মৌলভিত্তি থেকে ছিটকে গেলো ৮ কোম্পানি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৮ কোম্পানি তাদের ক্যাটাগরি ধরে রাখতে পারেনি। গত অর্থবছরে এসব কোম্পানি ‘এ’ ক্যাটাগরির আওতায় মৌলভিত্তি কোম্পানি হিসেবে স্থান করে নিয়েছিল। কিন্তু চলতি বছর ৪ কোম্পানি কোনো প্রকার ডিভিডেন্ড না দিয়ে মৌলভিত্তি থেকে ছিটকে পড়েছে। এছাড়া আরো ৪টি কোম্পানি ১০ শতাংশের নিচে ডিভিডেন্ড দিয়ে মৌলভিত্তি ধরে রাখতে পারেনি।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, চলতি বছর ‘এ’ ক্যাটাগরি থেকে ৮ কোম্পানিকে বের করে দেয়া হয়েছে। কোম্পানিগুলো হলো: আরামিট সিমেন্ট, বিডি থাই, সিএনএ টেক্সটাইল, সি্যিভও পেট্রো, মিথুন নিটিং, দ্য পেনিনসুলা চিটাগাং, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিকস এবং ইয়াকিন পলিমার লিমিটেড।

আরামিট সিমেন্ট গত অর্থবছরে ১২ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড দিয়ে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে স্থান নিলেও চলতি ৩০জুন,২০১৭ সমাপ্ত অর্থবছরে কোনো ডিভিডেন্ড ঘোষণা না করে ‘জেড’ ক্যাটাগরিতে চলে এসেছে।

বিডি থাই এ্যালমুনিয়াম গত অর্থবছরে ৫ শতাংশ ক্যাশ ও ১০ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড দিয়ে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে স্থান নিলেও চলতি ৩০জুন,২০১৭ সমাপ্ত অর্থবছরে ৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড দিয়েছে। যে কারণে কোম্পানিটিকে ‘এ’ ক্যাটাগরি থেকে নামিয়ে ‘বি’ ক্যাটাগরিতে দেয়া হয়েছে।

সিএনএ টেক্সটাইল গত অর্থবছরে ১০ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড দিয়ে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে স্থান নিলেও ৬ মাসের বেশি উৎপাদন না থাকায় কোম্পানিটিকে ‘জেড’ ক্যাটাগরিতে নামিয়ে দেয়া হয়। উল্লেখ্য, এখনো পর্যন্ত কোম্পানিটি ৩০জুন,২০১৭ সমাপ্ত অর্থবছরে ডিভিডেন্ড সংক্রান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি।

সিভিও পেট্রোকেমিক্যাল গত অর্থবছরে ২৫ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড দিয়ে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে স্থান নেয়। কিন্তু পরবর্তীতে ৬ মাসের বেশি উৎপাদন বন্ধ থাকায় কোম্পানিটিকে ‘জেড’ ক্যাটাগরিতে নামিয়ে দেয়া হয়। উৎপাদন চালু হলে পুনরায় কোম্পানিটিকে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে উন্নীত করা হয়। কিন্তু চলতি ৩০জুন,২০১৭ সমাপ্ত অর্থবছরে কোম্পানিটি মাত্র ২ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড ঘোষণা করে। আগামী ২৭ ডিসেম্বর কোম্পানিটির বার্ষিক সাধারন সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠিত এজিএমে শেয়ারহোল্ডারদের মাধ্যমে ডিভিডেন্ড অনুমোদন এবং নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীদের অ্যাকাউন্টে ডিভিডেন্ড পৌছে গেলে সিভিওকে ‘বি’ ক্যাটাগরিতে নামিয়ে দেয়া হবে।

মিথুন নিটিং গত অর্থবছরে ২০ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড দিয়ে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে স্থান নিলেও চলতি ৩০জুন,২০১৭ সমাপ্ত অর্থবছরে কোনো ডিভিডেন্ড ঘোষণা না করে ‘জেড’ ক্যাটাগরিতে চলে এসেছে।

দ্য পেনিনসুলা চিটাগাং গত অর্থবছরে ১০ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড দিয়ে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে স্থান নিলেও চলতি ৩০জুন,২০১৭ সমাপ্ত অর্থবছরে ৫ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড দিয়েছে। যে কারণে কোম্পানিটিকে ‘এ’ ক্যাটাগরি থেকে নামিয়ে ‘বি’ ক্যাটাগরিতে দেয়া হয়েছে।

স্ট্যান্ডার্ড সিরামিকস গত অর্থবছরে ১০ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড দিয়ে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে স্থান নিলেও চলতি ৩০জুন,২০১৭ সমাপ্ত অর্থবছরে কোনো ডিভিডেন্ড ঘোষণা না করে ‘জেড’ ক্যাটাগরিতে চলে এসেছে।

ইয়াকিন পলিমার গত অর্থবছরে ১০ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড দিয়ে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে স্থান নিলেও চলতি ৩০জুন,২০১৭ সমাপ্ত অর্থবছরে ৫ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড দিয়েছে। যে কারণে কোম্পানিটিকে ‘এ’ ক্যাটাগরি থেকে নামিয়ে ‘বি’ ক্যাটাগরিতে দেয়া হয়েছে।

 

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top