কারো পক্ষ নিয়ে আইপিও অনুমোদন দেয়া হয় না: বিএসইসি

BSECশেয়ারবাজার রিপোর্ট:  কারো পক্ষ নিয়ে প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) অনুমোদন দেয়া হয় না বলে জানিয়েছে নিয়ন্ত্রণ সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। এছাড়া আইপিওতে প্রিমিয়াম পাওয়া না পাওয়া সম্পূর্ণই  কোম্পানির মৌলভিত্তির ওপর নির্ভর করে বলে সংস্থাটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে । সোমবার বিএসইসির ওয়েবসাইটে এ সংক্রান্ত একটি বিবরণী সংযুক্ত করা হয়েছে ।

বিবরণীতে বলা হয়, সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (পাবলিক ইস্যু) রুলস,২০০৬ এ ইস্যু মূল্য নির্ধারণের জন্য বর্ণিত পদ্ধতি অনুসরণে ইস্যুয়ার ও ইস্যু ব্যবস্থাপক ইস্যু মূল্যের স্বপক্ষে পর্যাপ্ত যৌক্তিকতা প্রদান করছে কিনা তা উক্ত বিধিমালার বিধি ৮ (বি) (১৬) (১) (বি) এর আলোকে পূঙ্খানুপুঙ্খভাবে যাচাই করেই প্রত্যেকটি পাবলিক ইস্যুয়ার অনুমোদন করা হয়ে থাকে। পক্ষপাতহীনভাবে ইস্যুর মৌলিক ভিত্তি বিবেচনায় এবং অর্ডিন্যান্স ও বিধিতে উল্লেখিত পদ্ধতির আলোকে প্রিমিয়াম পাওয়া না পাওয়া এবং ইস্যু মূল্যের স্বপক্ষে দাখিলকৃত যৌক্তিকতার যথার্থতা নিরুপন করেই ইস্যুর অনুমোদন দেয়া হয়।

এছাড়া আইন অধ্যাদেশ এবং সংশ্লিষ্ট বিধিসমূহের বাধ্যবাধকতা অনুসারে সিকিউরিটিজে মূল্য নির্ধারণের ক্ষেত্রে ব্যবহৃত পদ্ধতি যথাযথ এবং যৌক্তিকভাবে অনুসরণ করা হচ্ছে কিনা তা পূঙ্খাপূঙ্খভাবে যাচাই এবং কমিশন কর্তৃক ইস্যুকৃত ডিফিসিয়েন্সি পত্রে উল্লেখিত তথ্য সরবরাহ ও দালিলিক প্রমানাদি দাখিলের মাধ্যমে সীমাবদ্ধতাসমূহ দূরীকরণ ও এগুলির যথার্থতা পর্যবেক্ষণের পরেেই ইস্যু অনুমোদন করা হয়ে থাকে। ইস্যুয়ারের হিসাবে ব্যবহৃত উপাত্তসমূহ যাচাই এবং সঠিকতা নিশ্চিতকরণ ইস্যুয়ার এবং এর নিরীক্ষকের দায়িত্ব। অন্যান্য দলিল/কাগজাদি সঠিকতা নিশ্চয়তা প্রদানের দায়িত্ব ইস্যুয়ার এবং ইস্যু ব্যবস্থাপকের। তবে দাখিলকৃত কাগজ,তথ্য,উপাত্ত এবং আর্থিক প্রতিবেদনে কোনো অসঙ্গতি থাকলে ইস্যুর অনুমোদন প্রদান করা হয় না। নিরীক্ষকদের শৃঙ্খলা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণের জন্য ফিন্যান্সিয়াল রিপোটিং অ্যাক্ট প্রণয়ন এবং ফিন্যান্সিয়াল রিপোর্টিং কাউন্সিল প্রতিষ্ঠার জন্য কমিশন অনেক আগে থেকেই সরকারের নিকট সুপারিশ করে আসছে।

