বিএসআরএমের রিফান্ড বিতরণ ৮ মার্চ

BSRMশেয়ারবাজার রিপোর্ট:  প্রাথমিক গণ প্রস্তাব (আইপিও) লটারির ড্র প্রক্রিয়া  সম্পন্ন করা বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেডের (বিএসআরএম) অ্যালটমেন্ট লেটার বা বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ আগামী ৮ মার্চ রোববার শুরু হবে । কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র মতে, বিএসআরএমের রিফান্ড ওয়ারেন্ট ৮ মার্চ থেকে শুরু হয়ে ১২ মার্চ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বিতরণ করা হবে। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ব্যাংক রশিদের বিনিময়ে বরাদ্দপত্র এবং রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ চলবে। ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থা ও এজিবি কলোনি কমিউনিটি সেন্টার থেকে বরাদ্দপত্র এবং রিফান্ড ওয়ারেন্ট সংগ্রহ করতে পারবেন আবেদনকারীরা।

জানা গেছে, ৮ মার্চ রোববার ‘এজিবি কলোনি কমিউনিটি সেন্টারে’ ব্যাংক এশিয়া লিমিটেডের অনুমোদিত সকল শাখা সমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে।

৯ মার্চ সোমবার ঢাকা ‘জেলা ক্রীয়া সংস্থায়’ ঢাকা ব্যাংক এবং ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেডের অনুমোদিত সকল শাখা সমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে। একই দিনে ‘এজিবি কলোনি কমিউনিটি সেন্টারে’ দি সিটি ব্যাংক এবং ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেডের অনুমোদিত শাখা সমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে।

১০ মার্চ, মঙ্গলবার ‘ঢাকা জেলা ক্রীয়া সংস্থায়’ মার্কেন্টাইল ব্যাংক এবং এনসিসি ব্যাংক লিমিটেডের অনুমোদিত সকলশাখা সমূহের বরাদ্দপএ ও ওয়ারেন্ট রিফান্ড বিতরণ করা হবে। এছাড়াও ‘এজিবি কলোনি কমিউনিটি সেন্টারে’ যমুনা ব্যাংক, ইস্টার্ণ ব্যাংক এবং ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ লিমিটেডের অনুমোদিত শাখা সমূহের বরাদ্দপএ ও ওয়ারেন্ট রিফান্ড বিতরণ করা হবে।

১১ মার্চ,বুধবার ‘ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থায়’ ওয়ান ব্যাংক লিমিটেডের অনুমদিত সকল শাখা সমূহের বরাদ্দপএ ও ওয়ারেন্ট রিফান্ড বিতরণ করা হবে। এছাড়া ‘এজিবি কলোনি কমিউনিটি সেন্টারে’ মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডের অনুমোদিত সকল শাখা সমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে।

১২ মার্চ, বৃহস্পতিবার ‘ঢাকা জেলা ক্রীয়া সংস্থায়’ অনিবাসী বাংলাদেশী (এনআরবি) ।নুমোদিত সকল মিউচ্যুয়াল ফান্ড ও পোর্টফলিও ও পোর্টফলিও হিসাবসমূহের বরাদ্দপএ ও ওয়ারেন্ট রিফান্ড বিতরণ করা হবে। এছাড়াও ‘এজিবি কলোনী কমিউনিটি সেন্টারে’ সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক, ট্রাস্ট ব্যাংক এবং ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের অনুমোদিত সকল শাখা সমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে।

উল্লেখ্য, যারা নির্ধারিত তারিখের মধ্যে রিফান্ড ওয়ারেন্ট সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হবে, তাদের নিজ ঠিকানায় তাদের ঝুঁকিতে কুরিয়ারের মাধ্যমে পাঠানো হবে। তবে যেসব বিনিয়োগকারী এবি ব্যাংক লিমিটেড, আল-আরফা ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, আল-ফালাহ ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড, ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড, কমার্শিয়াল ব্যাংক অব সিলন পিএলসি, ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড, ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড, ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড, এক্সিম ব্যাংক লিমিটেড, ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড,হাবিব ব্যাংক, এইচএসবিসি ব্যাংক, আইএফআইসি ব্যাংক, ইসলামি ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড, মিডল্যান্ড ব্যাংক, যমুনা ব্যাংক লিমিটেড, মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেড, মিউচুয়্যাল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড, ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড, ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান, এনসিসি ব্যাংক লিমিটেড, ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড, প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড, প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড, শাহাজালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স ব্যাংক (এসবিএসি)লিমিটেড, সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড, স্ট্যান্ডার্ড চার্টাড ব্যাংক, স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া, দি সিটি ব্যাংক ট্রাস্ট ব্যাংক এবং ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডে যাদের অ্যাকাউন্ট আছে তাদের নিজ নিজ অ্যাকাউন্টে রিফান্ড জমা হয়ে যাবে। তবে প্রবাসী বিনিয়োগকারীরা এ সুযোগ পাবে না।

 

শেয়ারবাজার/মু/অ

আপনার মন্তব্য

Top