৬ কোম্পানি ও ৫ ফান্ডের আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ

Arthik Protibadon_আর্থিক প্রতিবেদনশেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৬টি কোম্পানি ও ৫টি মিউচ্যুয়াল ফান্ড তাদের অনিরীক্ষিত প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। প্রান্তিক প্রতিবেদন প্রকাশ করা কোম্পানিগুলো হল: লংকা বাংলা ফাইন্যান্স, বে-লিজিং, কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স, পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্স, সিঙ্গার বিডি এবং মিরাকল ইন্ডাষ্ট্রিজ। একই সাথে তৃতীয় প্রান্তিক প্রকাশ করা মিউচ্যুয়াল ফান্ড গুলো হল: এনসিসিবিএল ওয়ান, এমবিএল ফার্স্ট, এআইবিএল ফার্স্ট, গ্রীণ ডেল্টা মিউচ্যুয়াল ফান্ড এবং ডিবিএইচ ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড।

লংকা বাংলা ফাইন্যান্স: তৃতীয় প্রান্তিকের (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর’১৬) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে নন ব্যাংকিং আর্থিক খাতের প্রতিষ্ঠাণ লংকা বাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড। তৃতীয় প্রান্তিকে কোম্পানির শেয়ার প্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.২১ টাকা। যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৪৩ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.৭৮ টাকা।

আলোচিত সময়ে কোম্পানির শেয়ার প্রতি সমন্বিত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ২২.৫১ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ২২.৬৩ টাকা। এবং কোম্পানির শেয়ার প্রতি নিট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ১.৩৩ টাকা, যা আগের বছর ছিল ৪.৯২ টাকা।

এছাড়া শুধুমাত্র তৃতীয় প্রান্তিকে (জুলাই১৬ থেকে সেপ্টেম্বর১৬) কোম্পানির ইপিএস হয়েছে ০.৫০ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৭৬ টাকা। এ সময়ে ইপিএস কমেছে ০.২৬ টাকা বা ৫২ শতাংশ।

বে-লিজিং: তৃতীয় প্রান্তিকের (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর’১৬) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আর্থিক খাতের কোম্পানি বে-লিজিং অ্যান্ড ইনভেস্টেমেন্ট লিমিটেড। তৃতীয় প্রান্তিকে কোম্পানির শেয়ার প্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৭০ টাকা। যা আগের বছর একই সময় ছিল ০.৫৭ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.১৩ টাকা।

এছাড়া আলোচিত সময়ে কোম্পানির শেয়ার প্রতি সমন্বিত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ২০.২১ টাকা। যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ২০.৯১ টাকা।

কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স: তৃতীয় প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স। তৃতীয় প্রান্তিকে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৬৭ টাকা। গত বছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল ১.৬৫ টাকা। সর্বশেষ ৩ মাসে (জুলাই- সেপ্টেম্বর, ২০১৬) ইপিএস হয়েছে ০.১৫ টাকা। গত বছরের একই সময়ে যা ছিল ১৪ পয়সা।

৯ মাসে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) হয়েছে ১৮.৩৩ টাকা। গত বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ১৭.৯০ টাকা। শেয়ার প্রতি কার্যকরী নগদ প্রবাহের পরিমান (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ০.৯৩ টাকা।

পাইওনিয়র ইন্স্যুরেন্স: তৃতীয় প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বীমা খাতের কোম্পানি কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড। তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি১৬ থেকে সেপ্টেম্বর১৬) কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.১১ টাকা। গত বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ১.৮ টাকা। সর্বশেষ ৩ মাসে (জুলাই- সেপ্টেম্বর, ২০১৬) ইপিএস হয়েছে ০.২৮ টাকা। গত বছরের একই সময়ে যা ছিল ০.৩০ টাকা। নয় মাসে কোম্পানির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) হয়েছে ৩১.১২ টাকা।

সিঙ্গার বিডি: তৃতীয় প্রান্তিকের (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর’১৬) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌশল খাতের কোম্পানি সিঙ্গার বাংলাদেশ (সিঙ্গার বিডি) লিমিটেড। প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী তৃতীয় প্রান্তিকে কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬.৭৪ টাকা। যা আগের বছর একই সময় ছিল ৪.২৪ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ২.৫০ টাকা।

