৬ কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ

Arthik Protibadon_আর্থিক প্রতিবেদনশেয়ারবাজার ডেস্ক: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৬ কোম্পানি তাদের অর্ধবার্ষিক আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। কোম্পানিগুলো হলো: ন্যাশনাল টিউবস, আনলিমা ইয়ার্ন,মিরাকল ইন্ডাষ্ট্রিজ, এপেক্স ট্যানারি, এসিআই ফরমুলেশন এবং বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস। নিম্নে কোম্পানিগুলোর আর্থিক বিবরণীর তথ্য প্রকাশ করা হলো:

ন্যাশনাল টিউবস  অর্ধবার্ষিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ২.৭৪ টাকা । যা এর আগের বছর একই সময়ে লোকসান ছিল ০.৫৪ টাকা। এ সময় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য(এনএভি) হয়েছে ২১৫.১১ টাকা এবং শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) ৪.০৮ টাকা । গত অর্থবছরের একই সময়ে এনওসিএফপিএস ছিল ৬.১১ টাকা।
এদিকে অর্ধবার্ষিকের শেষ তিন মাসে অর্থাৎ অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ১ টাকা ৪৪ পয়সা। যা এর আগের বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় ছিল ৫ পয়সা।

আনলিমা ইয়ার্ন অর্ধবার্ষিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয়(ইপিএস) হয়েছে ০.৫১ টাকা। যা এর আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৪৫ টাকা। এ সময় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য(এনএভি) হয়েছে ১০.৯৯ টাকা এবং শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) ০.৭০ টাকা।
এদিকে অর্ধবার্ষিকের শেষ তিন মাসে অর্থাৎ অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ০.৩৫ টাকা। যা এর আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৩১ টাকা।

মিরাকল ইন্ডাষ্ট্রিজ  জুলাই’১৬-ডিসেম্বর’১৬ এই ছয় মাসে কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৫৪ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ০.৩৬ টাকা। সর্বশেষ তিন মাসে অক্টোবর’১৬-ডিসেম্বর’১৬ এই সময়ে কোম্পানির ইপিএস হয়েছে ০.২৮ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ০.১৬ টাকা।

এদিকে অর্ধবার্ষিকে এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) দাঁড়িয়েছে ০.৩০ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ০.৪৪ টাকা। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ অর্থবছর পর্যন্ত কোম্পানির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) হয়েছে ৪২.৮৫ টাকা। ৩০ জুন, ২০১৬ পর্যন্ত কোম্পানির এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ৪২.৩১ টাকা।

এপেক্স ট্যানারি  দ্বিতীয় প্রান্তিকে এপেক্স ট্যানারির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) (without fair valuation surplus) হয়েছে ১.৮৩ টাকা, শেয়ার প্রতি কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ৪.২২ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ৭২.৬৫ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ০.৮২ টাকা,  এনওসিএফপিএস ছিল ১৯.৬১ টাকা (নেগেটিভ) এবং ৩০ জুন, ২০১৬ সমাপ্ত অর্থবছরে এনএভিপিএস ছিল ৭৪.৭২ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস বেড়েছে ১.০১ টাকা বা ১২৩.১৭ শতাংশ।

গত তিন মাসে (অক্টোবর-ডিসেম্বর ১৬) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) (without fair valuation surplus) হয়েছে ১.৭৩ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে আয় ছিল ০.২৩ টাকা।

এসিআই ফরমুলেশন  দ্বিতীয় প্রান্তিকে এসিআই ফর্মূলেশনের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩.৮৩ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে ইপিএস ছিল ৩.৪৭ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.৩৬ টাকা বা ১০.৩৭ শতাংশ। একই সময়ে (জুলাই-ডিসেম্বর ২০১৬) কোম্পানির নিট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো হয়েছে ১০.৩৭ টাকা (নেগেটিভ), যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ৪.৯৯ টাকা (নেগেটিভ)।

এছাড়া আলোচিত সময়ে কোম্পানির শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) দাড়িয়ে ৫২.৩৪ টাকা। যা ৩০ জুন ২০১৬ সমাপ্ত অর্থবছরে ছিল ৫০.৫০।

এদিকে, গত তিন মাসে  (অক্টোবর-ডিসেম্বর‘১৬) কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩.১৬ টাকা। যা এর আগের বছরের একই সময়ে ছিল ২.৫৮ টাকা।

বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস দ্বিতীয় প্রান্তিকে বেক্সিমকো ফার্মাসিটিক্যালসের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২.৭৩ টাকা, শেয়ার প্রতি কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ২.৫৬ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ৫৯.০৭ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ২.৩৩ টাকা,  এনওসিএফপিএস ছিল ৩.২৮ টাকা এবং ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৫ সমাপ্ত অর্থবছরে এনএভিপিএস ছিল ৫৮.২০ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস বেড়েছে ০.৪১ টাকা।

গত তিন মাসে (অক্টোবর-ডিসেম্বর ১৬) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৪৭ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে আয় ছিল ১.২৯ টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

Top