লেনদেন বেড়েছে ৩৬৫.৭০ শতাংশ: কোন ব্যাংকে কত টাকার শেয়ার লেনদেন হলো দেখে নিন

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: দেশের শেয়ারবাজারের সার্বিক পরিস্থিতি নির্ভর করে থাকে সাধারণত ব্যাংক খাতের ওপর। তাছাড়া এ খাতে প্রতি সবচেয়ে বেশি আগ্রহ থাকে বিনিয়োগকারীদের। গত অর্থবছরে অর্থাৎ ২০১৭ সালে ব্যাংক খাতের ওপর বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ সবচেয়ে বেশি দেখা গেছে। বিদায়ী বছরে ঢাকা স্টক একচেঞ্জে (ডিএসই) ব্যাংক খাতে লেনদেন বেড়েছে ৩৬৫.৭০ শতাংশ। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র মতে, বিদায়ী বছরে (ডিসেম্বর-জানুয়ারী’১৭) ব্যাংক খাতে ২ হাজার ৭২ কোটি ৬৪ লাখ ৮৬ হাজার ৯১১টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ৪৯ হাজার ১৯৯ কোটি ১৫ লাখ ৮২ হাজার ৬৯১ টাকা। যা আগের অর্থবছরে লেনদেন হয়েছিলো ৬১০ কোটি ৯৬ লাখ ৭৩হাজার ৯৪০টি শেয়ার। যার বাজার দর ছিলো ১০ হাজার ৫৬৪ কোটি ৪১ লাখ ৪৯ হাজার ৮৭৫ টাকা। সে হিসেবে ব্যাংকে খাতের লেনদেন বেড়েছে ৩৮ হাজার ৬৩৪ কোটি ৭৪ লাখ ৩২ হাজার ৮১৬ টাকা বা ৩৬৫.৭০ শতাংশ।

গত অর্থবছরে ব্যাংক খাতের কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি শেয়ার লেনদেন হয়েছে দ্যা সিটি ব্যাংকের। বিদায়ী বছরে সিটি ব্যাংকে মোট ১০৪ কোটি ৪ লাখ ৮৪ হাজার ১৩৯টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ৪ হাজার ২৭৫ কোটি ১ লাখ ৬৩ হাজার ৪৮৪ টাকা। এরপরের স্থানে রয়েছে ব্রাক ব্যাংক। ২০১৭ সালে ব্যাংকটির মোট ৩৭ কোটি ৩০ লাখ ২১ হাজার ৮৭৭টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ৩ হাজার ২৩৮ কোটি ২০ লাখ ২৯ হাজার ৩৭০ টাকা।

তালিকার তৃতীয় স্থানে অবস্থান করছে ইসলামী ব্যাংক। সমাপ্ত বছরে ইসলামী ব্যাংকের মোট ৭৯ কোটি ৩৪ লাখ ৬ হাজার ৯৭৫টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ৩০ হাজার ৭ কোটি ২৫ লাখ ৩৯ হাজার ৭৭৪ টাকা।

এছাড়া এবি ব্যাংকের ৯৫ কোটি ৮৮ লাখ ৮৪ হাজার ২৭৬টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ২ হাজার ২৩৭ কোটি ৪৫ লাখ ৩৫ হাজার ৮৫ টাকা। আইএফআইসি ব্যাংকের ১১০ কোটি ৯৫ লাখ ২ হাজার ৮৪৮টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ২ হাজার ৩৭৬ কোটি ৯৪ লাখ ৭৫ হাজার ২৬৯ টাকা। ন্যাশনাল ব্যাংকের ২১৫ কোটি ৭৬ লাখ ৯১ হাজার ২৪৪টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ২ হাজার ৯৬৬ কোটি ৭৮ লাখ ৩৩ হাজার ৮০৪ টাকা। পূবালী ব্যাংকের ২১ কোটি ৯৮ লাখ ৩৬ হাজার ৭১৬টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ৬১৬ কোটি ৩৬ লাখ ৩৪ হাজার ৪৯ টাকা। রূপালী ব্যাংকের ১২ কোটি ৪০ লাখ ৯৮ হাজার ৯২০টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ৬৮৫ কোটি ৪০ লাখ ২৭ হাজার ১৬৯ টাকা। ইউনাইটেড কর্মাসিয়াল ব্যাংকের ৬৫ কোটি ৬৩ লাখ ৯৩ হাজার ২১টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ১ হাজার ৫১১ কোটি ৭০ লাখ ৫ হাজার ৮৬৭ টাকা।

