বড় পতনে শেষ হলো আরও একটি সপ্তাহ

price...dawnশেয়ারবাজার রিপোর্ট: দেশের উভয় শেয়ারবাজারে গত সপ্তাহে লেনদেন হওয়া পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে চার দিনই কমেছে সূচক। ফলে সূচকের ব্যাপক পতনে শেষ হয় সপ্তাহ। বিদায়ী সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের সঙ্গে কমেছে সব ধরনের মূল্য সূচক। আর আগের সপ্তাহের তুলনায় ডিএসইতে কমলেও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) কিছুটা বেড়েছে লেনদেন।

চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতার মধ্যে বিগত কয়েক মাস যাবৎ শেয়ারবাজারে চলছে মন্দা। এমন পরিস্থিতিতে সাধারণ বিনিয়োগকারীরা পড়েছেন বড় ধরনের বিপাকে। এছাড়াও প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা নিষ্ক্রিয় ভুমিকা পালন করছে। ফলে শেয়ারবাজারে সূচক ও লেনদেন উভয়ই কমে গেছে। এ দর পতনের ধারা অব্যাহত থাকলে দেশের পুঁজিবাজার আবারও তলানির দিকে যাবে বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সপ্তাহ শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স অবস্থান করে ৪৩৪৫ পয়েন্টে। আর ডিএসই-৩০ সূচক করে ১৬৭১.১৭ পয়েন্টে এবং শরিয়াহ সূচক অবস্থান করছে ১০৬৫.৬৮ পয়েন্টে। এর আগের সপ্তাহে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স অবস্থান করে ৪৪৭২ পয়েন্টে, ডিএসই-৩০ সূচক ১৭৩০ পয়েন্টে এবং শরিয়াহ সূচক অবস্থান করে ১০৮৮ পয়েন্টে। সে হিসেবে আলোচিত সপ্তাহে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স কমেছে ২.৮২ শতাংশ বা ১২৬.২৪ পয়েন্ট, ডিএসই-৩০ সূচক কমেছে ১.৮৭ শতাংশ বা ৩১.৮৯ পয়েন্ট এবং শরিয়াহ সূচক কমেছে ২.১২ শতাংশ বা ২৩.১২ পয়েন্ট।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেন করা মোট ৩২৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৩৪টির, কমেছে ২৮৩টির, অপরিবর্তীত রয়েছে ৪টি এবং লেনদেন হয়নি ২টি কোম্পানির। যা টাকার অংকে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৬৮১ কোটি ৫৪ লাখ ২৪ হাজার ৭৩২টাকা।

আগের সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ৭৯৫ কোটি ৬ লাখ ৪৫ হাজার ২৩৮টাকা। সে হিসেবে আলোচিত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ১১৩ কোটি ৫২ লাখ ২০ হাজার ৫০৬টাকা বা ৬.৩২ শতাংশ।

এদিকে সপ্তাহশেষে সিএসইর সাধারণ মূল্য সূচক ২৩৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৮০৯০ পয়েন্ট। সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে লেনদন করা মোট ২৭১টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৩৬টির, কমেছে ২৩০টির এবংঅপরিবর্তীত রয়েছে ৫টির কোম্পানির শেয়ার দর। যা টাকার অংকে লেনদেন হয়েছে ১৬০ কোটি ৫৭ লাখ ৯৪ হাজার ৩৪৯টাকা।

এর আগের সপ্তাহে সিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ১৪৪ কোটি ৭৭ লাখ ১১ হাজার ৪৬১টাকা। সে হিসেবে আলোচিত সপ্তাহে সিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১৫ কোটি ৮০ লাখ ৮২ হাজার ৮৮৮টাকা বা ৯.৮৪ শতাংশ।

 

শেয়ারবাজার/অ

আপনার মন্তব্য

Top