১৯ কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ

Arthik Protibadon Reportশেয়ারবাজার রিপোর্ট: আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১৯ কোম্পানি।  আজ (রোববার, ৩১ অক্টোবর) অনুষ্ঠিত কোম্পানিগুলোর বোর্ড সভায় আর্থিক প্রতিবেদন গুলো প্রকাশ করা হয়।

বাটা সু:

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানু ১৬- সেপ্টেম্বর-১৬) বাটা সুর শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪৭.৮৭ টাকা, শেয়ার প্রতি কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ৪০.৯০ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ২৫৪.১১ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৪২.৬৩ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিল ১৬.০০ টাকা এবং ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৫ পর্যন্ত এনএভিপিএস ছিলো ২১৯.৫১ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস বেড়েছে ৫.২৪ টাকা বা ১২.২৯ শতাংশ।

গত তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৬) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২২.০৮ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে আয় ছিল ২২.৫০ টাকা।

কর্ণফুলী ইন্স্যুরেন্স:

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানু ১৬- সেপ্টেম্বর-১৬) কর্ণফুলী ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৮২ টাকা, শেয়ার প্রতি কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ০.৭০ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ১৭.৬৯ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ০.৪৪ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিল ০.০৭ টাকা এবং এনএভিপিএস ছিলো ১৮.৫৭ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস বেড়েছে ০.৩৮ টাকা বা ৮৬.৩৬ শতাংশ।

গত তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৬) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.২১ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে লোকসান ছিল ০.১৯ টাকা।

ইস্টার্ণ ইন্স্যুরেন্স:

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানু ১৬- সেপ্টেম্বর-১৬) ইস্টার্ণ ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৯৫ টাকা, শেয়ার প্রতি কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ২.৬০ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ৩৭.৮৭ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১.৮৪ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিল ৩.০৬ টাকা এবং ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৫ পর্যন্ত এনএভিপিএস ছিলো ৩৭.৯১ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস বেড়েছে ০.১১ টাকা বা ৫.৯৮ শতাংশ।

গত তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৬) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৬০ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে আয় ছিল ০.৪৬ টাকা।

জিবিবি পাওয়ার:

প্রথম প্রান্তিকে (জানু ১৬- সেপ্টেম্বর-১৬) জিবিবি পাওয়ারের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৩১ টাকা, শেয়ার প্রতি কার্যকরী নগদ প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ০.৩০ টাকা (নেগেটিভ) এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভি) হয়েছে ২০.৭১ টাকা। যা এর আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ০.২৩ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিল ০.০০ টাকা এবং এনএভিপিএস ছিল ২০.৬৪ টাকা।

সোশ্যাল ইসলামি ব্যাংক:

তৃতীয় প্রান্তিকে অর্থাৎ জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিন মাসে সোশ্যাল ইসলামি ব্যাংকের মুনাফায় কোন পরিবর্তন আসেনি। তিন মাসে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৩১ টাকা। এর আগের সবছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ০.৩১ টাকা। দেখা যাচ্ছে ব্যাংকটির মুনাফায় প্রবৃদ্ধি ঘটেনি।

এদিকে, চলতি হিসাব বছরের ৯ মাসে সমন্বিত ইপিএস ১.০৪ টাকা। এর আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ০.৬৪ টাকা। দেখা যাচ্ছে আলোচিত সময়ে ইপিএস ৬২ শতাংশ বেড়েছে।

এছাড়া শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৭.১৬ টাকা এবং শেয়ার প্রতি নগদ কার্যকর প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে (০.২২) টাকা।

আরএকে সিরামিক:

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানু ১৬- সেপ্টেম্বর-১৬) আরএকে সিরামিকের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৭৯ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১.৭৮ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস বেড়েছে ০.০১ টাকা।

গত তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৬) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৫৯ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে আয় ছিল ০.৫৩ টাকা।

ইন্টারন্যাশনাল লিজিং:

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানু ১৬- সেপ্টেম্বর-১৬) ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ০.২০ টাকা, শেয়ার প্রতি কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ১৭.৫৫ টাকা (নেগেটিভ) এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ১২.০১ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার লোকসান ছিল ১.৩০ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিল ৫.৪৫ টাকা (নেগেটিভ) এবং ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৫ পর্যন্ত এনএভিপিএস ছিলো ১২.২১ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির লোকসানের পরিমাণ কমেছে ১.১০ টাকা।

গত তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৬) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ০.০২ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে লোকসান ছিল ০.৯৪ টাকা।

ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স:

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানু ১৬- সেপ্টেম্বর-১৬) ফেডারেল ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৩৫ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ০.৫৫ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস কমেছে ০.২০ টাকা। এ সময় কোম্পানির শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাড়িয়েছে ১১.২৮ টাকা।

গত তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৬) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.১২ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে আয় ছিল ০.১৬ টাকা।

বিডি ফাইন্যান্স:

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানু ১৬- সেপ্টেম্বর-১৬) বিডি ফাইন্যান্সের শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ০.৩৯ টাকা, শেয়ার প্রতি কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ২.৪৮ টাকা (নেগেটিভ) এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ১৩.৮০ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ০.০৪ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিল ১.০৯ টাকা এবং ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৫ পর্যন্ত এনএভিপিএস ছিলো ১৫.৬০ টাকা।

গত তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৬) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ০.৮৮ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে আয় ছিল ০.০৯ টাকা।

ফারইস্ট ফাইন্যান্স:

