চিন্তা দূর করবেন কিভাবে?

শেয়ারবাজার ডেস্ক: মাথায় কি সারা দিন অযথা চিন্তা? ভাবতে চাচ্ছেন না কিছু তারপরেও চিন্তা মাথায় আসছে? অনেক চেষ্টা করেও চিন্তা দূর করতে পারেন না? কেন এমনটা হয়ে বলুন তো? তবে হ্যাঁ আপনার জন্যে এই সুসংবাদটি কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক মাইকেল অ্যান্ডারসন জানাচ্ছেন, আপনার একটু চেষ্টাতেই মাথা থেকে তাড়াতে পারেন অযথা চিন্তা।

নেচার কমিউনিকেশনস জার্নালে অ্যান্ডারসনের গবেষণার প্রকাশিত এক সংবাদে বলা হয়। ফাংশনাল ম্যাগনেটিক রিজোনেন্স ইমেজিং ও ম্যাগনেটিক রিজোনেন্স স্পেকট্রোস্কোপির সাহায্যে অংশগ্রহণকারীদের অযথা চিন্তা নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা পরীক্ষা করেন তিনি। স্পেকট্রোস্কোপির ফলে দেখা যায়, অযথা চিন্তা নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা নির্ভর করে একটি নিউরোট্রান্সমিটারের উপর। যা মস্তিষ্কের বিভিন্ন কোষের মধ্যে বার্তা সঞ্চালনে সাহায্য করে। জিএবিএ বা গাবা নামের এই নিউরোট্রান্সমিটার মস্তিষ্কে গ্লুটেমেট ও ডোপেমাইনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে।

মস্তিষ্কের হিপোক্যাম্পাসে থাকা গাবা-র মাত্রা আমাদের স্মৃতি ও অযথা চিন্তার কারণ। হিপোক্যাম্পাসে গাবা-র মাত্রা যত বেশি হবে অযথা চিন্তা নিয়ন্ত্রণ তত সহজ হবে। অ্যন্ডারসন জানাচ্ছেন, গাবা-র মাত্রা বাড়ানোর কোনও চিকিৎসা নেই। তবে গাবা-র অভাবে নিউরোকেমিক্যালের ভারসাম্য নষ্ট হয়। তাই গাবা-র সঠিক মাত্রা বজায় রাখতে পারলে অযথা চিন্তা দূরে রাখা যায়।

মেডিটেশন: মন শান্ত করার জন্য মেডিটেশন খুবই জরুরি। মেডিটেশন গাবা-র মাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে। সপ্তাহে ৩-৪ দিন হাঁটা বা দৌড়নোর মতো এক্সারসাইজও গাবা-র মাত্রা বাড়ায়।

যোগাভ্যাস: গাবা-র মাত্রা বাড়াতে মনসংযোগ করা খুব জরুরি। যোগাভ্যাস শ্বাস-প্রশ্বাসের ওপর নিয়ন্ত্রণ বাড়ায়। স্ট্রেস ও উৎকণ্ঠা কমাতে সাহায্য করে।

ডায়েট: সফট ড্রিঙ্ক, প্রসেসড ফুড থেকে দূরে থাকুন। ডায়েটে এমন খাবার রাখুন যাতে গ্লুটেমিক অ্যাসিড রয়েছে। গাবা-র গঠনের মূল গ্লুটেমিক অ্যাসিড। যে খাবারগুলো ডায়েট রাখবেন- কলা, মেটে, ব্রকোলি, ঢেঁকি ছাঁটা চাল, ব্রকোলি, মাছের তেল, ডাল, ওটস, লেবু জাতীয় ফল, আলু, পালং শাক, আমন্ড, আখরোট।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top