কিসের ইঙ্গিত দিচ্ছে ন্যাশনাল টিউবস

Editorialপুঁজিবাজারে গত কয়েক দিনের আলোচিত শেয়ারের নাম ন্যাশনাল টিউবস। এই শেয়ারটি নিয়ে আলোচনার অন্যতম কারন ছিল সৌদি আরবের আল জামিল গ্রুপের একটি প্রতিনিধি দল এই কোম্পানিটির কারখানা পরিদর্শন করেছেন। আর চায়নার সিনোস্টিল মেটালস রিসোর্স কোম্পানির প্রতিনিধি দল স্টিল ফ্যাক্টরি পরিদর্শনের সম্ভবনা রয়েছে। বলা হচ্ছে, উল্লেখিত দুই বিদেশি কোম্পানি বাংলাদেশে বিনিয়োগ করবে। আর যেহেতু সৌদি কোম্পানিটি ন্যাশনাল টিউবস কোম্পানিটি পরিদর্শন করেছে এবং চীনা কোম্পানিটি পরিদর্শনে  আসার প্রক্রিয়ায় রয়েছে তাই বলা যায় ন্যাশনাল টিউবস কোম্পানির ভবিষ্যত উজ্জ্বল। এমন ধারণায় পুঁজিবাজারে এ কোম্পানির শেয়ার দর যেন ষাড়ের রূপ ধরেছে।

এই ধরণের খবর যখনি শুনি তখনই অতিতের রুপালী ব্যাংক এবং ওয়েস্টার্ন মেরিনের দুটি ঘটনা মনে পড়ে। ২০০৭-০৮ সালে রুপালী ব্যাংক নিয়ে বেশ মাতামাতি হয়েছিল। সৌদি যুবরাজ নাকি এই ব্যাংকটি কিনে নিচ্ছে এমন খবর বাজারে ছড়ানো হয়েছিল । আর এই নিউজ কে কেন্দ্র করে শেয়ারটি লাগামহীন ভাবে দাম বেড়েছিল। কিন্তু দুঃখের বিষয় আজও সেই সৌদি যুবরাজ ব্যাংকটি কিনতে আসলো না।

ওয়েস্টার্ন মেরিন কোম্পানির শেয়ারটির দাম যখন ৫০ থেকে ৬০ টাকা তখন কোম্পানি নিজেই একের পর এক (foreign delegates) বিদেশী প্রতিনিধি দল তাদের কারখানাটি পরিদর্শনের করছে, এই মর্মে ছবি সহ বিভিন্ন পত্রিকায় নিউজ প্রকাশ করছিল। আজ শেয়ারটি দর ২৩ টাকা। এখন আর বিদেশী প্রতিনিধি দল কারখানা পরিদর্শন করছে এই মর্মে কোন নিউজ দেখা যাচ্ছে না। কোম্পানিটি ২০১৪ সালে তালিকাভুক্তির পর ৫ শতাংশ ক্যাশ এবং ১০ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড দিয়েছিল। এর পর আর কোম্পানিটির ডিভিডেন্ডের দেখা নেই। জুন ক্লোজিং ওয়েস্টার্ন মেরিনের দুই বছরের ডিভিডেন্ড পাওনা হয়ে গেছে।

এবার আসি ন্যাশনাল টিউবস প্রসঙ্গে।  বর্তমানে শেয়ারটির আয় তৃতীয় প্রান্তিক শেষে প্রায় ঋণাত্মক (-২) টাকা। গত ২০ জুলাই অর্থাৎ মাত্র ১ মাস আগেও এই শেয়ারটির দাম ছিল ৮১.৬০ টাকা। তারপর থেকে বাড়তে শুরু করে এর শেয়ার দর। ১৪ আগস্ট থেকে ২৪ আগস্ট পর্যন্ত একটানা এর দর বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫২ টাকা। শুধুমাত্র সৌদির জামিল গ্রুপের পরিদর্শনের খবরে এতোটা উত্থান।

বিয়ে না হতেই সন্তান কামনা কতটা যৌক্তিক এটা সহজেই অনুমেয়। ঐ বিদেশি কোম্পানি আদৌ ন্যাশনাল টিউবসে বিনিয়োগ করবে কিনা এ বিষয়ে কোনো নিশ্চয়তা পাওয়া যায়নি। তাই সবসময় সতর্কতার সঙ্গে বিনিয়োগে অগ্রসর হলে ক্ষতির চেয়ে লাভের সম্ভাবনা বেশি থাকে। এ কারণেই মুরুব্বিদের কাছ থেকে শোনা যায় ‘সাবধানের মাইর নাই’।

আপনার মন্তব্য

One Comment;

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top