ইনডেক্স নিয়ে বাজারে অসুস্থ প্রতিযোগিতা হচ্ছে

Editorial

আমাদের দেশের বেশির ভাগ মানুষ ইনডেক্সকে কেন্দ্র করে শেয়ার বেচা-কেনা করে। ইনডেক্স নামতে দেখলেই হাতের শেয়ার বিক্রি করে, আবার ইনডেক্স বাড়তে দেখলেই শেয়ার কেনা শুরু করে। আমাদের বিনিয়োগকারীদের এই আচরণকে পুঁজি করে একটি পক্ষ ইনডেক্স নিয়ে শুক্ষ কারচুরি করছে।যা একটু ঠাণ্ডা মাথায় চিন্তা করলেই বোঝা যায়।
.
ব্যাংকের শেয়ার গুলো ইনডেক্সকে প্রভাবিত করে। আর তাই ব্যাংক গুলো ডিসেম্বর closing হওয়া সত্ত্বেও একটি পক্ষ অত্যন্ত চতুরতার সাথে আগস্ট মাসে এসে অধিকাংশ ব্যাংকের দাম বৃদ্ধি করে ইনডেক্সকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে। ভাবখানা এমন যেন বাজার ৬০০০ ইনডেক্স গেলেই স্বাধীন হয়ে যাবে। একটি কথা ভুলে গেলে চলবেনা। ইনডেক্স কোন অর্জন করার বিষয় না। স্বাধীনতা অর্জন করার চেয়ে রক্ষা করা কঠিন। তেমনি ইনডেক্স উঠালেই চলবেনা ইনডেক্সকে ধরে রাখতে হবে।
.
✍️ এবার মূল কথায় আসা যাকঃ
=======================
দুষ্টু চক্রটি ব্যাংক গুলোর দাম উঠিয়ে রেখে বিনিয়োগকারীদের ইনডেক্স দিয়ে শান্তনা দিচ্ছে। কিন্তু মুদ্রার অন্য পিঠ আরও ভয়ংকর। ব্যাংক দিয়ে চোখে ধুলা দিচ্ছে আর দাম বাড়ছে Z এবং B ক্যাটাগরির। কিছু শেয়ারের ১ মাস আগের দাম আর বর্তমান দাম দেখলে রীতিমত চমকে উঠবে অনেকেই। নিম্নে কিছু পরিসংখ্যান তুলে ধরা হল।
# KAY&QUE (Z ক্যাটাগরি) মাস ২ আগেও দাম ছিল ৪০ টাকা এখন দাম ১৬০ টাকা।দাম বেড়েছে প্রায় ৩০০%
# MONNOCERA (B ক্যাটাগরি) ১২ দিন আগেও দাম ছিল ৪৩ টাকা এখন ১০০ টাকা। ১২ দিনে দাম বেড়েছে প্রায় ১৫০%
# ISNLTD (Z ক্যাটাগরি) ১ মাস আগে দাম ছিল ১৭ টাকা এখন প্রায় ২৫ টাকা
# SHURWID (Z ক্যাটাগরি) ৩ মাস আগে দাম ছিল ৮ টাকা এখন প্রায় ১৭ টাকা। দাম বেড়েছে প্রায় ১০০%
# LEGACYFOOT (Z ক্যাটাগরি) ৩ মাস আগে দাম ছিল ২০ টাকা এখন প্রায় ৪৫ টাকা। দাম বেড়েছে ১০০% এর উপরে।
# FINEFOODS (B ক্যাটাগরি) ২ মাস আগে দাম ছিল ২৫ টাকা এখন প্রায় ৫০ টাকা। দাম বেড়েছে প্রায় ১০০%
# DULAMIACOT (Z ক্যাটাগরি) মাস ২ আগেও দাম ছিল ৮ টাকা এখন দাম ২১ টাকা।দাম বেড়েছে ১৫০% এর উপর।
# MEGCONMILK (Z ক্যাটাগরি) মাস ২ আগেও দাম ছিল ৯ টাকা এখন দাম ১৮ টাকা।দাম বেড়েছে ১০০% এর উপর।
# ZEALBANGLA (Z ক্যাটাগরি) মাস ৪ আগেও দাম ছিল ২৫ টাকা এখন দাম ৬১ টাকা।দাম বেড়েছে ১০০% এর উপর।
# IMAMBUTTON (Z ক্যাটাগরি) মাস ৩ আগেও দাম ছিল ১৪ টাকা এখন দাম ২৬ টাকা।দাম বেড়েছে ১০০%
.
✔️ উপরে ১০ টি Z এবং B ক্যাটাগরির শেয়ারের অবস্থান তুলে ধরা হল। এছাড়াও অন্যান্য যে সকল Z এবং B ক্যাটাগরির শেয়ারের রয়েছে সে গুলোর চিত্রও একই। শেয়ার গুলোর পেছনে যে দুষ্টু চক্র জড়িত এতে কোন সন্দেহ নেই। এই শেয়ার গুলো বিনিয়োগকারীদের Hypnosis (সম্মোহন) করে ফেলে। এই ধরনের শেয়ার গুলোর পেছেনে মুলত ২ থেকে ৩ টি দুষ্টু চক্রের গ্রুপ জড়িত থাকে যারা নিজেদের মধ্যে শেয়ার নিজেরাই বেচা-কেনা করে দাম বাড়াতে থাকে আর বিনিয়োগকারীদের প্রলুভদ্ধ করতে থাকে। এই ধরনের শেয়ার কিনে বিনিয়োগকারীরা সাধারণত ঘোরের মধ্যে থাকে। যতদিন বিনিয়োগকারীরা ঘোরের মধ্যে থাকবে তত দিন ঠিক আছে। কিন্তু ঘোর কেটে গেলেই সব কিছু শুন্য শুন্য মনে হবে।
.
💥 Z এবং B ক্যাটাগরির শেয়ার গুলো থেকে বিনিয়োগকারীদের সাবধান থাকতে হবে। তাছাড়া যারা নিয়ন্ত্রণ সংস্থার দায়িত্বে আছেন তাদেরও এই বিষয় গুলো খুবই গুরুত্তেও সাথে দেখতে হবে। দুষ্টু চক্রের রোষানলে পড়ে যেন কেও সর্বস্বান্ত না হয় সে দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। Z এবং B ক্যাটাগরির শেয়ার গুলো সাধারনত কাগজে কলমে ভালো লাভ দেখায় কিন্তু এই ধরনের শেয়ার গুলো কাগজ কলম থেকে টাকায় রুপান্তরিত করা খুব কঠিন। আর একবার যদি এই ধরনের শেয়ার গুলোর উপর খড়গ চলে আসে তাহলে বিক্রি করাই কঠিন হয়ে যায়। ধরেন কোন কারনে Z ক্যাটাগরির কোন শেয়ারের লেনদেন নিয়ন্ত্রণ সংস্থা বন্ধ করে দিল সে ক্ষেত্রে এই ধরনের শেয়ার গুলোর ২ থেকে ৩ দিন ক্রেতা খুজে পাওয়াই কঠিন হয়ে যাবে। ধন্যবাদ।

তানভীর আহমেদ

উত্তরা, ঢাকা।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

*

*

Top