বিধ্বস্ত এয়ার এশিয়ার লেজ উদ্ধার

‍airasiaজাভা সাগরে বিধ্বস্ত এয়ার এশিয়ার বিমানটির লেজ উদ্ধার করেছে ইন্দোনেশিয়ার নৌবাহিনী। সমুদ্রপৃষ্ট থেকে বিমানটির লেজ টেনে উপরে আনতে ডুবুরিরা বিশেষ ধরনের যন্ত্র ব্যবহার করেছেন। বিমানটিতে ঠিক কী হয়েছিল জানতে ব্ল্যাকবক্সের খোঁজেও তল্লাশি চালানো হচ্ছে। ব্ল্যাকবক্সটি লেজের অংশ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে বলে কর্তৃপক্ষ ধারণা করছে।

উল্লেখ্য, মালয়েশিয়াভিত্তিক এয়ার এশিয়ার কিউজেড-৮৫০১ ফ্লাইটের এ-৩২০-২০০ এয়ারবাসটি স্থানীয় সময় ২৮ ডিসেম্বর স্থানীয় সময় ভোর ৫টা ৩৫ মিনিটে ইন্দোনেশিয়ার সুরাবিয়া থেকে সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে রওনা হয়। পথে জাভা সাগরে সকাল ৬টা ১৭ মিনিটে বিমানটির সঙ্গে সর্বশেষ যোগাযোগ করা সম্ভব হয়েছিল। বিমানটির ওই দিনই সকাল সাড়ে ৮টায় সিঙ্গাপুরে পৌঁছানোর কথা ছিল।

যোগাযোগ বিচ্ছিন্নের আগে বিমানটি ভূপৃষ্ঠের ৩২ হাজার ফুট উপর দিয়ে উড়ছিল। কিন্তু আকাশে মেঘ থাকায় বিমানচালক ৩৮ হাজার ফুট উপর দিয়ে ওড়ার অনুমতি চান। এর কয়েক মিনিট পর তাকে ৩৪ হাজার ফুট উপর দিয়ে ওড়ার অনুমতি দিয়ে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও আর সম্ভব হয়নি।

বিমানটিতে ১৫৫ যাত্রী, দুই বিমানচালক ও ৫ কেবিন ক্রুসহ মোট ১৬২ জন আরোহী ছিলেন। এর মধ্যে ১৮ শিশুও রয়েছে। আরোহীদের বেশিরভাগই ইন্দোনেশিয়ার নাগরিক। এ পর্যন্ত বিধ্বস্ত বিমানটির ৪৮ জন আরোহীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

উদ্ধারকারীরা ধারণা করছেন, বিমানটির মূল কাঠামোর মধ্যেই রয়েছে অধিকাংশ আরোহীর লাশ। তবে ওই অংশটি এখনো খুঁজে পাওয়া যায়নি। (সূত্র: বিবিসি)

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top