কারাগারে প্রতিনিয়তই বাড়ছে বন্দি সংখ্যা

শেয়ারবাজার ডেস্ক: কারাগরে প্রতিনিয়তই বাড়ছে বন্দির সংখ্যা । দেশের ৬৮টি কারাগারে বন্দির ধারণক্ষমতা ৩৬ হাজার ৬১৪ জন। স্বাভাবিক সময়গুলোতে প্রতিদিন যেখানে গড়ে বন্দি থাকে ৭০ থেকে ৭২ হাজার। কিন্তু গত প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে গড়ে প্রতিদিন বন্দির সংখ্যা আরও অন্তত ৮ থেকে ১০ হাজার বেড়েছে। ফলে বন্দির সংখ্যা এখন প্রতিদিন প্রায় ৮০ হাজার, যা দ্বিগুণেরও বেশি। এ অবস্থায় বন্দি ব্যবস্থাপনায় ব্যাপক হিমশিম খাচ্ছে কারা কর্তৃপক্ষ।

কারা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা বলেছেন, অতিরিক্ত ৮ থেকে ১০ হাজার বন্দির মধ্যে বড় একটি অংশই বিএনপি, জামায়াতসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মী। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়কে কেন্দ্র করে গত প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যে হারে ব্যাপক গ্রেফতার অভিযান চালিয়েছে তার ফলেই কারাগারে বন্দির সংখ্যা এ সময়ে বেড়েছে।

কারা অধিদফতরের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, গত কয়েক দিনে কারাগারে বন্দির সংখ্যা আরও বেড়ে গেছে। এমনিতেই বন্দি ব্যবস্থাপনা তথা আবাসনের মারাত্মক সমস্যা রয়েছে, তার ওপর আরও বন্দির সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় সার্বিক ব্যবস্থাপনায় অনেকটাই হিমশিম খেতে হচ্ছে কারা কর্তৃপক্ষকে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কারা অধিদফতরের মহাপরিদর্শক (আইজি-প্রিজন) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দীন বলেন, ৩৬ হাজার ৬১৪ জনের ধারণক্ষমতার স্থলে বন্দি থাকে গড়ে ৭২ হাজার, অর্থাৎ দ্বিগুণ। সম্প্রতি বন্দির সংখ্যা আরও কিছু বেড়েছে। রোববার দেশের ৬৮টি কারাগার মিলে মোট বন্দি ছিল ৭৯ হাজার ২৮ জন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রতিটি কারাগারে সর্বোচ্চ দুইজন কর্মকর্তা রয়েছেন। একজন জেল সুপার বা সিনিয়র জেল সুপার এবং অপরজন জেলার। মাত্র এই দুইজন কর্মকর্তা দিয়ে পুরো কারাগার ব্যবস্থাপনা পরিচালনা করাটা প্রতিটি মুহূর্তেই দুঃসাধ্য হয়ে উঠছে। বিশেষ করে বড় বা গুরুত্বপূর্ণ কারাগারগুলোর ব্যবস্থাপনাগত অবস্থা আরও ভয়াবহ।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের মতো সব গুরুত্বপূর্ণ কারাগারেও কর্মকর্তা মাত্র দুজনই। যেখানে স্টাফ বা কারারক্ষীর সংখ্যা ৭৫০। অথচ বন্দি গড়ে প্রায় ৭ হাজার। প্রতিদিন অন্তত ৫০০ বন্দির সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে আসেন গড়ে ২৫ হাজার স্বজন। এ ৭ হাজার বন্দিকে যথা সময়ে তিনবেলা খাওয়ানো সার্বিক ব্যবস্থাপনায় প্রতিনিয়তই বেগ পেতে হচ্ছে কারা সংশ্লিষ্টদের।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top