পাকিস্তানে গিয়ে যা বললেন আফ্রিদি

afridi01শেয়ারবাজার ডেস্ক: ১৯৯৯ বিশ্বকাপের পর থেকে বাংলাদেশের বিপক্ষে টানা ১৬ বছর অপরাজেয় ছিল পাকিস্তান। এবার কিনা সেই বাংলাদেশের কাছেই মাত্র কয়েক দিনের ব্যবধানে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে ধবলধোলাইয়ের লজ্জায় পড়তে হলো পাকিস্তানিদের। পাকিস্তানের সমর্থকরা দলের এই ব্যর্থতা কিছুতেই মেনে নিতে পারেননি। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে সফল মিশনের পর এবার টাইগারদের সামনে টেস্ট ম্যাচ।

কোচ, বোর্ড-কর্তা ও খেলোয়াড়দের মুণ্ডপাত চলছে প্রথম ওয়ানডে হারার পর থেকেই। তবে দলের খারাপ এই সময়ে সমালোচনা নয় বরং সবাইকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়েছেন শহিদ আফ্রিদি। পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়কের মতে, সময় দিলে এই দলটিই একদিন দুর্দান্ত খেলবে।

আফ্রিদি একমাত্র টি-টোয়েন্টি খেলতে বাংলাদেশে এসে হারের স্বাদ নিয়ে দেশে ফিরেছেন। দেশে ফিরে ৩৫ বছর বয়সি এই অলরাউন্ডার বলেছেন, ‘সবার জীবনেই উত্থান-পতন আছে। ধরে নিন, এই সময়টা পাকিস্তান ক্রিকেটের পতনের সময়।’ বাংলাদেশের বিপক্ষে পরপর চার ম্যাচ হারাটা পাকিস্তান ক্রিকেটের ‘সবচেয়ে কঠিন’ সময় উল্লেখ করে দেশবাসীকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়েছেন আফ্রিদি।

স্বাগতিক বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দুই সিরিজেই ব্যক্তিগতভাবে মাঝে মাঝে ঝলক দেখালেও দলগতভাবে কখনোই দাঁড়াতে পারেনি পাকিস্তান। এর ফলে বড় হারের সাক্ষী হয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের। তবে আফ্রিদির বিশ্বাস, সময় দিলে এই দলই একদিন ঘুরে দাঁড়াবে। এ বিষয়ে বলেছেন, ‘আমরা অনেক কিছুই বিচার-বিশ্লেষণ করে দেখছি। পাকিস্তান দলের এই খেলোয়াড়দের প্রতি আমার যথেষ্ট আস্থা আছে। বিশ্বাস করুন, এই দলটিই ভবিষ্যতে অনেক ভালো করবে। এরা আমাদের ভবিষ্যতের তারকা।’

উল্লেথ্য, গত বিশ্বকাপে ওয়ানডে ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়ে দিয়েছেন আফ্রিদি। এই ক্রিকেটার ব্যর্থতার এই ঊর্ধ্বমুখী গ্রাফটা আঁকড়ে ধরে বসে থাকতে চান না। তিনি বলেছেন, ‘হ্যাঁ, মানছি অনেক ভুল আছে এই দলের। কিন্তু ভুল এড়িয়ে গেলে কীভাবে হবে। আমাদের সবাইকে এই ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করেই সামনে এগিয়ে যেতে হবে।’

শেয়ারবাজারনিউজ/রা

আপনার মন্তব্য

Top