আজ: শনিবার, ১২ জুন ২০২১ইং, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১লা জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৮ মার্চ ২০১৫, বুধবার |


kidarkar

শ্রীলঙ্কাকে কাঁদিয়ে সেমিফাইনালে দঃ আফ্রিকা

CRICKET-ZIM-AUSশেয়ারবাজার ডেস্ক: একদাশতম বিশ্বকাপ আসরে শ্রীলঙ্কাকে ৯ উইকেটে হারিয়ে প্রথম দল হিসেবে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। আর কুমার সাঙ্গাকারার শেষ বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার এমন বিদায় মেনে নিতে পারছে না লঙ্কান ভক্তরা। টানা চার ম্যাচে শতক হাকিয়ে এ পর্যন্ত টেনে নিয়ে আসছিলেন তিনি। আজও তার ব্যাট হেসেছে। কিন্তু তাকে কেউ যোগ্য সঙ্গ না দিতে পারায় মাত্র ১৩৩ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। হাশিম আমলার উইকেটটি হারিয়ে মাত্র ১৮ ওভার খেলে এই মামলি লক্ষ্য মাত্রায় পৌঁছে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। আর তাতেই ছিটকে পড়লো ১৯৯৬ সালের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন লঙ্কানরা।

শ্রীলঙ্কার দেওয়া ১৩৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নামে দ. আফ্রিকা। প্রোটিয়াদের হয়ে ব্যাটিং সূচনা করতে আসেন হাশিম আমলা এবং কুইন্টন ডি কক। দুই আফ্রিকান ওপেনার লঙ্কান বোলারদের সহজভাবেই সামলে নিয়ে খেলেন। দু’জনে মিলে ৪০ রানের জুটি গড়েন। ছোট টার্গেট তাড়া করতে নেমে প্রোটিয়া ওপেনার হাশিম আমলা সাজঘরে ফেরেন দলীয় ৪০ রানের মাথায়। ইনিংসের সপ্তম ওভারের চতুর্থ বলে কুলাসেকারার তালুবন্দি হন আমলা। মালিঙ্গার শিকারে সাজঘরে ফেরার আগে তিনি ২৩ বলে ১৬ রান করেন। এরপর আর উইকেটের পতন ঘটতে দেয়নি প্রোটিয়ারা।

ডি কক এবং তিন নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামা ফাফ ডু প্লেসিস দু’জনে মিলে ৯৪ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান।

এর আগে টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রোটিয়াদের বোলিং তোপে পড়ে ৩৭.২ ওভার খেলে মাত্র ১৩৩ রানেই গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৫ রান আসে কুমার সাঙ্গাকারার ব্যাট থেকে। এছাড়া থিরিমান্নে ৪১ ও ম্যাথুজ ১৯ রান করেন। লঙ্কানদের ব্যাটিং ব্যর্থতার দিনে আর কোনো ব্যাটসম্যান দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছাতে পারেন নি।

প্রোটিয়াদের হয়ে ইমরান তাহির ৪টি আর জেপি ডুমিনি হ্যাটট্রিক করে ৩টি উইকেট দখল করেন।

শেয়ারবাজার/অ

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.