আজ: বুধবার, ০৪ অগাস্ট ২০২১ইং, ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১২ এপ্রিল ২০১৫, রবিবার |



kidarkar

আগামী বাজেটে তামাক পণ্যের ওপর ট্যাক্স আরোপের প্রস্তাব

imagesশেয়ারবাজার রিপোর্ট: আগামী ২০১৫ বাজেটে তামাক পণ্যের ওপর ট্যাক্স অধিকহারে আরোপের প্রস্তাব দিয়েছেন তামাক বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ে সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরী। তিনি বলেছেন, আগামী বাজেটে তামাক পণ্যের ওপর ট্যাক্স আরোপ করলে সরকার লাভবান হবে, ধুমপায়ীর সংখ্যা কমবে ও রাজস্ব বৃদ্ধি পাবে।

রোববার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘তামাক কোম্পানির মৃত্যুবিপণন কূটকৌশল  ও আইন লঙ্ঘন : জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় আমাদের করণীয় শীর্ষক নীতি সংলাপ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন,  তামাক পণ্যের ক্ষেত্রে সরকারের সুনির্দিষ্ট পলিসি থাকা দরকার। ক্ষতিকর এ পণ্য অন্য দেশে রপ্তানি করে তাদের ক্ষতি করব কি না সেটিও বিবেচনায় আনা প্রয়োজন। এ ছাড়া শতকরা ১ ভাগ সার্জচার্জ আরোপে সরকারের এ খাত থেকে বছরে প্রায় ৪০০ কোটি টাকা আয় হবে।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের বেশিরভাগ মানুষ টিভি নাটক ও সিনেমা দেখেন। যদি সব নাটক সিনেমাতে ক্ষতিকর তামাক সম্পর্কে সচেতন করা যায় তাহলে এক সঙ্গে অনেক মানুষের কাছে এই বার্তা পৌঁছানো সম্ভব।
এসময় তিনি তামাক নিয়ন্ত্রণ সেলকে আরো শক্তিশালী করার সুপারিশও করেন।

বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার টেকনিক্যাল অফিসার ডা. মাহফুজুল হক বলেন, সরকারের রাজস্বে শতকরা ২০ শতাংশ তামাক কোম্পানিগুলো থেকে আসে। ফলে সরকার তামাক কোম্পানিগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করতে দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভোগে। তাই সরকারে প্রতি এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য আবুল কালাম মো আহসানুল হক চৌধুরী, সংসদ সদস্য নবী নেওয়াজ, ক্যাম্পেইন ফর ফ্রি টোবাকো কিডস’র (সিটিএফকে) কান্ট্রি ডিরেকটর তাইফুর রহমান প্রমুখ।

শেয়ারবাজারনিউজ:তু

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.