এছাড়া আলোচিত সময়ে কোম্পানির শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ৯.৫৭ টাকা (নেগেটিভ) এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ২২.৭৫ টাকা। যা আগের বছর একই সময়ে এনওসিএফপিএস ছিল ২.৫৮ টাকা এবং ৩১ ডিসেম্বর ২০১৫ সমাপ্ত অর্থবছরে এনএভি ছিল ১৮.৪৮ টাকা।

এদিকে, গত ৩ মাসে (জুলাই- সেপ্টেম্বর’২০১৬) কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩.৩০ টাকা যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ৩.২৮ টাকা।

মিরাকল ইন্ডাষ্ট্রিজ: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বিবিধ খাতের মিরাকল ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেড প্রথম প্রান্তিক (জুলাই’১৬ থেকে সেপ্টেম্বর’১৬) আর্থিক প্রকাশ করেছে। প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী প্রথম প্রান্তিকে এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.২৮ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল ০.২২ টাকা। শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) হয়েছে ৪৫.৯৮ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ৪৫.৭০ টাকা। এছাড়া শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ১.১১ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে এনওসিএফপিএস ছির ০.৪৭ টাকা (নেগেটিভ)।

এনসিসিবিএল ওয়ান: তৃতীয় প্রান্তিক অনিরিক্ষীত আর্থিক প্রতিবেদন (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর ১৬) প্রকাশ করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এনসিসিবিএল মিউচ্যুয়াল ফান্ড ওয়ান। তৃতীয় প্রান্তিকে ফান্ডটির ইউনিট প্রতি আয় হয়েছে ০.৩৪ টাকা, ইউনিট প্রতি কার্যকরী নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ১.৮৪ টাকা (নেগেটিভ)। যা আগের বছর একই সময়ে ইউনিট প্রতি আয় ছিলো ১.০৬ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিলো ০.১১ টাকা।

আর বাজার মূল্য অনুযায়ী ফান্ডটির ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ পর্যন্ত ইউনিট প্রতি সম্পদ হয়েছে ১০.৫২ টাকা যা ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৫ পর্যন্ত ছিলো ১০.৮০ টাকা এবং ক্রয়মূল্য অনুযায়ী ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ পর্যন্ত এনএভি হয়েছে ১০.৪৯ টাকা যা ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৫ পর্যন্ত ছিলো ১১.১২ টাকা।

এদিকে গত তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৬) এ ফান্ডটির ইউনিট প্রতি আয় হয়েছে ০.১৩ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে ছিলো ০.৫৯ টাকা।

এমবিএল ফার্স্ট: অর্ধবার্ষিকের অনিরিক্ষীত আর্থিক প্রতিবেদন (এপ্রিল-সেপ্টেম্বর ১৬) প্রকাশ করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এমবিএল ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড। প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী দ্বিতীয় প্রান্তিকে ফান্ডটির ইউনিট প্রতি আয় হয়েছে ০.০৭ টাকা, ইউনিট প্রতি কার্যকরী নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ০.২২ টাকা (নেগেটিভ)। যা আগের বছর একই সময়ে ইউনিট প্রতি আয় ছিলো ১.৫৭ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিলো ০.০৮ টাকা।

আর বাজার মূল্য অনুযায়ী ফান্ডটির ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ পর্যন্ত ইউনিট প্রতি সম্পদ হয়েছে ১০.৭০ টাকা যা ৩১ মার্চ, ২০১৬ পর্যন্ত ছিলো ১১.০৩ টাকা এবং ক্রয়মূল্য অনুযায়ী ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ পর্যন্ত এনএভি হয়েছে ১০.১০ টাকা যা ৩১ মার্চ, ২০১৬ পর্যন্ত ছিলো ১১.৩৯ টাকা।

এদিকে গত তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৬) এ ফান্ডটির ইউনিট প্রতি লোকসান হয়েছে ০.২০ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে ছিলো ০.৩০ টাকা।