এদিকে ইস্যুর ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট বিধিমালা পরিপালনে ব্যর্থতার কারণে কমিশন ২০১৩ ও ২০১৪ সালে মোট ১৮টি আইপিও এবং ১৬টি রাইটস ইস্যুর আবেদন নাকচ করে দিয়েছে। ভুল বা বিভ্রান্তিমূলক তথ্য পরিবেশনের জন্য অনেক ইস্যুয়ার,ইস্যু ব্যবস্থাপক এবং নিরীক্ষকদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থাও গৃহীত হয়েছে।

বিবরণীতে আরো বলা হয়, বিএসইসি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন আইন, ১৯৯৩ এর মুখবন্ধ এবং ধারা ৮ (১) উল্লেখিত দায়িত্ব ও কার্যাবলী অর্থাৎ আইনের বিধান এবং বিধির বিধানাবলী সাপেক্ষে, সিকিউরিটির যথার্থ ইস্যু নিশ্চিতকরণ, সিকিউরিটিতে বিনিয়োগকারীদের সংরক্ষণ এবং পুঁজি ও সিকিউরিটি বাজারের উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এছাড়াও উক্ত আইনের ধারা ৮ (২) (ঙ) এ বর্ণিত সিকিউরিটি বা সিকিউরিটি বাজার সম্পর্কিত প্রতারণামুলক এবং অসাধূ ব্যবসা বন্ধকরণের জন্য কমিশন বিধি-বিধান প্রণয়ন এবং বিচারিক কার্যক্রম পরিচালনা করছে। উল্লেখিত মূল কার্যাবলী বাস্তবায়নের পরিপূরক হিসাবে কমিশন পুঁজিবাজার সংক্রান্ত সংশ্লিষ্ট সকলের কার্যপরিধি নির্ধারণ ও নিয়ন্ত্রণ করে থাকে।

বিবরণীতে বলা হয়, বিভিন্ন দেশের উন্নত পুঁজিবাজারে আন্তর্জাতিকভাবে প্রচলিত নিয়ম অনুসরণ করে বাংলাদেশেও মেরিট বেইসড ইস্যু হতে ডিসক্লোজার বেসড ইস্যু পদ্ধতি প্রবর্তন করা হয় যাতে কমিশনের দায়িত্ব অফার ডকুমেন্ট এ ইস্যুকারীর সার্বিক চিত্রের প্রতিফলন নিশ্চিত করা। ইস্যুকারীর আর্থিক অবস্থা সংক্রান্ত তথ্য নিরীক্ষক কর্তৃক নিরীক্ষিত আর্থিক বিবরণী এবং নিরীক্ষকের প্রতিবেদন প্রতিফলিত হয়। ’

জমাকৃত কাগজপত্র এবং তথ্যের ভিত্তিতে অফার ডকুমেন্ট এ পর্যাপ্ত ডিসক্লোজার এর মাধ্যমে ইস্যু ও ইস্যুয়ার এর সার্বিক চিত্র প্রতিফলিত হয়েছে কি না তা যাচাই এর বিস্তারিত পদ্ধতি কমিশনের পাবলিক ইস্যু রুলস এবং ইস্যু সংক্রান্ত অন্যান্য আদেশ/নির্দেশে বর্ণিত আছে।

সংশ্লিষ্ট বিধিমালা অনুযায়ী ইস্যু সংক্রান্ত প্রত্যেকটি আবেদন যাচাই বাছাই করা হয় নির্দিষ্ট চেকলিস্ট এর ভিত্তিতে। যদি পর্যাপ্ত কাগজ এবং তথ্য সরবরাহ বা সন্নিবেশিত করা না হয় অথবার সন্নিবেশিত তথ্যে কোনোরূপ অসংগতি থাকে, তাহলে কমিশন ইস্যুয়ার এবং ইস্যু ব্যবস্থাপককে আরো কাগজ/তথ্য সরবরাহের জন্য লিখিতভাবে ডিফিসিয়েন্সি পত্রের মাধ্যমে জানিয়ে থাকে এবং কেবলমাত্র প্রয়োজনীয় কাগজাদি জমাদান এবং অফার ডকুমেন্ট এ পর্যাপ্ত তথ্য সন্নিবেশন এর পরেই কোনো ইস্যু অনুমোদিত হয়। এর ব্যত্যয় হলে কমিশন ইস্যু বাতিল করে।

শেয়ারবাজার/সা/অ

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top