চলছে লাফার্জের নানা নাটকীয়তা: বছরে ১৪৬ শতাংশ দর বৃদ্ধি

lafajশেয়ারবাজার রিপোর্ট : পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত সিমেন্ট খাতের ‘জেড’ ক্যাটাগরির লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট গত বছর থেকে বিভিন্ন মূল্য সংবেদনশীল তথ্য প্রকাশ করে আসছে। এতে এ কোম্পানির শেয়ার দরে ব্যাপক পরিবর্তন হচ্ছে। হোলসিম-লাফার্জ একীভূতকরণের ইতিবাচক খবরে একদিকে এ কোম্পানির শেয়ার দর আকাশচুম্বী হয়েছে। আবার একীভূতকরণের নেতিবাচক খবর প্রচারে এর শেয়ার দর কমেছে। অন্যদিকে ডিভিডেন্ড সংক্রান্ত মূল্য সংবেদনশীল তথ্যে এর শেয়ার দর বাড়িয়েছে কয়েকগুন।

ঝুঁকিপূর্ণ হওয়া সত্ত্বেও এসব নাটকীয়তায় গত এক বছরে লাফার্জের শেয়ার দর ১৪৬ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে।

এদিকে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল ও রয়টার্সের সূত্রে জানা যায়, সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে একীভূত হওয়ার সিদ্ধান্তে ঐক্যেমতে পৌছেছে সুইজারল্যান্ডের সিমেন্ট কোম্পানি হোলসিম ও ফরাসী সিমেন্ট কোম্পানি লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট। শুক্রবার এই দুই কোম্পানি এক যৌথ বিবৃতিতে জানায় যে তাদের একীভূত হওয়াতে আর কোনো বাধা নেই।

অথচ ১৫ মার্চ এ দুই কোম্পানির একীভূতকরণে নানা বাধা রয়েছে বলে একই সংবাদপত্রে খবর প্রচার করা হয়। যার নেতিবাচক প্রভাব পড়ে কোম্পানির শেয়ার দরে। আবার ১৮ মার্চ দেশের শেয়ারবাজারে লাফার্জ সুরমা একীভূতকরণের বিষয়ে ইতিবাচক খবর প্রচার করায় এর শেয়ার দরে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা বিরাজ করে। এখন এ দুই কোম্পানির একীভূতকরণ হচ্ছে বলে প্রচার করা হচ্ছে। যার প্রভাব রোববার থেকে এর শেয়ার দরে পড়তে পারে বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ৬ এপ্রিল লাফার্জ সুরমা একীভূতকরণের খবর প্রচার করে। এসময়ে এ কোম্পানির শেয়ার দর ছিল ৪৬.৫০ টাকা। সেখান থেকে বাড়তে বাড়তে এ কোম্পানির শেয়ার দর ১৪২ টাকা পর্যন্ত উঠে যায়। এ সময়ের মধ্যে এ কোম্পানির ডিভিডেন্ড আগাম খবর প্রচার ছিল চোখে পড়ার মতো।

কোম্পানিটি শেয়ারবাজারে নানা খবর প্রচার করে এর শেয়ার দরে ব্যাপক প্রভাব ফেলেছে। অথচ এ ব্যাপারে নিরব দর্শকের ভূমিকায় রয়েছে শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

এদিকে পুঁজিবাজার কেলেঙ্কারি ২০১০-১১ খন্দকার ইব্রাহীম খালেদের রিপোর্টে চিটাগাং ভেজিটেবলের (সিভিও পেট্রো) মতো অন্যান্য কোম্পানি একইভাবে শেয়ার দরে প্রভাব ফেলে কারসাজি করানো হয়েছে বলে উল্লেখ্ করা হয়েছে।

শেয়ারবাজার/সা/মু

আপনার মন্তব্য

Top