মূলধন বাড়ানোর অনুমোদন দিলেও সামিটের লেনদেন চালুর নির্দেশ দেয়নি বিএসইসি

summit-power-limited_সামিটশেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে জ্বালানি খাতের কোম্পানি সামিট পাওয়ার লিমিটেড মূলধন বাড়ানোর অনুমোদন দিয়েছে বিএসইসি। তবে স্টক এক্সচেঞ্জে সামিটের লেনদেন চালুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেয়নি কমিশন।

আজ বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫৮৪তম সভায় এই অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। বিএসইসি’র মূখপাত্র সাইফুর রহমান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানিয়েছে কমিশন।

এর আগে গত ২৮ আগস্ট কোম্পানির মূলধন বাড়ানোর জন্য বিএসইসিতে আবেদন করে। সামিট পাওয়ার অভিহিত মূল্য ১০ টাকা দরে ১৯ কোটি ১৮ লাখ ৭৬ হাজার ৫১৮টি শেয়ার ইস্যু করে ১৯১ কোটি ৮৭ লাখ ৬৫ হাজার ১৮০ টাকা মূলধন বাড়াতে চায়। ওই আবেদনের অনুমোদন দিল বিএসইসি।

উল্লেখ্য, সামিট পাওয়ারের সঙ্গে এ গ্রুপের ৩ কোম্পানি একীভূতকরণ ইস্যুকে কেন্দ্র করে সৃষ্টি হওয়া জটিলতায় বিএসইসি’র নির্দেশে উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে বন্ধ আছে কোম্পানির লেনদেন।

জানা গেছে, ১৯৯৪ সালের কোম্পানি আইনের ২২৮ ও ২২৯ ধারা অনুসারে উচ্চ আদালতে ৩ কোম্পানিকে সামিট পাওয়ারের সঙ্গে একীভূতকরণের অনুমোদন চাওয়া হলে শর্তসাপেক্ষে গত ১৪ জুলাই সামিট গ্রুপের ৩ কোম্পানির একীভূতকরণের চূড়ান্ত অনুমতি দেন হাইকোর্টের বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমদের বেঞ্চ। এর আগে বিধি মোতাবেক বিশেষ সাধারণ সভায় (ইজিএম) শেয়ারহোল্ডার ও নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসিরও অনুমোদন নেয় কোম্পানি দুটি।

সামিট পূর্বাঞ্চলের একটি শেয়ারের বিপরীতে সামিট পাওয়ারের ১.৩০৯টি শেয়ার পাবেন শেয়ারহোল্ডাররা।সামিট উত্তরাঞ্চল পাওয়ার কোম্পানির একটি শেয়ারের বিপরীতে সামিট পাওয়ারের ১.৬৬৮টি এবং সামিট নারায়ণগঞ্জ পাওয়ারের একটি শেয়ারের বিপরীতে সামিট পাওয়ারের ১.৪৭৫টি শেয়ার দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (ইস্যু অব ক্যাপিটাল) আইন, ২০০১ এর ধারা ৬(এ) অনুযায়ী কোম্পানিটির ১৯ কোটি ১৮ লাখ ৭৬ হাজার ৫১৮টি শেয়ার লকইন থাকবে। এর মধ্যে পরিচালকদের হাতে থাকা শেয়ার এবং ৫ শতাংশ শেয়ারধারীদের শেয়ার ৩ বছরের জন্য লকইন থাকবে। অন্যান্য সাধারণ শেয়ারহোল্ডারদের শেয়ার এক বছরের জন্য লকইন থাকবে।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top