লঙ্কাবাংলা লাগামহীন ঘোড়ায় পরিণত হয়েছে

lanka-bangla-financeবাজারে যে কয়টি জুয়াড়ি শেয়ার রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম একটি শেয়ার লঙ্কাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড। বিনিয়োগকারীদের দেওলিয়া করতে শেয়ারটির জুড়ি নেই। এই শেয়ারের সবচেয়ে লক্ষণীয় বিষয় হচ্ছে এর EPS (Earning per share)। সবচেয়ে মজার বিষয় হচ্ছে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বাড়তে থাকলেই এর EPS বেড়ে যায় আবার কোম্পানিটির শেয়ারের দাম কমতে থাকলেই কোম্পানিটির EPS কমে যায়। যা বিনিয়োগকারীদের জন্য ভয়ংকর একটি বিষয়। যেমন ৯ মাসে কোম্পানিটির ইনকাম ছিল ১ টাকা ২১ পয়সা। আর বছর শেষে ইনকাম দেখায় ২.৮৭ পয়সা। তার মানে শেষ প্রান্তিকে কোম্পানি ইনকাম দেখায় ১.৬৬ পয়সা। অর্থাৎ ২৭০ দিনে তেমন ইনকাম করতে না পারলেও ৯০ দিনে অলৌকিক কিছু পেয়ে যাওয়ায় ইনকাম অনেক বেড়ে গিয়েছিল। এতে স্পষ্টই বোঝা যায় কোম্পানিটির ইনকামের ধারাবাহিকতা নেই।

৩ মাস আগে অর্থাৎ ডিসেম্বর মাসেও শেয়ারটির দাম ছিল ২৬ টাকা। আর এখন ৩ মাস পর শেয়ারটির দাম এসে দাঁড়িয়েছে ৬৮ টাকা। শতকরা হিসেবে শেয়ারটির দাম ৩ মাসে ১৫০% বৃদ্ধি পেয়েছে। বিনিয়োগকারীদের সতর্ক হওয়ার জন্য উপরে উল্লেখিত কারনটিই যথেষ্ট বলে মনে করছি।
.
লঙ্কাবাংলার বর্তমান শেয়ার সংখ্যা ৩২ কোটি। এর মধ্যে ডিরেক্টরদের কাছে মাত্র ৩৪% শেয়ার রয়েছে বাকি ৬৬% শেয়ার পুরোটাই floating। এ ছাড়াও তাদের ৫০% রাইট শেয়ার এর অফার রয়েছে। ৫০% রাইট যদি তারা দিতে পারে সে ক্ষেত্রে তাদের শেয়ার সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াবে প্রায় ৪৯ কোটিতে।
.
৩ মাসে ১৫০% মূল্য বৃদ্ধি পেয়ে লঙ্কাবাংলা লাগামহীন ঘোড়ার পরিণত হয়েছে। অতীত অভিজ্ঞতায় আমারা দেখেছি যে সকল শেয়ার লাগামহীন ঘোড়ার পরিণত হয়েছিল সেই শেয়ার গুলোই পরবর্তীতে বিনিয়োগকারীদের দেওলিয়া করতে বিশেষ ভুমিকা রেখেছে। তাই এই শেয়ার টি নুতন করে ক্রয় করার ক্ষেত্রে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত বলে মনে করছি।

তানভীর আহমেদ

শেয়ার বিনিয়োগকারী

উত্তরা,ঢাকা।

আপনার মন্তব্য

*

*

Top