এআইবিএল ফার্স্ট: অর্ধবার্ষিকের অনিরিক্ষীত আর্থিক প্রতিবেদন (এপ্রিল-সেপ্টেম্বর ১৬) প্রকাশ করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এআইবিএল ফার্স্ট ইসলামী মিউচ্যুয়াল ফান্ড। দ্বিতীয় প্রান্তিকে ফান্ডটির ইউনিট প্রতি লোকসান হয়েছে ০.০১ টাকা, ইউনিট প্রতি কার্যকরী নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ০.৩০ টাকা (নেগেটিভ)। যা আগের বছর একই সময়ে ইউনিট প্রতি আয় ছিলো ১.৪৩ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিলো ০.০৬ টাকা।

আর বাজার মূল্য অনুযায়ী ফান্ডটির ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ পর্যন্ত ইউনিট প্রতি সম্পদ হয়েছে ১১.৭৫ টাকা যা ৩১ মার্চ, ২০১৬ পর্যন্ত ছিলো ১১.৫২ টাকা এবং ক্রয়মূল্য অনুযায়ী ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ পর্যন্ত এনএভি হয়েছে ১০.২০ টাকা যা ৩১ মার্চ, ২০১৬ পর্যন্ত ছিলো ১১.৬১ টাকা।

এদিকে গত তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৬) এ ফান্ডটির ইউনিট প্রতি আয় হয়েছে ০.০৪ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে ছিলো ০.২৪ টাকা।

গ্রীণ ডেল্টা মিউচ্যুয়াল ফান্ড: প্রথম প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৬) আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত মিউচ্যুয়াল ফান্ড খাতের গ্রীণ ডেল্টা মিউচ্যুয়াল ফান্ড। প্রতিবেদন অনুযায়ী প্রথম প্রান্তিকে গ্রীণ ডেল্টা ফান্ডের ইউনিট প্রতি লোকসান হয়েছে ০.১৩ টাকা এবং ইউনিট প্রতি কার্যকরী নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিইউ) হয়েছে ০.০৯ টাকা (নেগেটিভ)। যা আগের বছরে একই সময়ে ইউনিট প্রতি আয় (ইপিইউ) ছিল ০.৫০ টাকা, এনওসিএফপিইউ ছিল ০.০২ টাকা (নেগেটিভ)।

আর বাজার মূল্য অনুযায়ী ফান্ডটির ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ পর্যন্ত ইউনিট প্রতি সম্পদ হয়েছে ১০.৩৪ টাকা যা ৩০ জুন, ২০১৬ পর্যন্ত ছিলো ১০.৬৬ টাকা এবং ক্রয়মূল্য অনুযায়ী  ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ পর্যন্ত এনএভি হয়েছে ১০.০০ টাকা যা ৩০ জুন, ২০১৬ পর্যন্ত ছিলো ১০.৬৩ টাকা।

এবং ডিবিএইচ ফার্স্ট: প্রথম প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৬) আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত মিউচ্যুয়াল ফান্ড খাতের ডিবিএইচ ফার্স্ট  মিউচ্যুয়াল ফান্ড। প্রতিবেদন অনুযায়ী লাভ থেকে লোকসানে রয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রথম প্রান্তিকে ডিবিএইচ ফার্স্ট ফান্ডের ইউনিট প্রতি লোকসান হয়েছে ০.১১ টাকা এবং ইউনিট প্রতি কার্যকরী নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিইউ) হয়েছে ০.০৪ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে ইউনিট প্রতি আয় (ইপিইউ) ছিল ০.৪৮ টাকা, এনওসিএফপিইউ ছিল ০.০৬ টাকা (নেগেটিভ)।

আর বাজার মূল্য অনুযায়ী ফান্ডটির ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ পর্যন্ত ইউনিট প্রতি সম্পদ হয়েছে ১০.২৬ টাকা যা ৩০ জুন, ২০১৬ পর্যন্ত ছিলো ১০.৬০ টাকা এবং ক্রয়মূল্য অনুযায়ী  ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ পর্যন্ত এনএভি হয়েছে ৯.৯৯ টাকা যা ৩০ জুন, ২০১৬ পর্যন্ত ছিলো ১০.৮৩ টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/রু

আপনার মন্তব্য

Top