দীর্ঘস্থায়ী স্থিতিশীলতায় আইসিবি’র ভূমিকা অত্যন্ত জরুরি

investorআমাদের শেয়ার বাজারে  ২০১০ সালে মহাধসের পর দীর্ঘ সাত বছর হয়ে গেল তবুও এখন পযন্ত বাজারে দীর্ঘস্থায়ী স্থিতিশীলতা স্থাপিত হলো না। সরকারের শীর্ষ পর্যায় থেকে সংশ্লিষ্ট নীতিনির্ধারণী মহলকে  দ্বায়িত্ব দেওয়া আছে  বাজার স্থিতিশীল ও গতিশীল রাখার । ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে ও বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনও বাজারে দীর্ঘস্থায়ী স্থিতিশীলতার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন। তবু কেন যেন কোথাও একটা শুন্যতা বিরাজ করছে।

আর আমরা সকল শ্রেনীর বিনিয়োগকারীরা এর জন্য ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। আমরা সাধারন বিনিয়োগকারীরা মনে করি এই সমস্যা কোন বড় সমস্যা নয়। আর এর জন্য প্রয়োজন ২ থেকে ৩ টি যুগান্তকারী সিদ্বান্ত নেওয়া যার মধ্যে একটি সিদ্বান্ত নিতে হবে ইনভেষ্টর করপোরেশন অব বাংলাদেশ বা আইসিবিকে। শুধু প্রতিষ্ঠানের বেশী লাভের আশায় নয় সামাজিক দায়বদ্ধতাকেও এক্ষেত্রে নজর দিতে হবে । আর এর  জন্য আইসিবিকে যে সিদ্বান্ত নিতে হবে তা হল আইসিবির শেয়ার কেনাবেচার জন্য পুনরায় নতুন ভাবে একটি শেয়ার বাজার ক্রয়-বিক্রয় কমিটি গঠন করতে হবে। যার নাম দিতে হবে শেয়ার স্থিতিশীলতা কমিটি যার প্রধান থাকবে এমডি । যার প্রধান কাজ হবে নতুন ভাবে কমপরিকল্পনা গ্রহন পূর্বক বাজারকে স্হায়ী স্থিতিশীলতার পথে নিয়ে আসা এবং এই কমিটির প্রতিদিনের বাজার মনিটরিং করবে। স্বয়ং এমডি এবং CEO কে এভাবে  প্রতিদিনের বাজারের তদারকি করতে হবে ।

আইসিবি চাইলেই পারে আমার উল্লেখিত দ্বায়িত্ব গুলো বজায় রাখতে। কারন তাদের যা ইকুইটি রয়েছে তাদের পক্ষে এটা করা সম্ভব। শুধু প্রয়োজন নতুন এমডির বলিষ্ঠ উদ্যোগ। প্রয়োজনে স্থিতিশীলতা কমিটিকে একটি নিজস্ব DSE ট্রেড স্টেশন নিতে হবে।  বাজার মনিটরিং করার ক্ষেত্রে যে কর্মকর্তা  DSE ট্রেড স্টেশনে বসে ট্রেড করবে সে যেন কোন রকম স্বেচ্ছাচারিতা বা ব্যাক্তিক ও পারিবারিক লাভের সুযোগ না নিতে পারে সে দিকটাও নজর দিতে হবে।

এখন সময় এসেছে এগুলো নতুন করে ভাবার কারন এই অল্প কয়েকদিন হল  ICB এর নতুন এমডি মহোদয় যোগ দিলেন। যদি তিনি দেশের শেয়ার বাজারের সাধারন বিনিয়োগকারী এবং সকলের স্বার্থ দেখতে চান তাহলে তার উচিত তার CEO থেকে শুরু করে শেয়ার ক্রয়-বিক্রয় কমিটির সকল সদস্য কে নিয়মিত মনিটরিং করা। প্রতিদিনের বাজার দেখা, প্রয়োজনে নতুন কমিটি গঠন পূর্বক প্রতিদিনের ট্রেড পর্যবেক্ষন করা। আর আইসিবি এই কাজগুলো করলে ১০০% নিশ্চিত আমাদের দেশের শেয়ার বাজার স্তিতিশীল হবে।

তাই ICB এর নতুন মাননীয়  MD মহোদয়ের কাছে আমাদের নিবেদন, আপনি বিষয়টি গভীর ভাবে উপলব্ধি করে দেশের ক্ষতিগ্রস্ত তথা সকল ধরনের বিনিয়োগকারীদেরকে একটি সুন্দর বাজার করার প্রয়াস নিন এবং বাংলাদেশের শেয়ার বাজারে আপনার মর্যাদা হিরোর মতন তথা সকল বিনিয়োগকারীর জন্যে এক যুগান্তকারী ইতিহাস রচনা করুন। এক্ষেত্রে আপনার কাছে অনেক বাধা আসলেও আপনি সৎ নিষ্ঠাবান এবং যতদিন MD থাকবেন ততদিন  প্রতিদিন বাজার মনিটরিং করুন। তাহলে আপনার সিদ্বান্ত নেবার পর থেকেই বাজারে দীর্ঘস্থায়ী স্থিতিশীলতা ও বাজার গতিশীল এবং স্থিতিশীল হতে বাধ্য।

লেখক ও গবেষকঃ মোঃ আব্দুল মতিন চয়ন

গ্লোব সিকিউরিটিজ রাজশাহী শাখা ও ICML রাজশাহী শাখা ।

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

*

*

Top