিবসে সর্বোচ্চ লেনদেন হয় আলিবাবার শেয়ারের। কিন্তু সাম্প্রতিক মন্দা বাজারে অর্থের যোগানকে ক্ষতিগ্রস্থ করছে যার প্রভাবে বাজারে আলিবাবার ওপরও পড়েছে। এর মধ্যে মড়ার ওপর খাড়ার ঘা এর মতো আবির্ভুত হয়েছে নকল পন্য বাজারজাত করার অভিযোগ। গত বছর এ পণ্যের উৎপাদনের জন্য বাজার থেকে ২৫ বিলিয়ন ডলার মূলধন উত্তোলন করে কোম্পনিটি।

সর্বশেষ কার্যদিবসে কোম্পানির শেয়ার দর প্রায় ৯ শতাংশ পড়ে যায়। এদিকে বিনিয়োগকারীদের পক্ষ থেকেও ওই প্রকল্প বন্ধ করার জন্য নিয়স্ত্রক সংস্থার কাছে অনুরোধ করা হয়েছে। এদিকে আলিবাবার পক্ষ থেকে সর্বশেষ অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদনে উঠে আসে, কোম্পানিটি এ সময় কর পরিশোধের পরও প্রায় ২.১ বিলিয়ন ডলার মুনুফা করেছে। যা পূর্বের অর্থবছরের তুলনায় প্রায় ০.৩ বিলিয়ন ডলার বেশি।

কোম্পানিটি এ আর্থিক প্রতিবেদন । ২৩ জন বিশ্লেষকের মতামতের ভিত্তিতে তৈরী করে। বছরের শুরুতে ২৭ জন বিশ্লেষকের অভিমত দেন কোম্পানি ৪.৫ বিলিয়ন ডলার মুনাফা করবে। যদিও এ ধারনা সঠিক হয়নি। ওই সময় কোম্পানি ৪.২ বিলিয়ন ডলার মুনাফা করে।

কোম্পানির ব্যবসা কমে যাওয়ার কারন হিসেবে অনেকে অব্যাবস্থাপনা ও ভাবমূর্তির ওপর পড়া প্রভাবকে কারন হিসেবে দেখছেন। গত বছর কোম্পানি এমন বেশ কিছু প্রকল্পের সাথে জড়িয়ে পড়ে যা নকল হিসেবে আবির্ভুত হয় এবং তা বিনিয়োগকারীদের জানানো হয়নি।

আলিবাবা সেপ্টেম্বরে নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেন শুরু করে।

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top