ক্যান্সার রোগের চিকিৎসা প্যারাসিটামলে কাজ করে না

Mizan.sharebazarnewsবাজারের এই ক্রান্তিলগ্নে বিএসইসির দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেয়া উচিত। মনে রাখতে হবে ইস্যুয়ার কোম্পানিগুলো সবসময় বিএসইসির উপর নির্ভরশীল। আমরা এর বিপরীত চিত্র দেখতে চাই না। ২০১১ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত তালিকাভুক্ত বেশিরভাগ কোম্পানি ইস্যু ম্যানেজারের সহায়তায় অনৈতিকভাবে বাজার থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা উত্তোলন করেছে। যার বেশিরভাগ বর্তমানে ইস্যুমূল্যের নিচে অবস্থান করছে। এ সমস্ত কোম্পানিকে আইনের আওতায় এনে বিএসইসির ব্যবস্থা নেয়া একান্ত অপরিহার্য।
বাজারের এই ক্রান্তিকালে আমরা নিয়ন্ত্রক সংস্থার কোনো প্রকার লক্ষ্য স্থির করা ও কর্মসূচী তৈরির উল্লেখযোগ্য কোনো পদক্ষেপ দেখতে পাচ্ছি না। বিএসইসির মনে রাখা উচিত, ক্যান্সার রোগের ঔষধ কখনো প্যারাসিটামলে সারে না। ক্যান্সার রোগের জন্য ক্যান্সারের ওষুধ একান্ত দরকার। নিয়ন্ত্রক সংস্থা তার দায়দায়িত্ব তার নীতি নৈতিকতা থেকে সাহসের সাথে উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। ২০১১ সাল থেকে বর্তমান প্রেক্ষাপট পর্যন্ত যে সমস্ত কোম্পানির আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়েছে এর মধ্যে যেগুলোর শেয়ার দর ইস্যু মূল্যের নিচে অবস্থান করছে তাদের ইস্যু ম্যানেজারদের লাইসেন্স বাতিলসহ আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। সাথে সাথে রিজেন্ট টেক্সটাইলের ইস্যু ম্যানেজার লঙ্কাবাংলা ফাইন্যান্সকে অনৈতিকভাবে পুঁজিবাজার থেকে প্রতি শেয়ারে ২৫ টাকা করে উত্তোলনের কারণে এখনই আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। এবং লঙ্কাবাংলার লাইসেন্স বাতিল করার জন্য জোর দাবি জানাচ্ছি।

 

এ.কে.এম. মিজান-উর-রশিদ চৌধুরী

সভাপতি

বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদ

আপনার মন্তব্য

*

*

Top