প্রথম দিনেই নূরানী ডাইংয়ে ১১০ শতাংশ মুনাফা

NURANI DYEING & SWEATER LTDশেয়ারবাজার রিপোর্ট: লেনদেনের শুরুর প্রথম দিনেই চমক দেখিয়েছে পুঁজিবাজারে সদ্য তালিকাভুক্ত হওয়া বস্ত্র খাতের কোম্পানি নূরানী ডাইং অ্যান্ড সোয়েটার লিমিটেড। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় দেশের উভয় শেয়ারবাজারে আনুষ্ঠিানিকভাবে শুরু হয় এ কোম্পানির লেনদেন।  আর লেনদেনের প্রথম দিনেই ১১০ শতাংশ মুনাফা পেয়েছেন এ কোম্পানির বিনিয়োগকারীরা। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বিশ্লেষণে দেখা গেছে, বৃহস্পতিবার ডিএসইতে নূরারী ডাইংয়ের শেয়ার দর বেড়েছে ১১ টাকা বা ১১০ শতাংশ। এদিন এ শেয়ারের দর ২৫ টাকায়  ওপেন হলেও সর্বশেষ লেনদেনটি হয় ২১ টাকায়। দিনভর এ কোম্পানির শেয়ার দর ২০.৪০ টাকা থেকে ২৭ টাকায় ওঠানামা করে। দিনশেষে এ কোম্পানির ১ কোটি ৪২ লাখ ৫৭ হাজার ২৪২টি শেয়ার মোট ২৩ হাজার ৬৯৬ বার হাত বদল হয়। যা টাকার অংকে লেনদেন হয় ৩১ কোটি ১৫ লাখ ১৩ হাজার টাকা।

এদিকে দিনশেষে সিএসইতে নূরানী ডাইংয়ের শেয়ার দর বেড়েছে ১০.৬০ টাকা বা ১০৬ শতাংশ। দিনভর এ কোম্পানির শেয়ার দর ২০.১০ টাকা থেকে ২৫ টাকা পর্যন্ত ওঠানামা করে এবং সর্বশেষ লেনদেনটি হয় ২০.৬০ টাকায়। দিনশেষে এ কোম্পানির মোট ৪১ লাখ ৯ হাজার ৯৬০টি শেয়ার মোট ৮ হাজার ৯৬০ বার হাত বদল হয়। যা টাকার অংকে লেনদেন হয় ৮ কোটি ৭৭ লাখ ৪ হাজার টাকা।

এন ক্যাটাগরির আওতায় লেনদেন শুরু করা নূরানী ডাইং অ্যান্ড সোয়েটার লিমিটেডের ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) কোম্পানি ট্রেডিং কোড  “NURANI”। আর কোম্পানি কোড “১৭৪৭৫”। আর সিএসইতে কোম্পানিটির কোড “১২০৬৩”।

এর আগে কোম্পানিটির আইপিও লটারিতে বরাদ্দ পাওয়া সিডিবিএলের মাধ্যমে গত বৃহস্পতিবার (২৫ মে) বিনিয়োগকারীদের নিজ নিজ বিও হিসাবে জমা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ২ মে সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে এ কোম্পানির আইপিওর লটারির ড্র শুরু হয়। আইপিওতে বিনিয়োগকারীরা ২৮ গুণ বেশি আবেদন করেছেন। আইপিও’র মাধ্যমে ৪ কোটি ৩০ লাখ শেয়ার বিক্রি করে মোট ৪৩ কোটি টাকার মূলধন সংগ্রহ করবে বস্ত্র খাতের কোম্পানিটি। এর বিপরীতে বিনিয়োগকারীরা সর্বমোট ১ হাজার ২০৯ কোটি টাকার শেয়ার পেতে আবেদন করেছেন। এ অবস্থায় নিয়ম অনুযায়ী লটারি করে আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ করা হয়।

এর আগে গত ২ থেকে ১০ এপ্রিল পর্যন্ত এ কোম্পানির আইপিওতে সকল প্রকার বিনিয়োগকারীরা আবেদন করেন।গত ৯ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫৯৭তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও আবেদন অনুমোদন দেয়া হয়।

জানা যায়, আইপিওতে কোম্পানিটি অভিহিত মূল্য ১০ টাকা দরে শেয়ার বিক্রি করবে। বাজারে ৪ কোটি ৩০ লাখ শেয়ার বিক্রি করে কোম্পানিটি ৪৩ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। আইপিওর টাকা দিয়ে কোম্পানিটি ব্যবসা সম্প্রসারণের পাশাপাশি ঋণ পরিশোধ করবে।

৩০ জুন, ২০১৬ সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৪.৩৭ টাকা। গত পাঁচ বছরে কোম্পানিটির গড় শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৭৯ টাকা।

কোম্পানিটির ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে ইম্পেরিয়াল ক্যাপিটাল ও সিএপিএম অ্যাডভাইজরি সার্ভিসেস।

শেয়ারবাজারনিউজ/এম.আর

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top