পরিকল্পিত দরপতনের কবলে বিনিয়োগকারীরা

bazarশেয়ারবাজার রিপোর্ট: টানা তিন কার্যদিবস ধরে পুঁজিবাজারে দরপতন চলছে। আর এই পরিকল্পিত দরপতনে বড় বিনিয়োগকারীরা শেয়ার কিনে নিচ্ছেন। কয়েকদিন বাজার ঊর্ধ্বমুখী থাকায় ভালোই লাভের মুখ দেখেছেন নিয়মিত বিনিয়োগকারীরা। তবে শেয়ার কিনেই যারা নিম্নমুখী বাজারের চিত্র দেখেছেন তাদের জন্য বিষয়টি সুখকর নয়।

সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে দেশের উভয় শেয়ারবাজারে সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় শেষ হয়েছে লেনদেন। এদিন শুরুতে উত্থান থাকলেও ৩২ মিনিট পর সেল প্রেসারে টানা নামতে থাকে সূচক। বুধবার সূচকের পাশাপাশি ৬৭.৫৮ শতাংশ বা ২২৩টি কোম্পানির শেয়ার দর কমেছে। তবে টাকার অংকে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। আজ দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৬৯ কোটি টাকা।

দিনশেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৪৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫৭৭৫ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৩১৪ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ২১২১ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৩০টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৮৬টির, কমেছে ২২৩টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২১টি কোম্পানির শেয়ার দর। যা টাকায় লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৬৯ কোটি ৫৮ লাখ ৯৮ হাজার টাকা।

এর আগে মঙ্গলবার ডিএসই ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৫৮১৯ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১৩২২ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ২১৩৪ পয়েন্টে। ওইদিন লেনদেন হয় ৯৬২ কোটি ২২ লাখ ৯৬ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১০৭ কোটি ৩৬ লাখ ০২ হাজার টাকা।

এদিকে দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ব্রড ইনডেক্স ৭৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১০ হাজার ৮৩৮ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৬৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৬৩টির, কমেছে ১৮৪টির ও দর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৭টির। যা টাকায় লেনদেন হয়েছে ৭১ কোটি ১৪ লাখ ২৯ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

Top