বাজেট প্রস্তাবনায় পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষকে গুরুত্ব দিতে হবে

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: আগামী বাজেট প্রস্তাবনা (২০১৮-১৯) তৈরির সময় পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষ একসাথে মত বিনিময় করে সমন্বিত বাজেট প্রস্তাব পেশ করার জন্য গুরুত্ব দিতে বলেছেন বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমবিএ) নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাসিরউদ্দিন চৌধুরী। আজ মঙ্গলবার প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানদের সংগঠন বিএমবিএ’র নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাসিরউদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বে আট সদস্যের প্রতিনিধিদল ডিএসই’র ব্যবস্থাপনা কতৃপক্ষের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে এ প্রস্তাব দেন।

মোহাম্মদ নাসিরউদ্দিন চৌধুরী প্রস্তাব করেন, বাজেট প্রস্তাবনা তৈরির সময় পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষ একসাথে মত বিনিময় করে একটি সমন্বিত বাজেট প্রস্তাব পেশ করার। এ বিষয়ে তিনি গুরুত্বারোপ করেন।

তিনি আরো বলেন, পুঁজিবাজারে সকলে সকলের পরিচিত। এ সংগঠন শুধু মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশন নয় এটি হলো ক্যাপিটাল মার্কেট পার্টিসিপেন্টস। পুঁজিবাজারে সকলের পারস্পরিক সহযোগিতার মাধ্যমে কাজ করা যায় তবে তা পুঁজিবাজারের জন্য ইতিবাচক ফল বয়ে আনবে।

তিনি আরও বলেন, বাজারের স্বার্থে বিএমবিএ ডিএসই’র সাথে একত্র হয়ে কাজ করবে। চাহিদা ও সরবরাহের গুরুত্ব বিবেচনা করে বাজারে ভালো মৌলভিত্তি সম্পন্ন কোম্পানিকে অন্তর্ভুক্ত করে বাজারের গভীরতা বাড়াতে ডিএসই ও বিএমবিএ নিবিড়ভাবে কাজ করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এ সময় ডিএসই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক কে.এ.এম. মাজেদুর রহমান বলেন, পুঁজিবাজারের গতিশীলতার জন্য প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর বিকল্প নেই। একটি গতিশীল বাজার গড়ে তুলতে পুঁজিবাজারে মার্চেন্ট ব্যাংকের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। পুঁজিবাজারের উন্নয়নে বিশেষ করে ভালো মৌলভিত্তি সম্পন্ন কোম্পানি তালিকাভুক্ত করতে মার্চেন্ট ব্যাংকগুলোর বিশাল দায়িত্ব রয়েছে। ডিএসই ও মাচের্ন্ট ব্যাংক বাংলাদেশের পুুঁজিবাজার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে পুঁজিবাজারের যেকোন সমস্যা সমাধান করা সম্ভব বলে মন্তব্য করেন তিনি।

বৈঠকে তিনি আরও বলেন, মার্চেন্ট ব্যাংকগুলো বিগত দিনেও পুঁজিবাজারকে গতিশীল করার জন্য কাজ করেছে এবং ভবিষ্যতেও এ ধারা অব্যাহত থাকবে। এছাড়াও তিনি নতুন প্রোডাক্ট আনয়নের ক্ষেত্রে বাজারকে প্রস্তুত করতে যৌথ সেমিনার ও ওয়ার্কশপ করার ব্যাপারে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন। ভালো মৌলভিত্তি কোম্পানি বাজারে আনার জন্য বিভিন্ন সেমিনার বা ওয়ার্কশপ করার ব্যাপারে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।

বিএমবিএর প্রতিনিধি দলে আরও উপস্থিত ছিলেন খায়রুল বাশার আবু তাহের মোহাম্মাদ, প্রধান নিবার্হী কর্মকর্তা ও ইভিপি, এমটিবি ক্যাপিটাল লি. মোঃ সোহেল আরমান, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লি., মোঃ আবু বকর, ব্যবস্থাপনা পরিচালক, সাউথইস্ট ব্যাংক ক্যাপিটাল সার্ভিসেস লি., মোহাম্মদ সালেহ আহমেদ, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, আইআইডিএফসি ক্যাপিটাল লি., মোঃ হাফিজ উদ্দিন, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, মাইডাস ইনভেস্টমেন্ট লি. ও মোঃ রিয়াদ মতিন, ব্যবস্থাপনা পরিচালক, বিএমএমএল ইনভেস্টমেন্ট লি.।

ডিএসইর পক্ষে উপস্থিত ছিলেন চীফ রেগুলেটরী অফিসার এ.কে.এম. জিয়াউল হাসান খান, এফসিএ, প্রধান অর্থ কর্মকর্তা আবদুল মতিন পাটওয়ারী, এফসিএমএ, প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা মোঃ জিয়াউল করিম, মহাব্যবস্থাপক ও কোম্পানি সচিব মোহাম্মদ আসাদুর রহমান, এফসিএস।

শেয়ারবাজারনিউজ/এম.আর

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top