শেষ ভাল যার, সব ভাল তার

bazarশেয়ারবাজার রিপোর্ট: এতদূর এসে উর্ধ্বমুখী বাজারকে হাতছাড়া করতে চান না বিনিয়োগকারীরা। বছরের শেষ বেলায় সাফল্যটা অর্জন করে নিতে মরিয়া সকলেই। পুঁজিবাজার উত্থানের শুরুর বছর ২০১৬ সাল। এ উত্থানের শেষ কেউ দেখতে চায় না। কারন চলতি বছরের আরো দুটো দিন থাকলেও আজই হচ্ছে পুঁজিবাজারের জন্য শেষ কার্য দিবস। আর এ দিবসটি শেষ হচ্ছে বিনিয়োগকারীদের একটি শুভ ইঙ্গিত দিয়ে। তাই অনেকেই শেষ দিনের উত্থানকে প্রবাদের সাথে জরিয়ে বলছে ‘শেষ ভাল যার, সব ভাল তার।’

বর্তমান বাজার পরিস্থিতি নিয়ে একাধিক মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারেজ হাউজের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ধারাবাহিক উত্থানের কারণে দেশের শেয়ারবাজার অনেকটাই বিনিয়োগ উপযোগী হয়ে উঠেছে। বছরের শুরুটা পতন দিয়ে শুরু হলেও শেষটাতে রয়েছে চাঙ্গা ভাব।  ২০১৬ সাল দেশের পুঁজিবাজারের জন্য একটি ভাল বছরের সূচনা মাত্র। আগামি বছরগুলো আরও ভালো যাবে তারই পূর্ব প্রস্তুতির বছর ছিল ২০১৬ সাল। তবে এই বছরটিই চুড়ান্ত ভালো নয় কারন এ বছরটি ধস পরবর্তী একটি সফল বছর। এ বছর শুরু থেকে ধীরে ধীরে সূচক ও লেনদেন বাড়তে থাকে। গোটা বাজারের জন্য আগামি বছরের জন্য রয়েছে অনেকগুলো শুভ খবর। প্রধানমন্ত্রীর আগমন থেকে শুরু করে জেলায় জেলায় বিএসইসির মেলা এবং সরকারের প্রবৃদ্ধি উন্নতির সাথে শেয়ার বাজারকে সম্পৃক্ত করা প্রভৃতি।

বাজার বিশ্লেষণঃ চলতি বছরের শেষ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের উর্ধ্বমুখী প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন লেনদেনের শুরুতে ক্রয় চাপে সূচক বাড়লেও ৩০ মিনিট পর সেল প্রেসারে পরতে থাকে সূচক। এবং দুই ঘন্টা ১৫ মিনিট পর সম্মলিত ক্রয় চাপে আবার ঘুড়ে দাঁড়ায় বাজার। বৃহস্পতিবার সূচক কিছুটা বাড়লেও কমেছে বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে টাকার অংকে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। আজ দিনশেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৭০ কোটি টাকা।

বৃহস্পতিবার ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫০৩৬ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১১৯১ পয়েন্টে এবং ডিএসই৩০ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৮১০ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩২৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৪৭টির, কমেছে ১৫৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৭০ কোটি ৫৮ লাখ ৭৫ হাজার টাকা।

এর আগের কার্যদিবস অর্থাৎ বুধবার ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ১১ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৫০২৭ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১১৮৯ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ০.৯৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১৮০৮ পয়েন্টে। আর ওইদিন লেনদেন হয়েছিল ৯৩৮ কোটি ২৮ লাখ ২৯ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১৩২ কোটি ৩০ লাখ ৪৬ হাজার টাকা।

এদিকে, দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক ১০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৯৩৭৮ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৬০টি কোম্পানির ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১২১টির, কমেছে ১১৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৭৪ কোটি ১৯ লাখ ৪৮ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

Top