শেষ দিনে মুনাফা তুলে নেওয়ার প্রবণতা

bazarশেয়ারবাজার রিপোর্ট: সপ্তাহের শেষ দিনে মুনাফা তুলে নেয়ার প্রবণতার কারণে আজ পুঁজিবাজারে সেল প্রেশার রয়েছে। আর এ কারণে তিনদিন পর ফের সূচকের পতন ঘটেছে বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

এ প্রসঙ্গে একাধিক মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারেজ হাউজের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, পুঁজিবাজারে টানা পতনের কারণে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে পুঁজি হারানোর হতাশা রয়েছে। গত তিন কার্যদিবস সূচক বেড়েছে, পাশাপাশি অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার দর বেড়েছে। এতে পুঁজি হারানো বিনিয়োগকারীদের মধ্যে মুনাফা তুলে নেয়ার প্রবণতা দেখা দেয়। তাই বাজারে সেল প্রেশার বেড়ে যায়। পরিণতিতে সূচকের পতন ঘটেছে।

এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে ডিএসই’র একজন পরিচালক বলেন, পুঁজিবাজার নীতি-নির্ধারকদের প্রতি বিনিয়োগকারীদের আস্থা কমে গিয়েছে। তাই কেউ দীর্ঘ মেয়াদে বিনিয়োগ করছেন না। যে কারণে একদিন শেয়ার দর বাড়লে পরের দিন মুনাফা তুলে নেয়ার প্রবণতা দেখা দিয়েছে। তাই বাজারকে স্থিতিশীল করতে হলে বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফেরাতে হবে। আর আস্থা ফিরলেই বাজারে দীর্ঘ মেয়াদি বিনিয়োগ আসবে।

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় শেষ হয় লেনদেন। এদিন শুরু থেকে উত্থান থাকলেও ১০ মিনিট পর ধীরে ধীরে সূচক পরতে থাকে এবং শেষ দিকে একবার ঘুড়ে দাঁড়ানোর চেষ্টা করলেও ব্যার্থ হয় বাজার। বৃহস্পতিবার সূচকের পাশাপাশি কমেছে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে টাকার অংকে আগের দিনের তুলনায় লেনদেন বেড়েছে ১.৫৮ শতাংশ। আজ দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫১১ কোটি টাকা।

বৃহস্পতিবার দিনশেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ১০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪৫৮৫ পয়েন্টে। ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১১২১ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৭৬৫ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩২৬ কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ১১৮ টির, কমেছে ১৫৯ টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৯ টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৫১১ কোটি ৯০ লাখ ৪২ হাজার টাকা।

এর আগে বুধবার ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স ৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৪৫৯৫ পয়েন্টে। ডিএসই শরিয়াহ সূচক ০.৭৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১১২২ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১৭৭১ পয়েন্টে। ওই দিন লেনদেন হয়েছিল ৫০৩ কোটি ৯৪ লাখ ০২ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৭ কোটি ৯৬ লাখ ৪০ হাজার।

এদিকে দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ সূচক ৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৮৫৯২ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৫৩ টি কোম্পানির ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১১০ টির, কমেছে ১১০ টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩ টির। আজ সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৭ কোটি ৯৭ লাখ ২৬ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

Top