রোহিঙ্গাদের মেডিকেল সার্ভিস দিচ্ছে বিজিবি

medical-camp-rohingyawbশেয়ারবাজার ডেস্ক: মিয়ানমান থেকে পালিয়ে চলে আসা রোহিঙ্গাদের মেডিকেল সার্ভিস দিচ্ছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। ইতিমধ্যে হাজার হাজার নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে আটকে পড়া এবং বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় রোহিঙ্গাদের জন্য মেডিকেল ক্যাম্প বসানো হয়েছে। গত ছয়দিন ধরে সহস্রাধিক রোহিঙ্গা তামব্রু ক্যানেলে আটকে রয়েছে। বিজিবির অনুরোধেই তারা খাদ্য ও পানির জন্য ক্যানেল পাড় হয়ে আসছে। প্রতিদিন কমপক্ষে ২০০ থেকে ৩০০ রোহিঙ্গা মেডিকেল ক্যাম্প থেকে বিনামূল্যে চিকিৎসা নিচ্ছে।

এ বিষয়ে ঐখানে চিকিৎসা প্রদান ডা: মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ জানান, তারা রোহিঙ্গাদের বিনামূল্যে চিকিৎসা দিচ্ছে। বেশিরভাগ মহিলা ও শিশু রোগী। তারা জ্বর,ঠান্ডা, ডায়রিয়া, কাটা ছেড়া ইত্যাদি সমস্যায় জর্জরিত।

এদিকে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়নের চাকঢালা ও আশারতলি সীমান্তের নো ম্যানস ল্যান্ডে গত পাঁচ দিনে হাজার হাজার রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছে। তারা ছয়টি সীমান্ত পয়েন্টে পাহাড়ে পলিথিন টাঙিয়ে আছে। খেয়ে না খেয়ে, পানীয় জলের সংকটে অমানবিক অবস্থায় রয়েছে তারা। প্রতিদিন সেখানে রোহিঙ্গারা আসছে।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) নাইক্ষ্যংছড়ির ৩১ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক ও কক্সবাজারের ভারপ্রাপ্ত সেক্টর কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল আনোয়ারুল আজিম বলেছেন, ছয়টি আশারতলি ও চাকঢালা সীমান্তে প্রায় ১০ হাজার রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছে। নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা প্রশাসনের আয়োজিত বিশেষ আইনশৃঙ্খলা সভায় তিনি এ তথ্য জানিয়েছেন।
নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা সদর থেকে আট কিলোমিটার দূরে চাকঢালা সীমান্তের বড় শনখোলা এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, সেখানে দুর্গম পাহাড়ে কয়েক হাজার রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছেন। হাঁটা ছাড়া সেখানে যাওয়া যায় না। বিজিবি সেখানে কাউকে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না জানালেও প্রতিনিয়ত কক্সবাজারের রামু, গর্জনিয়া, কচ্ছপিয়া ও নাইক্ষ্যংছড়ি সদর থেকে শত শত লোকজন রোহিঙ্গা শিবিরে যাওয়া-আসা করছে। বান্দরবানের জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক ও পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় ওই রোহিঙ্গা শিবির দেখতে যান। কিন্তু তাঁরা দূরে থেকে দেখে ফিরে আসেন এবং সাংবাদিকদেরও রোহিঙ্গা শিবিরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি।

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top