শেয়ার কেলেঙ্কারির মামলায় ৮ আসামি ও দুই কোম্পানি বেকসুর খালাস

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ১৯ ৯৬ সালের মহাধসে আলোচিত শেয়ার কেলেঙ্কারির দুই মামলায় ৮ আসামি এবং দুই কোম্পানিকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন পুঁজিবাজার মামলার দ্রুত নিষ্পত্তির লক্ষ্যে গঠিত স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল।

আজ বৃহস্পতিবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আকবর আলী শেখ এ রায় দেন।

মামলাগুলো: এইচএমএমএস ফাইন্যান্সিয়াল কনসালটেন্সি অ্যান্ড সিকিউরিটিজের শেয়ার কারসাজি। এবং সিকিউরিটিজ কনসালটেন্টস লিমিটেডের শেয়ার কারসাজি।

মামলা দুটির বাদি পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

অভিযোগ থেকে খালাস পাওয়া ব্যক্তিরা হচ্ছেন- হেমায়েত উদ্দিন আহমেদ, মোস্তাক আহমেদ সাদেক, সৈয়দ মাহবুব মুর্শেদ, শরিফ আতাউর রহমান, আহমেদ ইকবাল হাসান, এম জে আজম চৌধুরী, শহীদুল্লাহ এবং প্রফেসর মাহবুব আহমেদ।

এইচএমএমএস ফাইন্যান্সিয়াল কনসালটেন্সি অ্যান্ড সিকিউরিটিজের শেয়ার কারসাজি মামলা থেকে বেকসুর খালাস পেয়েছেন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সাবেক চেয়ারম্যান হেমায়েত উদ্দিন আহমেদ, ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোস্তাক আহমেদ সাদেক, ডিএসইর সদস্য সৈয়দ মাহবুব মুর্শেদ, ডিএসইর বর্তমান পরিচালক শরিফ আতাউর রহমান এবং সাবেক চেয়ারম্যান আহমেদ ইকবাল হাসান বেকসুর খালাস পেয়েছেন।

সিকিউরিটিজ কনসালটেন্টস লিমিটেডের শেয়ার কারসাজি মামলায় এম জে আজম চৌধুরী, শহীদুল্লাহ ও প্রফেসর মাহবুব আহমেদ খালাস পেয়েছেন। একই সঙ্গে ২ মামলা থেকে এইচএমএমএস ফাইন্যান্সিয়াল কনসালটেন্সি অ্যান্ড সিকিউরিটিজ ও সিকিউরিটিজ কনসালটেন্টস লিমিটেড নামে ওই ২ প্রতিষ্ঠানকেও অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

বিএসইসির প্যানেল আইনজীবী মাসুদ রানা বলেন, ট্রাইব্যুনালের বিচারে ১৯৯৬ সালে শেয়ার কারসাজির মামলায় এইচএমএমএস ফাইন্যান্সিয়াল কনসালটেন্সি অ্যান্ড সিকিউরিটিজ ও সিকিউরিটিজ কনসালটেন্টস লিমিটেড মামলার আসামিরা বেকসুর খালাস পেয়েছে। রায়ের কপি হাতে পেলে উচ্চআদালতে যাওয়ার বিষয়ে কমিশন সিদ্ধান্ত নেবে।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

আপনার মন্তব্য

Top