৩ মাসে ভারতের সেনসেক্স সূচক বেড়েছে ৩২০০ পয়েন্ট

bse sensexশেয়ারবাজার রিপোর্ট: টানা ৩ মাস ধরে ইতিবাচক রয়েছে বিএসই সেনসেক্স। মূলত গত বছরের (২০১৬) একেবারে শেষের দিক থেকে এ স্টক সূচকটি উর্দ্ধমূখী চলতে থাকে। আলোচিত সময় থেকে এ পর্যন্ত সূচক বেড়েছে প্রায় ৩২০০ পয়েন্ট বা ১২.৫০ শতাংশ। প্রায় একই সময় থেকে বাংলাদেশেও সূচক ভাল অবস্থানে ফিরতে শুরু করে। বিষয়টিকে বাজারে আঞ্চলিকতার ধারা বজায় থাকা এবং ইতিবাচক বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

সর্বশেষ তথ্যমতে (স্থানীয় সময় অনুযায়ী ২৭ ফেব্রুয়ারী দুপুর ১২.৪৩ মিনিটে) বিএসই সেনসেক্স সূচক ০.০২ শতাংশ বা ৬.৯০ পয়েন্ট বেড়ে ২৮৮৯৯.৮৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে। এ দিন লেনদেন শুরু হয়েছিল ২৮৯১০.৫০ পয়েন্ট থেকে। অন্যদিকে আগেরদিন বাজার ক্লোজ হয়েছিল ২৮৮৯২.৯৭ পয়েন্টে।

উল্লেখ্য, সর্বশেষ তথ্যমতে বিএসই সেনসেক্স এর পিই রেশিও ২০.৮৮, বাংলাদেশের ডিএসইএক্স এর ১৪.২৯, কলোম্বোর সিএসই অল শেয়ারের ১২.৩৬, স্টক এক্সচেঞ্জ অব থাইলেন্ডের এসইটি ১৮.৫৫।

এছাড়া সবংশেষ অর্থ বছরে সার্কভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে ভারতের বিএসই সেনসেক্সের বাজার মূলধন মোট জিডিপি’র তুলনায় ৬৯.৩৬ শতাংশ, বাংলাদেশের ডিএসইএক্স’র ১৬.৫৮ শতাংশ, পাকিস্তানের কেএসই ১০০ এর ৩৩.৯২ শতাংশ, কলোম্বো স্টক এক্সচেঞ্জের ২২.৬৫ শতাংশ, ফিলিপাইন স্টক এক্সচেঞ্জের ৭৬.৯৬ শতাংশ, মালয়েশিয়া’র ১১৯.৯৫ শতাংশ, সিঙ্গাপুরের ২১৮.৯৪ শতাংশ, থাল্যান্ড স্টক এক্সচেঞ্জের বাজার মূলধন দেশটির জিডিপি’র তুলনায় ১১১.৯৬ শতাংশ।

এছাড়া আন্তর্জাতিক ভিত্তিতে বড় স্টক এক্সচেঞ্জগুলোর মধ্যে হংকং স্টক এক্সচেঞ্জের বাজার মূলধন দেশটির মোট জিডিপি’র তুলনায় ১০১০.২৯ শতাংশ, জাপানের ১০৭ শতাংশ, আমেরিকার নাসডাকের ৪১.৯১ শতাংশ এবং ডেনমার্কের ডিএএক্স এর বাজার মূলধন মোট জিডিপি’র তুলনায় ৪৯.৫৭ শতাংশ।

শেয়ারবাজারনিউজ/রু

আপনার মন্তব্য

*

*

Top