অস্বাভাবিকহারে দর বাড়ছে কোহিনুর ক্যামিকেলের

kohinoorশেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ঔষধ ও রসায়ন খাতের ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানি কোহিনুর ক্যামিকেলসের শেয়ার দর অস্বাভাবিকহারে বাড়ছে । টানা চার কার্য দিবস ধরে এ কোম্পানির শেয়ার দর বাড়ছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

বাজার সংশ্লিষ্টদের মতে, একটি কোম্পানি যখন ডিভিডেন্ড, রাইট অথবা এ সংক্রান্ত কোনো ঘোষণা থাকে, তখন সংশ্লিষ্ট কোম্পানিটির শেয়ারের প্রতি বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বেড়ে যায়। এর ফলশ্রুতিতে ওই কোম্পানির দর বাড়াটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এ রকম কোনো মূল্যসংবেদনশীল তথ্য ছাড়া দর বাড়াটা স্বাভাবিক বলা যায় না। কর্তৃপক্ষের উচিত কোম্পানিগুলোর দর কেন বাড়ছে তা খতিয়ে দেখা। অস্বভাবিক হারে দর বাড়লেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোম্পানিটিকে কোন তদন্ত নোটিশ দিচ্ছে না। যা রহস্যজনক বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

বুধবার এ কোম্পানিটির শেয়ার দর ৭.৫৩ শতাংশ বা ২৬.২০ টাকা বেড়ে গেইনারের ৫ম স্থানে উঠে আসে। কোম্পানিটি ধারাবাহিকভাবে গত চার কার্যদিবস দর বেড়েছে। এদিন কোম্পানিটির শেয়ার দর 348.10 টাকা থেকে 377.90 টাকায় উঠানামা করে সর্বশেষ 374.00 টাকায় লেনদেন হয়। কোম্পানিটির 4 হাজার 719টি শেয়ার মোট 139 বার হাতবদল হয়, যার বাজার মূল্য দাঁড়ায় 1৭ লাখ 24 হাজার টাকা। গত এক মাসে এ কোম্পানির সর্বনিম্ন দর ছিল ৩৩১.২০ টাকা ও সর্বোচ্চ দাঁড়ায় ৩৬৮.৫০ টাকা।

১৯৮৮ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া এ কোম্পানির অনুমোদিত মুলধন ৫০ কোটি টাকা ও পরিশোধিত মুলধন ১০ কোটি ১৬ লাখ টাকা। এর মোট ১ কোটি ১ লাখ ৫৬ হাজার ২৫০টি শেয়ারের মধ্যে পরিচালনা পর্ষদের কাছে রয়েছে ৪৮.৭২ শতাংশ, প্রতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ১১.৭০ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ৩৯.৫৮ শতাংশ শেয়ার।

কোম্পানিটি ৩০ জুন ২০১৪ পর্যন্ত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের জন্য ২০ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড দিয়েছে। সম্প্রতি কোহিনুর ক্যামিকেলস ২য় প্রন্তিক (জুলাই-১৪, ডিসেম্বর ১৪) প্রতিবেদনে কর পরিশোধের পর মুনাফা হয়েছে ৫ কোটি ১২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ৫.০৫ টাকা। মূলত স্বল্প পরিশোধিত মূলধন ও দুর্বল মৌলভিত্তি সম্পন্ন কোম্পানি হওয়ায় এ কোম্পানির শেয়ার লেনদেনে কারসাজি করা হচ্ছে বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

শেয়ারবাজার/মু/সা

আপনার মন্তব্য

Top