উত্তরা ব্যাংকের ৩৮ কোটি ৫২ লাখ ৬২ হাজার ২৮৯টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ১ হাজার ৩৫৭ কোটি ৫৫ লাখ ৪৬ হাজার ৫৮১ টাকা। আইসিবি ইসলামী ব্যাংকের ২২ কোটি ৩১ লাখ ০২ হাজার ১০৯টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ১৩৩ কোটি ৪৬ লাখ ১৬ হাজার ৮৮৮ টাকা। ইষ্টার্ন ব্যাংকের ১৭ কোটি ৫০ হাজার ৭৯২টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ৭০২ কোটি ১৪ লাখ ৯৯ হাজার ৯৬৩ টাকা। আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের ৮৮ কোটি ৬৩ লাখ ৯২ হাজার ৮১৫টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ১ হাজার ৯৩৬ কোটি ৪ লাখ ৮৪ হাজার ৭৬৮ টাকা। প্রাইম ব্যাংকের ৭০ কোটি ২১ লাখ ২৫৭টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ১ হাজার ৭২০ কোটি ৫৯ লাখ ০৯ হাজার ৬০৫ টাকা। সাউথইস্ট ব্যাংকের ৫৫ কোটি ৭০ লাখ ১৩ হাজার ৩৫২টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ১ হাজার ১৭৪ কোটি ১২ লাখ ৯৭ হাজার ৩৪২ টাকা।

ঢাকা ব্যাংকের ৫৬ কোটি ৭২ লাখ ৭২ হাজার ৭৩৫টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ১ হাজার ২৫৯ কোটি ৩০ লাখ ৪৬ হাজার ৫২৩ টাকা। এনসিসি ব্যাংকের ৬৭ কোটি ১৬ লাখ ৮১ হাজার ৮৩২টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ১ হাজার ৭০ কোটি ৭ লাখ ৬৬ হাজার ৭৯৪ টাকা। সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের ৯৪ কোটি ৫ লাখ ৯১ হাজার ১৮৬টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ২ হাজার ৪৬০ কোটি ৯৮ লাখ ৭২ হাজার ৮৩০ টাকা। ডাচ-বাংলা ব্যাংকের ৩ কোটি ৬৯ লাখ ২১ হাজার ২২২টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ৫৩৬ কোটি ৩১ লাখ ৯০ হাজার ৯৩২ টাকা। মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ১৮ কোটি ৩৮ লাখ ৫২ হাজার ৮২০টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ৫৩৪ কোটি ৫ লাখ ৩২ হাজার ৮৩৩ টাকা।

স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের ৫৪ কোটি ৪৩ লাখ ১৬ হাজার ৬৩৪টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ৭৮৪ কোটি ৪১ লাখ ২২ হাজার ৩৪৪ টাকা। ওয়ান ব্যাংকের ৯৪ কোটি ১৯ লাখ ০৯ হাজার ৬৩১টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ২ হাজার ১৫৪ কোটি ৭২ লাখ ৩৪ হাজার ৯২৭ টাকা। ব্যাংক এশিয়ার ৩৮ কোটি ৮ লাখ ৫৬ হাজার ৩৪৭টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ৭৯৭ কোটি ৩৩ লাখ ৩ হাজার ২৮৪ টাকা। মার্কেন্টাইল ব্যাংকের ১০২ কোটি ১২ লাখ ৯০ হাজার ৩৬৫ শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ২ হাজার ২৮১ কোটি ১৪ লাখ ০২ হাজার ৩৮৭ টাকা। এক্সিম ব্যাংকের ১৪৪ কোটি ২২ লাখ ৪৬ হাজার ৫১০টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ২ হাজার ২৩১ কোটি ৬৯ লাখ ৮০ হাজার ৯৬৬ টাকা।

যমুনা ব্যাংকের ৩২ কোটি ২৫ লাখ ৫০ হাজার ৮২৯টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ৬৯৮ কোটি ৮২ লাখ ৬৮ হাজার ১৯০ টাকা। শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের ৮৪ কোটি ৭১ লাখ ২৪ হাজার ৭০টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ২ হাজার ১৪০ কোটি ২৬ লাখ ৬৯ হাজার ৬৫৫ টাকা। প্রিমিয়াম ব্যাংকের ১১৪ কোটি ২৮ লাখ ৩৩ হাজার ৮২টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ১ হাজার ৬৭১ কোটি ৯ লাখ ৪ হাজার ১৪ টাকা। ট্রাস্ট ব্যাংকের ৩৫ কোটি ৭৭ লাখ ৮৯ হাজার ৪২৩টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ১ হাজার ১৫২ কোটি ১০ লাখ ৮৫ হাজার ৫৩ টাকা। ফার্স্ট সিকিউরিটজ ইসলামী ব্যাংকের ৯৬ কোটি ৮০ লাখ ৮ হাজার ৫৯৫টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজার দর ১ হাজার ৪৮৭ কোটি ৭৬ লাখ ২ হাজার ৯৪৪ টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/এম.আর

আপনার মন্তব্য

*

*

Top