কখন বিনিয়োগকারীদের শেয়ার অনুমতি ছাড়াই হাউজ বিক্রি করে দেয়

Financial-Litaracy-1শেয়ারবাজার রিপোর্ট: অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় সিকিউরিটিজ বা মার্চেন্ট ব্যাংক বিনিয়োগকারীদের পোর্টফলিওতে থাকা শেয়ার গ্রাহকের অনুমতি ছাড়াই জোরপূর্বক বা ফোর্সসেল করে থাকে। এখন জানার বিষয় হচ্ছে কখন হাউজ বিনিয়োগকারীদের অনুমতি ছাড়াই শেয়ার বিক্রি করে দেয়। ধরুন, আপনি ১০০ টাকা জমা দিয়ে শেয়ার ক্রয়ের উদ্দেশ্যে একটি বিও অ্যাকাউন্ট খুললেন এবং ১:১ অনুপাতে আরো ১০০ টাকা ঋণ নিলেন। এক্ষেত্রে ঋণসহ আপনি মোট ২০০ টাকার শেয়ার ক্রয় করলেন। পরবর্তীতে মার্কেট খারাপ হওয়ার কারণে আপনার পোর্টফলিওতে থাকা শেয়ারের দর ১৫০ টাকায় নেমে এলো। তখন মার্জিন রুলস অনুযায়ী হাউজ আপনাকে মার্জিন কল করবে। দেখা গেছে, আপনি হাউজে টাকা জমা দিলেন না এবং পরবর্তীতে ঐ শেয়ারের বাজার মূল্য ২০০ টাকা থেকে কমে ১২৫ টাকায় নেমে এলো। তখন হাউজ আপনার সম্মতি ছাড়াই উক্ত শেয়ার বিক্রি করে তার দেয়া ঋণ সমন্বয় করে ফেলবে। তখন দেয়া যায়, হাউজ ঋণ ও ঋণের চক্রবৃদ্ধির সুদসহ কেটে বাকি টাকা আপনার অ্যাকাউন্টে রেখে দেয়। এক্ষেত্রে দেয়া যায়, আপনি যে পরিমাণ পুঁজি নিয়ে মার্কেটে এসেছেন তার কিছুই নেই। এমনও সময় আসে যে হাউজ উল্টো আপনার কাছ থেকে টাকা পায়। ইক্যুইটি মাইনাসে চলে আসে। তখন বিনিয়োগকারীদের আর কোনো গতি থাকে না।

উপরোক্ত বিষয়গুলো মার্জিন রুলস,১৯৯৯ এর রুল ৩(৫) এ বলা হয়েছে। যদিও এই আইনটি বর্তমানে স্থগিত রাখা হয়েছে। তাই নিজের পুঁজি আগলে রাখতে ঋণ থেকে যত দূরে থাকা যায় ততই মঙ্গল। আপনার যে পরিমাণ পুঁজি রয়েছে তাই ধাপে ধাপে বিনিয়োগ করলে লোকসান হওয়ার ঝুঁকি কম থাকে। এটাই উত্তম বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন।

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

*

*

Top