ডিসেম্বরের শেষ দিকে আসছে শৈত্যপ্রবাহ

Watherশেয়ারবাজার ডেস্ক: দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের উপর দিয়ে চলতি মাসের (ডিসেম্বর) শেষের দিকে শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। একই সঙ্গে রাতের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে কম থাকতে পারে বলেও পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে।

দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসে আবহাওয়া অধিদপ্তরের গঠিত বিশেষজ্ঞ কমিটি এ তথ্য জানিয়েছে। গতকাল রোববার আবহাওয়া অধিদপ্তরে কমিটির বৈঠক হয়। অধিদপ্তরের পরিচালক ও বিশেষজ্ঞ কমিটির চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন আহমেদের এতে সভাপতিত্ব করেন। সোমবার সকালে সাংবাদিকদের তিনি এসব তথ্য জানান।

সামছুদ্দিন আহমেদ বলেন, ডিসেম্বরের শেষার্ধে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে এক থেকে দুটি মৃদু (৮ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস) বা মাঝারি (৬ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস) শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। এ ছাড়া চলতি মাসে বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হয়ে তা নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে জানিয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক বলেন, ডিসেম্বরে প্রথমার্ধে রাতের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি এবং মাসের শেষার্ধে রাতের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে কম থাকতে পারে। দীর্ঘ মেয়াদী পূর্বাভাসে বলা হয়, ডিসেম্বর মাসে দেশে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হতে পারে। এ মাসে শেষ রাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের উত্তরাঞ্চল ও নদ-নদী অববাহিকায় মাঝারি বা ঘন কুয়াশা এবং অন্যত্র হালকা বা মাঝারি কুয়াশা পড়তে পারে। এ ছাড়া দেশের প্রধান নদ-নদী সমূহে পানি প্রবাহ স্বাভাবিক থাকবে।

এবার শীতকালে আবহাওয়ার তেমন কোনো বড় অস্বাভাবিকতা দেখছেন না উল্লেখ করে শামছুদ্দিন আহমেদ বলেন, অগ্রহায়ণের শুরুর দিকে যে বৃষ্টিটা হয়েছিল সেটা নিয়ে একটু দুশ্চিন্তা ছিল আমাদের। কারণ খনার বচন আছে- (বৃষ্টি) যদি হয় অগ্রাণে/রাজা নামে মাগনে। অর্থাৎ রাজাকে ভিক্ষাবৃত্তিতে নামতে হয়, ফসল নষ্ট হয়ে যায়। আবার আছে- (বৃষ্টি) যদি হয় মাঘের শেষ,ধন্যি রাজার পুণ্যি দেশ। মাঘের শেষে বৃষ্টি হলে ইতিবাচক প্রভাব থাকে। তবে অগ্রহায়ণের শুরুর বৃষ্টিটি থাকেনি। এটা খাদ্য উৎপাদনের নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারেনি -বলেন পরিচালক।

এদিকে সোমবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। এ ছাড়া শেষরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদী অববাহিকায় কোথাও কোথাও হালকা কুয়াশা পড়তে পারে। সকালে আজ দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল শ্রীমঙ্গলে ১১ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৬ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতকাল রোববার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল টেকনাফে ৩০ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

*

*

Top