লেনদেনে ফিরছে বিদেশি বিনিয়োগকারী

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: চলতি বছরের শুরুতে দেশের শেয়ারবাজারে যে আস্থার সংকট দেখা দিয়েছিলো বর্তমানে তা কাটিয়ে উঠেছে। প্রতিদিনই বাড়ছে সূচক ও লেনদেন। এমনকি অনেক ভালো কোম্পানির শেয়ারের মূল্য আকর্ষণীয় পর্যায়ে নেমে এসেছে। ফলে বিদেশিরা বিনিয়োগ বাড়াচ্ছে। যার প্রতিফলন দেখা গেছে শেয়ারবাজারে। চলতি মাসের (১-১৫ মার্চ ) প্রথম পক্ষে শেয়ারবাজারে বিদেশিদের নিট বিনিয়োগ বেড়েছে ২০.০১ শতাংশ।

এ বিষয়ে একাধিক মার্চেট ব্যাংকের কর্মকর্তার সাথে কথা বললে তারা বলেন, বিদেশি বিনিয়োগকারীরা খুবই সচেতন। বিদেশিরা সব সময় ঝামেলা এড়িয়ে চলেন। বাজারে বিনিয়োগের আগে তারা অনেক দিক বিশ্লেষণ করে বিনিয়োগ করেন। সুযোগের অপেক্ষায় থাকেন। আকর্ষণীয় মূল্যে তারা শেয়ার ক্রয় করেন। আবার বিক্রির ক্ষেত্রেও সতর্কতা অবলম্বন করেন। কয়েক মাস ধরে বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে পর্যবেক্ষণের পর বিনিয়োগ বাড়াতে শুরু করেছে বিদেশি বিভিন্ন কোম্পানি ও বিনিয়োগকারীরা। তারা বাজারে শেয়ার বিক্রির চেয়ে বেশি পরিমাণে কিনছে। এতে অনেকটাই বাড়ছে বিদেশি বিনিয়োগ।

তাছাড়া বাজারের নেতিবাচক ইস্যুগুলো নিয়ন্ত্রক সংস্থা দূর করেছে। এতে কয়েকটি কোম্পানির শেয়ারের দাম বেশ আকর্ষণীয় হওয়ায় বিদেশিরা বিনিয়োগে আগ্রহী হয়ে উঠেছে। ফলে বিদেশিরা বিনিয়োগ বাড়াচ্ছে। যার ফলে শেয়ারবাজারে বিদেশি বিনিয়োগ বেড়েছে। যা বাজারের জন্য ইতিবাচক। তবে বিদেশিরাও টাকা তুলে নেয়। এ জন্য দেশি বিনিয়োগকারীদেরও সময় মতো মুনাফা নেওয়ার পরামর্শ দেন তারা।

ডিএসইর তথ্যানুযায়ী, চলতি মাসের প্রথম ১৫ দিনে ১১ কার্যদিবস লেনদেন হয়েছে। এ ১১দিনে বিদেশীরা মোট ৪৪৬ কোটি ৯৯ লাখ ৭০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন করেছেন। এর আগের পক্ষে অর্থাৎ ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ ১৫ দিনে বিদেশীরা মোট ৩৭২ কোটি ৪৩ লাখ ৬০ হাজার টাকার লেনদেন করেছিলেন। সে হিসেবে দেখা যাচ্ছে আগের পক্ষের তুলনায় চলতি পক্ষে বিদেশীদের লেনদেন ৭৪ কোটি ৫৬ রাখ ১০ হাজার টাকা বা ২০.০১ শতাংশ বেড়েছে।

এদিকে চলতি পক্ষে লেনদেনে বিদেশিদের অংশগ্রহণ বাড়লেও গত বছরের তুলনায় বিদেশী লেনদেন কমেছে। ২০১৭ সালের (১-১৫ তারিখ) মার্চ মাসে বিদেশীরা মোট ৫৯৩ কোটি ৯ লাখ ৬০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন করেছিলো। যা চলতি পক্ষের তুলনায় ১৪৬ কোটি ৯ লাখ ৯ হাজার টাকা বা ২৪.৬৩ শতাংশ কম।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/এম.আর

আপনার মন্তব্য

Top