আজ: শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ইং, ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৪ মে ২০১৬, বুধবার |



kidarkar

মুনাফা তুলে নেয়ার প্রবণতায় সূচকে ফের নেতিবাচক প্রভাব

ba22

শেয়ারবাজার রিপোর্ট : মুনাফা তুলে নেয়ার প্রবণতার কারণে আজ পুঁজিবাজারে সেল প্রেশার রয়েছে। আর এ কারণে একদিনের ব্যবধানে ফের সূচকের পতন ঘটেছে বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

এ প্রসঙ্গে একাধিক মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারেজ হাউজের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, পুঁজিবাজারে টানা পতনের কারণে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে পুঁজি হারানোর হতাশা রয়েছে। গতকাল সূচক ১০০ পয়েন্ট বাড়ার পাশাপাশি অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার দর বেড়েছে। এতে পুঁজি হারানো বিনিয়োগকারীদের মধ্যে মুনাফা তুলে নেয়ার প্রবণতা দেখা দেয়। তাই বাজারে সেল প্রেশার বেড়ে যায়। পরিণতিতে সূচকের পতন ঘটেছে।

এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে ডিএসই’র একজন পরিচালক বলেন, পুঁজিবাজার নীতি-নির্ধারকদের প্রতি বিনিয়োগকারীদের আস্থা কমে গিয়েছে। তাই কেউ দীর্ঘ মেয়াদে বিনিয়োগ করছেন না। যে কারণে একদিন শেয়ার দর বাড়লে পরের দিন মুনাফা তুলে নেয়ার প্রবণতা দেখা দিয়েছে। তাই বাজারকে স্থিতিশীল করতে হলে বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফেরাতে হবে। আর আস্থা ফিরলেই বাজারে দীর্ঘ মেয়াদি বিনিয়োগ আসবে।

সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের নিন্মমুখী প্রবণতায় শেষ হয় লেনদেন। এদিন শুরুতে উত্থান থাকলেও ২০ মিনিট পর পরতে থাকে সূচক দু একবার ঘুড়ে দাড়ানো চেষ্টা করলেও শেষ দিকে ব্যহত হয় বাজার। বুধবার সূচকের পাশাপাশি কমেছে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার দর। আর টাকার অংকে আগের দিনের তুলনায় লেনদেন কিছুটা কমেছে।

বুধবার দিনশেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ১৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪২৫৮ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১০৪২ পয়েন্টে এবং ডিএসই–৩০ সূচক ২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৬৪১ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩১৮ কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৯৪টির, কমেছে ১৯৮ টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৬ টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৪০০ কোটি ৭৬ লাখ ৫৫ হাজার টাকা।

এর আগে মঙ্গলবার ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স ১০০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৪২৭২ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১০৪৪ পয়েন্টে এবং ডিএসই–৩০ সূচক ৪৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১৬৪৪ পয়েন্টে। ওই দিন লেনদেন হয়েছিল ৪০৫ কোটি ৮৫ লাখ টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ৫ কোটি ৮ লাখ ৪৫ হাজার টাকা।

এদিকে দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ সূচক ১২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৭৯৬৯ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৩৫টি কোম্পানির ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৬৯টির, কমেছে ১৩৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৭টির। আজ সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৫ কোটি ১৭ লাখ ৮৯ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.