আইপিও’র মাধ্যমে কোম্পানির তালিকাভুক্তিতে কতোদিন সময় লাগে

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: একটি কোম্পানি প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) আবেদন থেকে শুরু করে শেয়ারবাজারে লেনদেন চালু হওয়া পর্যন্ত কতোদিন সময় প্রয়োজন হয় সে বিষয়ে অনেকেই জানতে চেয়েছেন। আজ শেয়ারবাজারনিউজ ডটকমের শেয়ারবাজার শিক্ষা কলামে এ বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরা হলো:

১। প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টসসহ ড্রাফট প্রসপেক্টাস বিএসইসি ও স্টক এক্সচেঞ্জে জমা- শুণ্য (০) দিন।

২। ডিএসই’র প্রাথমিক সুপারিশ চেকলিষ্ট সহকারে বিএসইসিতে জমা- কোম্পানির আবেদনের ২০ দিনের মধ্যে।

৩। ডিএসই’র জিজ্ঞাসার বিপরীতে কোম্পানির উত্তর- স্টক এক্সচেঞ্জের এ সংক্রান্ত চিঠি পাওয়ার ১০ দিনের মধ্যে।

৪। কোম্পানি সম্পর্কে স্টক এক্সচেঞ্জের পক্ষ থেকে চূড়ান্ত প্রতিবেদন বিএসইসিতে জমা- কোম্পানির আবেদনের ৯০ দিনের মধ্যে।

৫। বিএসইসি থেকে ইস্যুয়ার বা কোম্পানিকে তাদের বিভিন্ন দোষ ত্রুটি উল্লেখ করে চিঠি বা ডেফিসিয়েন্সি লেটার- কোম্পানির আবেদন পরীক্ষা করার ৪০ কার্যদিবসের মধ্যে।

৬। বিএসইসির জিজ্ঞাসা বা ডেফিসিয়েন্সি লেটারের বিপরীতে কোম্পানির উত্তর- বিএসইসির বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে।

৭। বিএসইসির অনুমোদন পত্র বা কনসেন্ট লেটার – কোম্পানির পক্ষ থেকে পরিপূর্ণ আবেদনের ৬০ কার্যদিবসের মধ্যে।

৮। বিএসইসির প্রত্যাখান পত্র- কোম্পানির পক্ষ থেকে পরিপূর্ণ আবেদনের ৬০ কার্যদিবসের মধ্যে।

৯। বিএসইসি থেকে প্রত্যাখাত বা রিজেক্ট হওয়ার পর কোম্পানির পক্ষ থেকে আপীল- রিজেকশন লেটার পাওয়ার ৬০ কার্যদিবসের মধ্যে।

১০। প্রসপেক্টাসের সংক্ষিপ্ত বা এব্রিজড ভার্সন প্রকাশ করা- বিএসইসির অনুমোদনপত্র পাওয়ার ২ কার্যদিবস বা কনসেন্ট লেটারে বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে।

১১। কোম্পানি,বিএসইসি,স্টক এক্সচেঞ্জে এবং ইস্যু ম্যানেজারের ওয়েবসাইটে প্রসপেক্টাস প্রকাশ- বিএসইসির অনুমোদনপত্র পাওয়ার ৩ কার্যদিবস বা কনসেন্ট লেটারে বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে।

১২। বিএসইসিতে প্রিন্ট করা প্রসপেক্টাস জমা- প্রসপেক্টাসের এব্রিজড ভার্সন প্রকাশের পর ৫ কার্যদিবস বা কনসেন্ট লেটারে বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে।

১৩। প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য প্রসপেক্টাস এবং ফর্ম বাংলাদেশ এ্যাম্বাসীস অ্যান্ড মিশনসে প্রেরণ-  পত্রিকায় প্রসপেক্টাসের এব্রিজড ভার্সন প্রকাশের পর ৫ কার্যদিবস বা কনসেন্ট লেটারে বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে।

১৪। প্রসপেক্টাস প্রেরণ সংক্রান্ত কমপ্লায়েন্স রিপোর্ট বাংলাদেশ এ্যাম্বাসীস অ্যান্ড মিশনসে প্রেরণ- প্রসপেক্টাস ট্রান্সমিশনের পর থেকে দুই কার্যদিবস।

১৫। স্টক এক্সচেঞ্জে লিষ্টিংয়ের জন্য আবেদন- বিএসইসির কনসেন্ট লেটার পাওয়ার ৭ কার্যদিবসের মধ্যে।

১৬। সাবস্ক্রিপশনের তারিখ বা কাট অফ ডেট নির্ধারণ- প্রসপেক্টাসের এব্রিজড ভার্সন প্রকাশের পর ২৫ কার্যদিবসের মধ্যে।

১৭। সাবস্ক্রিপশন সংক্রান্ত রিপোর্ট বিএসইসি ও স্টক এক্সচেঞ্জে জমা- সাবস্ক্রিপশন ক্লোজ হওয়ার ৫ কার্যদিবসের মধ্যে।

১৮। সাবস্ক্রিপশন,লটারি,অ্যালটমেন্ট এবং রিফান্ড প্রক্রিয়া- প্রসপেক্টাসের এব্রিজড ভার্সন প্রকাশের পর ৪৭ কার্যদিবসের মধ্যে।

১৯। স্টক এক্সচেঞ্জের তালিকাভুক্তির অনুমোদন- সাবস্ক্রিপশন লিষ্ট ক্লোজ হওয়ার সর্বোচ্চ ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে।

২০। যদি লিষ্টিংয়ের জন্য আবেদন প্রত্যাখান করা হয় তাহলে সাবস্ক্রিপশনের অর্থ রিফান্ড দেয়া- উপরে তালিকাভুক্তির যে সময়সীমা (৩০ কার্যদিবস) দেয়া হয়েছে তারপর ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে।

২১। সাবস্ক্রিপশনের টাকা রিফান্ডের কমপ্লায়েন্স রিপোর্ট-  উপরের ১৫ কার্যদিবসের পর থেকে ৭ কার্যদিবস।

২২। স্টক ব্রোকার/ মার্চেন্ট ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে আইপিও আবেদন বা নির্দেশনাসমূহ সংরক্ষণ- তালিকাভুক্তির পর থেকে ৬ মাস পর্যন্ত তথ্য সংরক্ষণ করতে পারে।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top