বিএটিবিসি ডিভিডেন্ড হিসেবে দিবে ৩৬০ কোটি টাকা: সাধারণ বিনিয়োগকারীরা পাবে মাত্র ৩ কোটি টাকা

batbcশেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বহুজাতিক কোম্পানি ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ কোম্পানির (বিএটিবিসি) পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডারদের ডিভিডেন্ড হিসেবে ৩৬০ কোটি টাকা দেওয়ার সুপারিশ করেছে। এর মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকেরা পাবেন ২৬২ কোটি টাকা। আর কোম্পানিটির সাধারণ বিনিয়োগকারীরা পাবেন মাত্র ২ কোটি ৮৮ লাখ টাকা।

অর্থাৎ ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৬ সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষা শেষে কোম্পানিটি শেয়ার প্রতি ৬০০ শতাংশ বা প্রতি ১০ টাকার শেয়ারে ৬০ টাকা করে ডিভিডেন্ড হিসেবে শেয়ারহোল্ডারদের দেওয়ার সুপারিশ করেছে। কোম্পানিটির বর্তমান শেয়ার দর ২ হাজার ৫০৫ টাকা। ২৭ ফেব্রুয়ারি তারিখে অনুষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানটির পর্ষদ সভায় এমন সিদ্ধান্ত হয়েছে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

৬০ কোটি টাকা পরিশোধিত মূলধনের এ কোম্পানির শেয়ার সংখ্যা ৬ কোটি। এর মধ্যে উদ্যোক্তা পরিচালকের কাছে রয়েছে ৭২.৯১ শতাংশ শেয়ার। ৬০০ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ডে তারা পাচ্ছেন ২৬২ কোটি ৪৭ লাখ ৬০ হাজার টাকা। আর সাধারণ বিনিযোগকারীর কাছে রয়েছে ০.৮০ শতাংশ শেয়ার। তারা পাচ্ছেন মাত্র ২ কোটি ৮৮ লাখ টাকা।

অন্যদিকে, ১৪.৪২ শতাংশের মালিক বিদেশি বিনিয়োগকারীরা পাবেন ৫১ কোটি ৯১ লাখ ২০ হাজার টাকা; প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর কাছে রয়েছে ১১.২৩ শতাংশ শেয়ার, তারা পাবেন ৪০ কোটি ৪২ লাখ ৮০ হাজার টাকা। বাকী ২ কোটি ৩০ লাখ ৪০ হাজার টাকা পাবে সরকার। কারণ অস্বাস্থ্যকর পণ্য উৎপাদনকারী এ কোম্পানির ০.৬৪ শতাংশ শেয়ার সরকারের কাছে রয়েছে।

এদিকে সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১২৬.৩৭ টাকা। আর ডিভিডেন্ড হিসেবে কোম্পানিটি দিয়েছে শেযার প্রতি ৬০ টাকা। দেখা যাচ্ছে মুনাফার ৪৭.৪৭ শতাংশ ডিভিডেন্ড হিসেবে দেওয়ার সুপারিশ করেছে কোম্পানিটি।

এছাড়া কোম্পানির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ৩১৪.৭১ টাকা।

সুপারিশ করা ডিভিডেন্ড পেতে রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২১ মার্চ। আর শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদনের জন্য বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) হবে আগামী ১৯ এপ্রিল সকাল সাড়ে ১০টা, হোটেল সোনারগাঁও।

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top