আজ: মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ইং, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে সফর, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৩ মে ২০১৬, মঙ্গলবার |



kidarkar

চড় খেলেন রেকিট বেনকিজার কর্মকর্তা

reckittশেয়ারবাজার ডেস্ক: পণ্যের ত্রুটির কারণে ক্ষমা চাইতে গিয়ে চড় খেলেন ব্রিটিশ ভোগ্যপণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান রেকিট বেনকিজারের একজন কর্মকর্তা। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ কোরিয়ায়।

রয়টার্স জানিয়েছে, আর্দ্রতা শোষক যন্ত্র (হিউমিডিফায়ার স্টেরিলাইজার) ব্যবহার করে ফুসফুসের রোগে আক্রান্ত হয়ে ৯২ জনের মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষমা চাইতে গতকাল সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে রেকিট বেনকিজার। এতে কোম্পানিটির কোরিয়া ও জাপানের প্রধান আতা সাফদারকে চড় মারেন একজন দর্শক।

সিউলের একটি হোটেলে গতকাল সংবাদ সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয়। কোরিয়ায় রেকিট বেনকিজারের কোরিয়া শাখাসহ আরও কয়েকটি কোম্পানি হিউমিডিফায়ার স্টেরিলাইজার তৈরি করত। এতে ব্যবহার করা ক্ষতিকর রাসায়নিকের কারণে মানুষ ফুসফুসের রোগে আক্রান্ত হচ্ছে—এ সন্দেহ থেকে কোরীয় সরকার ২০১১ সালে যন্ত্রটি নিষিদ্ধ করে। কোরিয়ার দাবি, হিউমিডিফায়ার স্টেরিলাইজার ব্যবহার করার কারণে ফুসফুসের রোগে ৫৩০ জন ক্ষতিগ্রস্ত নিবন্ধন করেছে। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে।

পাঁচ বছর ধরে এ নিয়ে বিতর্ক চললেও রেকিট বেনকিজার এর আগে কখনো দায় স্বীকার করেনি। গতকালের সংবাদ সম্মেলনের বক্তব্য দিচ্ছিলেন আতা সাফদার। এতে দর্শক সারিতে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তি ও তাঁদের স্বজনেরা উপস্থিত ছিলেন।
আতা সাফদার বলেন, ‘আজকের ক্ষমা চাওয়ার মাধ্যমে আমরা ওই ঘটনার দায় স্বীকার করে নিলাম। পাঁচ বছর পেরিয়ে গেছে। আমরা অনেক দেরি করে ফেলেছি।’

বক্তব্যের একপর্যায়ে মঞ্চে উঠে আতা সাফদারের ঘাড়ের পেছনে চড় মারেন একজন দর্শক। চড় খাওয়ার পর আতা সাফদার বলেন, ‘আমি আবার ক্ষমা চাইছি। আমি আপনাদের অনুরোধ করছি আমার বক্তব্য শেষ করতে দিন।’

সাফদার জানান, কোরীয় সরকারের দাবি অনুযায়ী রেকিট বেনকিজারের পণ্যটি ব্যবহার করে ১৭৮ জন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এদের ক্ষতিপূরণের জন্য একটি প্যানেল গঠনের ঘোষণাও দেন তিনি। ইতিমধ্যে কোম্পানিটি প্রায় ৮৮ লাখ ডলারের একটি মানবিক তহবিলও গঠন করেছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.