এক্সপোজার অনুমোদন প্রসঙ্গ উঠছে কমিশনে

BSECশেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত দশটি বানিজ্যিক ব্যাংকের এক্সপোজার অনুমোদনের পর মূলধন বাড়ানোর প্রসঙ্গ পরবর্তী কমিশন সভায় উঠতে যাচ্ছে।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) সূত্রে জানা যায়, তালিকাভুক্ত বানিজ্যিক ব্যাংকগুলোর মধ্যে সমন্বয়ের পর সাবসিডিয়ারি কোম্পানির মূলধন বাড়ানোর জন্য আবেদন করেছে। মূলধন বাড়ানোর অনুমোদন সাপেক্ষে পরবর্তী কার্যক্রম শুরু করবে ব্যাংকগুলো।

কমিশন সূত্রে জানা যায়, এখন পর্যন্ত ১০টি ব্যাংক তাদের সাবসিডিয়ারি কোম্পানির মূলধন বাড়ানোর জন্য আবেদন করেছে। ব্যাংকগুলো হচ্ছে- এবি ব্যাংক, শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামি ব্যাংক, ন্যাশনাল ব্যাংক, পূবালী ব্যাংক, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক, দি সিটি ব্যাংক, ওয়ান ব্যাংক, মার্কেন্টাইল ব্যাংক ও মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক।

২০১৩ সালে ব্যাংক কোম্পানি আইন সংশোধনের পর বানিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ মোট সঞ্চিতির ২৫ শতাংশের মধ্যে নামিয়ে আনতে হয়। যা বাস্তবায়নের সময় শেষ হয় চলতি বছরের জুনে। বাজার পরিস্থিতি প্রতিকূল থাকার ফলে ১৩টি ব্যাংক নির্দিষ্ট এ সময়ের মধ্যে আইন পরিপালন করতে পারেনি। আইনের এ সংশোধনের ফলে পুঁজিবাজারে স্মরণকালের সবচেয়ে বড় ধ্বস নেমে আসে বলে অভিযোগ রয়েছে অধিকাংশ বিনিয়োগকারী ও সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর। ফলে পুঁজিবাজারের স্বার্থে কেন্দ্রিয় ব্যাংক আইন প্রতিপালনের জন্য ব্যাংকগুলোর জন্য নমনীয়তা দেখিয়ে নীতি সহায়তার সুযোগ দেয় কেন্দ্রিয় ব্যাংক।

নতুন এ নীতিমালা অনুযায়ী, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে এক্সপোজার সমন্বয়ে করতে না ব্যর্থ হওয়া ব্যাংকগুলোকে মূলধন বাড়িয়ে এক্সপোজার সমন্বয়ের সুযোগ দেওয়া হয়েছে। এ সুযোগের অংশ হিসেবে ১০টি বানিজ্যিক ব্যাংক বাড়ানোর আবেদন করে। এই আবেদনগুলো যাচাই-বাছাই করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত পরবর্তি কমিশন সভায় নেওয়া হতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। উল্লেখ্য, আগামী ২০ জুলাই পরবর্তি কমিশন সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার সময় নির্ধারন করা হয়েছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/ওহ/আ

আপনার মন্তব্য

Top