আজ: শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১ইং, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৬ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৫, রবিবার |


kidarkar

অবশেষে বীমায় ৭২ ঘন্টার প্রশিক্ষণ নিশ্চিত হচ্ছে

biaশেয়ারবাজার রিপোর্ট : বীমা পলিসি বিক্রয়ে আগ্রহী প্রার্থীদের এজেন্ট লাইসেন্স প্রাপ্তির ক্ষেত্রে বিধি অনুযায়ী ৭২ ঘন্টার প্রশিক্ষণ নেয়ার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। ২০১২ সালে এ বাধ্যবাধকতা আরোপ করা হয়। তবে দেরিতে হলেও এর জন্য একটি পৃথক ইন্সটিটিউট খুলছে বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স এসোসিয়েশন (বিআইএ)।

প্রশিক্ষণ পরিচালনার জন্য ইংল্যান্ড ও মালয়েশিয়ান ইনস্টিটিউট অব ইন্স্যুরেন্স(এমআইআই) ও বিভিন্ন বিখ্যাত প্রতিষ্ঠান থেকে অ্যাসোসিয়েটশিপ অব চার্টার্ড ইন্স্যুরেন্স ইনস্টিটিউট (এসিআইআই)সহ বীমাখাতের পেশাদারি ডিগ্রিধারীদের নিয়ে অ্যাকাডেমিক কমিটি গঠন করা হয়েছে। ইনস্টিটিউটটির অনুমোদন চেয়ে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)’র কাছে আবেদন করা হয়েছে।

বিআইএ’র নিজস্ব ভবনে এ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চালানো হবে।

এ বিষয়ে বিআইএ’র সভাপতি শেখ কবির হোসেন শেয়ারবাজার নিউজ ডট কমকে বলেন, ‘বীমা এজেন্ট লাইসেন্স প্রদানের ক্ষেত্রে ৭২ ঘন্টা বাস্তব প্রশিক্ষণের কোন ব্যবস্থা ছিল না। এতে বীমা খাতে অদক্ষ জনবল বাড়ছিল। তাই বিআইএ বাস্তব প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করার জন্য পৃথক ইন্সটিটিউট খোলার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। এর ফলে আইন অনুযায়ী বীমা বিষয়ে ৭২ ঘন্টার বাস্তব প্রশিক্ষণ প্রদান সম্ভব হবে।’

এর আগে বীমাখাতে দক্ষ মানব সম্পদ তৈরী করতে বীমা আইন-২০১০ এ এজেন্ট ও ফাইন্যান্সিয়াল অ্যাসোসিয়েটদের ৭২ ঘন্টার বাস্তব প্রশিক্ষণ বাধ্যতামূলক করা হয়। কিন্তু প্রজ্ঞাপনটি ২০১২ সালে জারি হলেও দেশীয় কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এই ৭২ ঘন্টা প্রশিক্ষণ দেয়ার ব্যবস্থা ছিল না। তাছাড়া রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন একমাত্র বীমা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স একাডেমি এখনো ৭২ ঘন্টা প্রশিক্ষণের কোন ব্যবস্থা করেনি। তাই বীমা নিয়ন্ত্রক সংস্থা এই প্রশিক্ষণ ছাড়াই এজেন্ট লাইসেন্স প্রদান করে আসছিল। এতে বীমায় অদক্ষ জনবল বাড়ছিল।

প্রসঙ্গত, জাতীয় বীমা নীতি-২০১৪ তেও এ প্রশিক্ষণের ওপর বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়। এর ওপর ভিত্তি করে ২০১৪ সালের ৭ ডিসেম্বর বীমা শিল্পের কোম্পানিগুলোকে এজেন্টদের ৭২ ঘন্টার বাস্তব প্রশিক্ষণ দেয়ার নির্দেশ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইডিআরএ। কর্তৃপক্ষের অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান থেকে এ প্রশিক্ষণ নিতে হবে। কোম্পানির মূখ্য নির্বাহীকে এ প্রশিক্ষণ বিষয়ে নিশ্চিত করতে হবে। প্রশিক্ষণ না নিলে কোন ব্যক্তিকে বীমা এজেন্ট লাইসেন্স দেয়া হবে না বলেও এ প্রজ্ঞাপনে জাননো হয়। প্রজ্ঞাপনে বাধ্যতামূলক প্রশিক্ষণ ১ জানুয়ারি থেকে কার্যকর হবে বলেও জানানো হয়। কিন্তু ৭২ ঘন্টা প্রশিক্ষণ দেয়ার জন্য কোন ব্যবস্থা না থাকায় পরবর্তীতে এ সময় ২ মাস বাড়িয়ে ১ মার্চ পর্যন্ত বাড়ানো হয়।

 

শেয়ারবাজার/তু/অ

 

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.