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানু ১৬- সেপ্টেম্বর-১৬) ফারইস্ট ফাইন্যান্সের শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ০.৭৫ টাকা, শেয়ার প্রতি কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ২.২৫ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ১১.২১ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ০.০১ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিল ২.৩৮ টাকা (নেগেটিভ) এবং ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৫ পর্যন্ত এনএভিপিএস ছিলো ১২.৯৬ টাকা।

বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স:

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানু ১৬- সেপ্টেম্বর-১৬) বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.২৬ টাকা, শেয়ার প্রতি কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ১.৮১ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ১৬.২৪ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১.৬৫ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিল ২.৮৩ টাকা এবং এনএভিপিএস ছিলো ১৭.৬০ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস কমেছে ০.৩৯ টাকা বা ২৩.৬৪ শতাংশ।

ইউনিয়ন ক্যাপিটাল:

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানু ১৬- সেপ্টেম্বর-১৬) ইউনিয়ন ক্যাপিটালের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৪৯ টাকা, শেয়ার প্রতি কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ১.৭৪ টাকা (নেগেটিভ) এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ১৬.৮৪ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ০.৭১ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিল ৪.৮৯ টাকা (নেগেটিভ) এবং এনএভিপিএস ছিলো ১৬.৯২ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস কমেছে ০.২২ টাকা বা ৩০.৯৯ শতাংশ।

ফাস ফাইন্যান্স:

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানু ১৬- সেপ্টেম্বর-১৬) ফাস ফাইন্যান্সের সমন্বিত শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.২৮ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ০.৩৪ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস কমেছে ০.০৬ টাকা।

একই সময়ে কোম্পানির সমন্বিত নিট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো হয়েছে ১০.৬১ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল সমন্বিত ৮.৩২ টাকা (নেগেটিভ)। এছাড়া কোম্পানির শেয়ার প্রতি সমন্বিত সম্পদমূল্য দাড়িয়েছে ১৩.৬৪ টাকা এবং ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত অর্থবছরে যা ছিল ১৪.৭০ টাকা।

গত তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৬) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৪২ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে লোকসান ছিল ০.১২ টাকা।

প্রিমিয়ার ব্যাংক:

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানু ১৬- সেপ্টেম্বর-১৬) প্রিমিয়ার ব্যাংকের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৫০ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ০.৪১ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস বেড়েছে ০.০৯ টাকা।

একই সময়ে কোম্পানির সমন্বিত নিট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো হয়েছে ১.৩৬ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল সমন্বিত ১.২১ টাকা। এছাড়া কোম্পানির শেয়ার প্রতি সমন্বিত সম্পদমূল্য দাড়িয়েছে ১৫.৮৩ টাকা এবং আগের বছরে যা ছিল ১৫.৫৮ টাকা।

এছাড়া গত তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৬) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.১০ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে লোকসান ছিল ০.২১ টাকা।

সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্স:

চলতি বছরের নয় মাসে অর্থাৎ জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.২৭ টাকা। এর আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ১.২৩ টাকা। দেখা যাচ্ছে আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির ইপিএস বেড়েছে।

এদিকে জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিন মাসে ইপিএস হয়েছে ০.৪৬ টাকা। এর আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ০.৪৪ টাকা। এছাড়া আলোচিত ৯ মাসে শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৬.১৭ টাকা।

ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্স:

চলতি বছরের নয় মাসে অর্থাৎ জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৭৪ টাকা। এর আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ১.১৮ টাকা। দেখা যাচ্ছে আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির ইপিএস কমেছে।
এদিকে জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিন মাসে ইপিএস হয়েছে ০.১৩ টাকা। এর আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ০.০৬ টাকা।
এছাড়া আলোচিত ৯ মাসে শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ২৩.০২ টাকা এবং শেয়ার প্রতি নগদ কার্যকর প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ০.১৫ টাকা।

ব্যাংক এশিয়া:

চলতি বছরের নয় মাসে অর্থাৎ জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত শেয়ার প্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৭৮ টাকা। এর আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ১.৫৭ টাকা। দেখা যাচ্ছে আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির ইপিএস ৫০ শতাংশ কমেছে।এদিকে জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিন মাসে ইপিএস হয়েছে ০.৪৭ টাকা। এর আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ০.৭৩ টাকা। দেখা যাচ্ছে তিন মাসে ইপিএস ৩৬ শতাংশ কমেছে।
এছাড়া আলোচিত ৯ মাসে শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ২০.৩৪ টাকা এবং শেয়ার প্রতি নগদ কার্যকর প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে (৬.০৯) টাকা।

ট্রাস্ট ব্যাংক:

তৃতীয় প্রান্তিকে ট্রাস্ট ব্যাংকের শেয়ার প্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩.১৭ টাকা। যা এর আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ২.৮১ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে  ০.৩৬ টাকা বা ১২.৮১ শতাংশ কমেছে।

এছাড়া আলোচিত সময়ে ব্যাংকের শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ২১.৯১ টাকা এবং শেয়ার প্রতি নগদ কার্যকর প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ২৩.০১ টাকা। যা আগের বছর একই সময় ছিল যথাক্রমে ২০.৬৯ টাকা এবং ১৮.৫৮ টাকা।

আরগন ডেনিমসে

প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই ১৬- সেপ্টেম্বর-১৬) আরগন ডেনিমসের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৯০ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ২৭.৯৯ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ০.৮৮ টাকা এবং এনএভিপিএস ছিলো ২৪.৭৭ টাকা।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

Top