শেয়ারে বিনিয়োগের টাকা আপনার ফেরত পেতে কত সময় লাগবে?

dse-cseশেয়ারবাজার রিপোর্ট: আপনি যে শেয়ারটিতে বিনিয়োগ করলেন সেখান থেকে বিনিয়োগের টাকা ফেরত পেতে আপনার কত সময় লাগবে সেই হিসাব সহজেই করে ফেলুন। শেয়ারের মূল্য আয় অনুপাত (পি/ই) দেখুন। এটা ২০ এর কম হওয়া ভালো। পিই রেশিও যত কম হয়, বিনিয়োগে ঝুঁকি তত কম। মূল্য আয় অনুপাত হচ্ছে একটি কোম্পানির শেয়ার তা আয়ের কতগুন দামে বিক্রি হচ্ছে তার একটি পরিমাপ।

কোনো কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) যদি হয় ৫ টাকা, আর বাজারে শেয়ারটির দাম থাকে ৪৫ টাকা তাহলে মূল্য-আয় অনুপাত হবে (৪৫/৫) অর্থাৎ ৯। এর অর্থ কোম্পানিটি যদি তার আয়ের পুরোটা লভ্যাংশ হিসেবে বিতরণ করে দেয় তাহলে বিনিয়োগকৃত অর্থ ফেরত পেতে ৯ বছর সময় লাগবে। কিন্তু শেয়ারটির বাজার মূল্য যদি হতো ১০০ টাকা তাহলে মূল্য আয় অনুপাত বা পিই রেশিও দাঁড়াতো ২০ (১০০/৫)। অর্থাৎ কোম্পারি আয়ের ধারা অপরিবর্তিত থাকলে বিনিয়োগ ফেরতে ২০ বছর সময় প্রয়োজন।

এখন শেয়ার মার্কেটেতো প্রতিদিনই পি/ই পরিবর্তন হচ্ছে। একটা হচ্ছে বাৎষরিক আরেকটি কারেন্ট মানে চলতি।

কিভাবে পি/ই রেশিও বের করবেন?

ধরুন, লাফার্জ সুরমা সিমেন্টের বর্তমান শেয়ার দর ৬২.১০ টাকা। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ সমাপ্ত অর্থবছরে কোম্পানিটির ‍শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৯২ টাকা। এখন ইয়ারলি অর্থাৎ বাৎষরিক পিই বের করতে হলে শেয়ার দরকে ইপিএস দিয়ে ভাগ করুন (৬২.১০/১.৯২) অর্থাৎ ৩২.৩৪। এবার কারেন্ট অর্থাৎ চলতি পি/ই রেশিও বের করে ফেলুন। কারেন্ট পি/ই সময় কোম্পানিটির সর্বশেষ প্রকাশিত প্রান্তিক প্রতিবেদনের ইপিএসের ওপর ভিত্তি করে বের করতে হয়। যেমন: লাফার্জ সুরমার বর্তমান শেয়ার দর ৬২.১০। কোম্পানিটির সর্বশেষ প্রকাশিত অর্ধবার্ষিকে ইপিএস দেখিয়েছে ০.১৯ টাকা। এখন এর পিই হবে (৬২.১০/০.১৯)* ০.৫০= ১৬৩.৪২।

মনে রাখতে হবে, প্রান্তিকের ইপিএস দিয়ে পি/ই রেশিও বের করতে চাইলে অবশ্যই শেয়ার দরের সঙ্গে ইপিএস ভাগ দিয়ে তার সঙ্গে যেই প্রান্তিক হবে অর্থাৎ প্রথম প্রান্তিক হলে ০.২৫, অর্ধবার্ষিক হলে ০.৫০ এবং তৃতীয় প্রান্তিক হলে ০.৭৫ দিয়ে গুন করতে হবে।

যদিও স্টক এক্সচেঞ্জের ওয়েবসাইটে প্রতিটি কোম্পানির পি/ই রেশিও বের করেই দেয়া থাকে তবু বিষয়টি শিখে রাখা ভালো। আর অবশ্যই মনে রাখবেন যেহেতু প্রতিদিন স্টক এক্সচেঞ্জে শেয়ারের দর উঠানামা করে তাই প্রতিদিনই পি/ই রেশিও চেঞ্জ হবে। আর এই পি/ই রেশিও যে কোম্পানির যত কম সেখানে বিনিয়োগের ঝুঁকিও তত কম।

অবশ্য ৪০ এর উপরে পি/ই রেশিও সম্পন্ন কোম্পানিতে বিনিয়োগে আমাদের স্টক এক্সচেঞ্জে কোনো মার্জিন ঋণের সুবিধা পায় না।

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

*

*

Top