স্টক এক্সচেঞ্জের সঙ্গে প্রাক বাজেট আলোচনা ৩০ মার্চ

প্রাক বাজেট ২০১৭-১৮শেয়ারবাজার রিপোর্ট: আগামী ৩০ মার্চ অনুষ্টিত হবে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সংঙ্গে স্টক এক্সচেঞ্জের ২০১৭-১৮ অর্থ বছরের জন্য প্রাক বাজেট আলোচনা। একই দিনে এনবিআর ব্যাংক, বীমা, সেবা এবং এসএমই ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধিদের সাথেও বৈঠকের কথা রয়েছে। এনবিআর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বরাবরের মতো এবারও জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে জাতীয় সংসদে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। দেশের শিল্প বিকাশে বিভিন্ন খাতের প্রতিনিধিরা এসব আলোচনায় যেসব প্রস্তাব দেবেন, সেগুলো পর্যালোচনা করে বাজেটে অন্তর্ভুক্ত করতে অর্থ মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করবে এনবিআর। জনকল্যাণমূলক, সুষম এবং জন-অংশীদারমূলক জাতীয় বাজেট প্রণয়নের উদ্দেশ্যে এসব আলোচনা হবে। এমনটাই জানান এনবিআর এর উর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

এ লক্ষে বুধবার (৮ মার্চ) ঢাকা চেম্বার, মেট্টোপলিটন চেম্বার এবং বাংলাদেশ চেম্বারের নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময়ের মধ্য দিয়ে এই আলোচনা শুরু করেছে এনবিআর; যা চলবে ৪ মে পর্যন্ত। মোট ২১টি খাতের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আগামী ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জাতীয় বাজেটের শুল্ক ও কর সংক্রান্ত বিষয়ে মতবিনিময় করবে এনবিআর। সব বৈঠকেই সভাপতিত্ব করবেন এনবিআর চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান। মাসব্যাপী আলোচনার পর ৩০ জুন তা পাস হবে। আর নতুন অর্থবছর শুরু হবে পহেলা জুলাই থেকে। একই বিষয়ে সব বিভাগীয় শহরেও একটি করে মতবিনিময় সভা হবে।

বুধবার দুপুর আড়াইটায় ঢাকা চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি-ডিসিসিআই, বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি ও মেট্টোপলিটন চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি-এমসিসিআই প্রতিনিধিদের সঙ্গে প্রাক-বাজেট আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

এরইমধ্যে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে প্রাক-বাজেট আলোচনা শুরু করেছেন অর্থমন্ত্রী। নতুন বাজেটের আকার চার লাখ ২০ হাজার কোটি টাকার মত হতে পারে বলে আভাস দিয়েছেন তিনি। চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেটের আকার ছিল তিন লাখ ৪০ হাজার ৬০৫ কোটি টাকা।

এনবিআরের তালিকা অনুযায়ী, ১৪ মার্চ বিকাল ৪টায় বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা), বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা), বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা কর্তৃপক্ষ (বেপজা), বিল্ডসহ কয়েকটি সংস্থার প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক হবে।

২৩ মার্চ হোটেল, রেস্টুরেন্ট, গেস্ট হাউজ, কাগজ, মুদ্রণ, প্রকাশনা, চলচ্চিত্র ও বিজ্ঞাপন এবং ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারসহ সেবাখাতের প্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময় হবে। ৩০ মার্চ বৈঠক হবে ব্যাংক, বীমা, স্টক এক্সচেঞ্জ ও এসএমই ফাউন্ডেশনসহ সেবা খাতের প্রতনিধিদের সঙ্গে।

অর্থনীতিবিদ ও পেশাজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময় হবে ৩ এপ্রিল। ৪ এপ্রিল নির্মাণ, অন্যান্য শিল্প ও ব্যবসা খাত এবং রিহ্যাব, ৫ এপ্রিল ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের প্রতিনিধিদের সঙ্গে প্রাক-বাজেট আলোচনা করবে এনবিআর। তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএসহ বন্ড সুবিধাপ্রাপ্ত রপ্তানি খাতের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক হবে ৬ এপ্রিল।

১০ এপ্রিল ফরেন ইনভেস্টরস চেম্বার, বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া চেম্বার, উইমেন চেম্বারের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক হবে। ১১ এপ্রিল ইলেক্ট্রিক্যাল, ইলেক্ট্রনিক্স ও পরিবহন খাত; ১৩ এপ্রিল বিভিন্ন বিভাগের প্রধান প্রধান চেম্বার; ১৭ এপ্রিল বৃহৎ করদাতা প্রতিষ্ঠান; ১৮ এপ্রিল কৃষি ও রাসায়নিক খাত; ১৯ এপ্রিল সিএন্ডএফ এজেন্ট, শিপিং, ট্যাক্স ল’ইয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন, হিসাববিদদের দুটি সংগঠন আইসিএমএবি, আইসিএবিসহ সহায়ক পেশার প্রতিনিধিদের সঙ্গে প্রাক-বাজেট আলোচনা হবে।

২০ এপ্রিল খুলনায় খুলনা চেম্বার, ২৬ এপ্রিল রাজশাহীতে স্থানীয় ব্যবসায়ী নেতা ও প্রশাসনের কর্মকর্তা, ২৭ এপ্রিল রংপুরে স্থানীয় চেম্বার ও প্রশাসনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা হবে। একই দিনে বরিশাল বিভাগেও একই ধরনের আলোচনা এবং ৪ মে সিলেট চেম্বার ছাড়াও বিভাগীয় কমিশনার ও ডিসিদের সঙ্গে প্রাক-বাজেট আলোচনা অনুষ্ঠানের কথা রয়েছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/রু

আপনার মন্তব্য

Top