আজ: শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১ইং, ১১ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০১ এপ্রিল ২০১৫, বুধবার |


kidarkar

ক্যাপিটাল গেইন ট্যাক্স প্রত্যাহারে বিনিয়োগ বাড়বে

icbশেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে স্থিতিশীলতা আনতে দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগের সক্ষমতা শুধুমাত্র প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদেরই রয়েছে। কিন্তু বর্তমান মন্দা বাজারে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগে আসছে না। তাই তাদের দীর্ঘমেয়াদে অধিক বিনিয়োগে উৎসাহী করতে মূলধনী মুনাফার (ক্যাপিটাল গেইন) ওপর ধার্য করা কর (ট্যাক্স) প্রত্যাহার করার জন্য আসন্ন বাজেটের আগে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে সুপারিশ করা হবে।

গত ৩০ মার্চ সোমবার পুঁজিবাজারের উন্নয়নের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত সংশ্লিষ্ট ছয় সংগঠনের সমন্বয় সভায় এমনটাই জানিয়েছেন রাষ্ট্রায়ত্ব বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান আইসিবি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং এসোসিয়েশন অব অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানির সভাপতি মো: ফায়েকুজ্জামান।

পুঁজিবাজারে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর গুরুত্ব সম্পর্কে তিনি বলেন, পুঁজিবাজারে স্থিতিশীলতার জন্য প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের ৫ থেকে ১০ বছরের দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগ থাকতে হবে। এ বিনিয়োগ না থাকলে বাজার স্থিতিশীল হবে না। তাছাড়া দেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটে মানি মার্কেটে প্রচুর অর্থ উদ্বৃত্ত রয়েছে। অপরদিকে ব্যাংকগুলোও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিধি নিষেধের কারণে বিনিয়োগে সক্রিয় হতে পারছে না। কিন্তু এমন পরিস্থিতিতেও পুঁজিবাজারে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগে সক্রিয় হচ্ছে না। এ কারণে বাজারে তারল্য সঙ্কট দেখা দিয়েছে।

এমন অবস্থায় করণীয় সম্পর্কে তিনি বলেন, পুঁজিবাজারে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগে উৎসাহী করতে হবে। এর জন্য বিনিয়োগের সময়সীমার ওপর মূলধনী মুনাফায় ধার্যকৃত করহার কমানো যেতে পারে। আর তাতে তারা দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগে আগ্রহী হবে। বিশ্বের অন্য দেশগুলোতেও পুঁজিবাজারে দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগের ওপর মূলধনী মুনাফায় কর অব্যাহতি দেয়ার রেওয়াজ রয়েছে।

এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, বর্তমানে মূলধনী মুনাফার ওপর যে কর ধার্য করা আছে সেটা ঠিক থাকবে। সেখানে যেসব প্রতিষ্ঠানের বিনিয়োগ দীর্ঘমেয়াদে রয়েছে তাদের মেয়াদের ওপর ভিত্তি করে এ কর প্রত্যাহারের জন্য আসন্ন বাজেটের আগে অর্থ মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে সুপারিশ করা হবে। আর এ দায়িত্ব পালন করবে নব-গঠিত বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল মার্কেট ফোরামসহ পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলো।

উল্লেখ্য, বর্তমানে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের মোট বিনিয়োগের ওপর মূলধনী মুনাফার ১০ শতাংশ হারে কর দিতে হয়। আর ব্যক্তি বিনিয়োগকারীদের ক্ষেত্রে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত মূলধনী মুনাফায় কর প্রদান করতে হচ্ছে না। অপরদিকে বিদেশী প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী এবং অ-নিবাসী বাংলাদেশিদের জন্য মূলধনী মুনাফায় কর অব্যাহতি রয়েছে।

শেয়ারবাজার/অ

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.