আজ: সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১ইং, ৬ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৫ই রমজান, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৩ ডিসেম্বর ২০১৫, রবিবার |

মার্জিনধারীদের তালিকা চেয়েছে বাটা সু

bata shoesশেয়ারবাজার ডেস্ক: ব্রোকারেজ হাউজগুলোর কাছে মার্জিন ঋণধারীদের তালিকা চেয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ট্যানারি খাতের কোম্পানি বাটা সু লিমিটেড। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র মতে, বাটা সু ব্রোকারেজ হাউজগুলোর কাছে মার্জিন ঋণধারীদের নাম, বিও হিসাবের তথ্য, ইটিএন এবং শেয়ারহোল্ডিং পজিশন নম্বর চেয়েছে। এছাড়া সংশ্লিষ্ট ব্রোকারেজ হাউজগুলোকে লভ্যাংশ পাওয়ার জন্য ১৪ ডিসেম্বর মধ্যে বেনিফিসিয়ারি নাম (ডিপি) ব্যাংক হিসাবের নাম, নম্বর ও রাউটিং নম্বর জমা দিতে অনুরোধ করেছে কোম্পানিটি।

আর ডিভিডেন্ড পাওয়ার জন্য এসব তথ্য ইমেল ([email protected]), ফ্যাক্স (9810511) অথবা কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে পাঠানো যাবে। তবে ১৫ ডিসেম্বরের পর আর কোনো তথ্য গ্রহণ করা হবে না বলে কোম্পানির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

জানা যায়, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৫ সমাপ্ত তৃতীয় প্রান্তিক অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য অন্তর্বর্তীকালীন ২১৫ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড অনুমোদন করেছে বাটা সু। আর ঘোষিত ডিভিডেন্ড সংক্রান্ত রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪ ডিসেম্বর।

তৃতীয় প্রান্তিকে বাটা সুর শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪২.৬৩ টাকা, শেয়ার প্রতি কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ১৫.৫৮ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ২১৯.৫১ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৩৯.৭২ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিল ১৫.৭০ টাকা এবং ৩১ ডিসেম্বর ২০১৪ সমাপ্ত অর্থবছরে এনএভিপিএস ছিল ১৯৩.৯৫ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস বেড়েছে ২.৯১ টাকা।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫৪৩তম কমিশন সভায় মার্জিন ঋণধারীদের লভ্যাংশ সরাসরি তাদের অ্যাকাউন্টে না পাঠানোর নির্দেশনা জারি করা হয়।

নির্দেশনায় বলা হয়, ব্রোকারহাউজ থেকে ঋণ নিয়ে (মার্জিন) শেয়ার কিনেছেন এমন বিনিয়োগকারীরা সরাসরি তালিকাভুক্ত কোম্পানি বা মিউচ্যুয়াল ফান্ড ঘোষিত লভ্যাংশ পাবেন না। এ লভ্যাংশ জমা হবে ঋণদাতা প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাবে।

 

 

শেয়ারবাজারনিউজ/অ

 

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.